পুনমের বিরুদ্ধে কড়া আইনি পদক্ষেপ চান একতা কাপুর

পুনমের বিরুদ্ধে কড়া আইনি পদক্ষেপ চান একতা কাপুর

চেয়েছিলেন সার্ভাইক্যাল ক্যানসার নিয়ে সচেতনতার বার্তা দিতে। কিন্তু হয়ে গেল উলট পুরাণ! নিজের মৃত্যু নিয়ে তো বটেই, এমনকী মারণ রোগকে নিয়েও এমন ঠাট্টা-তামাশা সহ্য হল না নেটপাড়ার। অতঃপর পুনম পাণ্ডের (Poonam Pandey) উপর গিয়ে পড়ল সমস্ত রোষ। সশরীরে ভিডিও পোস্ট করতেই নেটপাড়া রে-রে করে উঠল। পুনম পাণ্ডে ক্ষমা চাইলেও চিঁড়ে ভিজল না! খোদ একতা কাপুর সেই কমেন্ট বক্সে নিজের ক্ষোভ উগড়ে দিলেন।

‘হটারফ্লাই’ নামে এক সংস্থার জন্যই জরায়ুর ক্যানসার নিয়ে সচেতনতা বার্তার নামে শুক্রবার এক পাবলিসিটি স্টান্ট করেন পুনম পাণ্ডে। ফেব্রুয়ারি যেহেতু সার্ভাইক্যাল ক্যানসারের সচেতনার মাস, সেই প্রেক্ষিতেই এমন কুরুচিকর কীর্তি মডেল অভিনেত্রীর। জড়ায়ুর ক্যানসার, দিন দিন বেড়ে চলা এই মারণ রোগকে নিয়ে উদ্বিগ্ন গোটা দুনিয়া। এমনকী, এবারের বাজেট ঘোষণাতেও কেন্দ্র জড়ায়ু ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়াইকে গুরুত্ব দিয়েছেন নির্মলা সীতারমণ। এমন এক রোগকে নিয়ে, প্রচারের নামে পুনম যেভাবে ছেলেখেলা করলেন, তাতেই ক্ষিপ্ত নেটপাড়া।

ভিডিও বার্তার পরই ক্ষমা চেয়ে একটি পোস্ট করেছেন পুনম পাণ্ডে। লিখেছেন, “আমার প্রচুর বন্ধু, আমার কাছের মানুষ, যাঁরা আমাকে ভালোবাসেন, আমার মনে হয় আমি এরকম অনেক মানুষকে আঘাত করেছি। ভয়ানক অনুভূতি হচ্ছে। অনেক ফোন পাচ্ছি চারদিক থেকে। তবে এটা টাকাপয়সার জন্য করিনি, করেছি একটা সৎ উদ্দেশে। সার্ভাইক্যাল ক্যানসারের সচেতনতার বার্তা দিতে। কেউ এই ক্যামপেইনটা করতে রাজি হয়নি। গতকাল থেকে জরায়ুর ক্যানসার নিয়ে এত আলোচনা দেখে ভালো লাগছে। সাইসা, শার্দুল আমার অনেক ভালো বন্ধুরা আমার উপ রেগে গিয়েছে। তবে আমি বার্তাটা ঠিকঠাক দিতে পেরেছি…।” এরপরই অভিনেত্রীর সংযোজন, “কেউ জানত না। আমার পিআর টিমেরও কারও জানা ছিল না যে আমি কোথায়। আমি খুব দুঃখিত পারুল, সাইসা, শার্দুল যে তোমাদের সকলকে এত আঘাত করেছি।”

পুনম পাণ্ডের মুখে এমন কথা শুনে আরও চটে গেলেন একতা কাপুর। সোজাসুজি বললেন, “এটা সচেতনতা? সরকারের উচিত তোমার এবং ওই সংস্থার বিরুদ্ধে কড়া আইনি পদক্ষেপ নেওয়া।” খেপে গেলেন আরেক অভিনেত্রী শ্রীজিতা দে-ও। বললেন, “তোমার লজ্জা হওয়া উচিত পুনম পাণ্ডে।”

বিনোদন শীর্ষ খবর