৪৬ দশে নয়িে চীনরে নতেৃত্বে এআইআইবি ব্যাংকরে যাত্রা শুরু চলতি বছরইে ৪৬ দশে নয়িে চীনরে নতেৃত্বে এআইআইবি  শুরু চলতি বছরইে

৪৬ দশে নয়িে চীনরে নতেৃত্বে এআইআইবি ব্যাংকরে যাত্রা শুরু চলতি বছরইে ৪৬ দশে নয়িে চীনরে নতেৃত্বে এআইআইবি শুরু চলতি বছরইে

sah

বশ্বিব্যাংক ও আইএমএফ-এর বকিল্প হসিাবে চীন এশীয় অবকাঠামো বনিয়িোগে এশয়িা ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভস্টেমন্টে ব্যাংক (এআইআইব)প্রতষ্ঠিার উদ্যোগ নয়িছে। এই বছররে শষে দকিে ব্যাংকটি চালু হবে ও এর র্কাযক্রম শুরু হব। এতে ৪৬টি দশে একমত হয়ছে। ৩০টি দশে ইতোমধ্যে প্রতষ্ঠিাতা সদস্য হয়ছে। আরো ১৬টি দশে সদস্য হওয়ার জন্য আবদেন করছে। তাদরে ব্যাপারে ১৫ এপ্রলি সদ্ধিান্ত হব। ব্যাংকরে ব্যাপারে আনুষঙ্গকি আলোচনা করার জন্য এই বছররে ১৫ মে একটি বঠৈক হব। সখোনে এর নীতমিালাও চূড়ান্ত করা হব।ব্যাংকরে তত্ত্ব্াবধানে থাকবে চীন। আর বাকি ২৯টি দশে প্রতষ্ঠিাতা রাষ্ট্র। বাংলাদশে রয়ছেে তালকিার এক নম্বর সদস্য হসিাব।এই ব্যাংকরে সঙ্গে বাংলাদশেকে সম্পৃক্ত রাখার ক্ষত্রেে সবচয়েে বড় অবদান রাখছনে সাবকে যোগাযোগ মন্ত্রী সয়ৈদ আবুল হোসনে। তনিি সম্প্রতি বোয়া ফোরামে যোগ দয়িে দশেে ফরিছেনে ৩১ র্মাচ। তনিি বলনে, এই ব্যাংকরে মূলধন শুরুতে ১০০ বলিয়িন ডলার। এ বশেরিভাগ দবিে চীন। বাকটিা অন্যান্যরা দবি। ২৬-৩০ র্মাচ এই চার দনিব্যাপী চীনে অনুষ্ঠতি হয়ে গলেো বোয়া ফোরাম ফর এশয়িার র্বাষকি সম্মলেন। সখোনে চীনরে প্রসেডিন্টে শি জংিপংি প্রধান অতথিি থকেে শনবিার প্লনোরী সশেনে ভাষণ দনে। সখোনে তনিি চীন কভিাবে এই অঞ্চলরে র্অথনতৈকিভাবে আরো উন্নতি করব, সহযোগতিা বাড়াব, ব্যবসায়ীদরে সহযোগতিা করবে সটো জানয়িছেনে। ওই বোয়া ফোরামে এআইআইবি ব্যাংক নয়িওে আলোচনা হয়ছে। সখোনে বস্তিারতি উঠে এসছে। এই ব্যাংক প্রতষ্ঠিার সদস্য রাষ্ট্ররে তালকিার প্রথম নামটি বাংলাদশেরে। আর এর কৃতত্বি বাংলাদশেরে সাবকে যোগাযোগ মন্ত্রী সয়ৈদ আবুল হোসনেরে। তনিি ওই সম্মলেনে ২০০১ সাল থকেে প্রতি বছর বাংলাদশেরে প্রতনিধিত্বি করছনে। এবারও করছেনে। এবার তনিি ছাড়া তার ময়েে সয়ৈদ ইফফাত হোসনে সখোনে নর্বিাচতি বক্তা হসিাবে বক্তৃতাও করছেনে। বাংলাদশে থকেে এই ব্যাপারে র্অথমন্ত্রী, বাণজ্যি মন্ত্রী এরা যোগ দলিে বষিয়টি আরো গুরুত্ব পাবে বলে মনে করনে সয়ৈদ আবুল হোসনে। তনিি বলনে, আমি এখন সরকাররে কউে নই। ব্যবসায়ী হসিাবে এবং সাবকে মন্ত্রী হসিাবে সখোনে যাই। সখোনে আমাদরে র্অথমন্ত্রী, র্অথ উপদষ্টো, বাণজ্যি মন্ত্রী থাকলে আরো ভাল হয় তারা সরকাররে তরফ থকেে কথা বলতে পারনে। এই ব্যাংকরে আমরা প্রতষ্ঠিাতা সদস্য হয়ছে।ি আমরা আমাদরে প্রয়োজনীয় ঋণ এখান থকেওে ব্যাংকটি চালু হলে নতিে পারবো। কারণ তারা কবেল অবকাঠামোগত উন্নয়নে ঋণ দবি।ে সটোই এখন আমাদরে দরকার। তনিি বলনে, এই বষিয়ে সরকার নজর দবিনে বলে আশা কর। আবুল হোসনে জানান, বশ্বিরে ২য় বৃহত্তম র্অথনীতি চীন এশীয় অবকাঠামো বনিয়িোগ ব্যাংক (এআইআইব) নামে একটি আর্ন্তজাতকি ব্যাংক গঠনরে যে উদ্যোগ নয়িছে, তাতে যোগ দতিে ৪৬টরি বশেি দশে আবদেন করছে।সইে সঙ্গে বশ্বিব্যাংক, আর্ন্তজাতকি মুদ্রা তহবলি (আইএমএফ) ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকরে (এডবি)সর্মথন আছ।

ব্যাংকটরি প্রতষ্ঠিাতা সদস্য দশে হসিবেে যোগ দয়োর র্সবশষে দনি ছলি গত ৩১ র্মাচ। শষে দনিে নরওয়, তাইওয়ান ও তার আগরে দনি সুইডনে আবদেন কর। আর গত সপ্তাহে আবদেন করছেলি রাশয়িা, ডনের্মাক, নদোরল্যান্ডস ও অস্ট্রলেয়িা। বাংলাদশেকে সদস্য করার জন্য র্সাবকিভাবে সহায়তা করা ও সদস্য করার জন্য কাজ করনে সয়ৈদ আবুল হোসনে। তনিি বাংলাদশেরে সরকাররে থকেে ও সরকাররে গুরত্বর্পূণ কউে না থাকলওে তনিি কাজ এগয়িে নচ্ছিনে। আশা করছনে এটা হলে বাংলাদশেরে উন্নতি হব। বড় বড় প্রকল্পে ঋণ নতিে পারবনে। এতে অবকাঠামোগত উন্নয়ন হব।
ওয়াশংিটনভত্তিকি পরার্মশক প্রতষ্ঠিান ইউরশেয়িা গ্রুপরে জ্যষ্ঠে গবষেক এরকিা ডাউনসরে বরাত দয়িে আবুল হোসনে বলনে, ‘এখন র্পযন্ত চীন যা করছে,ে তাতে এআইআইবি সত্যকিার র্অথে একটি বহুজাতকি র্আথকি সংস্থা হয়ে উঠতে পার।ে তারা খুব সচতেনভাবে বশ্বিব্যাংক ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকরে (এডবি)ি সাবকে র্কমর্কতাদরে ব্যাংকটতিে নয়িে আসতে জোর চষ্টো চালাচ্ছ।ে আর যভোবে সবকছিু এগোচ্ছ,তাতে উদ্যোগটি সফল হবে বলইে মনে হচ্ছ।ে বশ্লিষেকরো মনে করছনে, আর্ন্তজাতকি র্অথনীততিে চীনরে আধপিত্য বাড়াতে এ ব্যাংকটি গুরুত্বর্পূণ ভূমকিা পালন করব। সে জন্য র্মাকনি যুক্তরাষ্ট্র, বশ্বিব্যাংককে এআইআইবরি সঙ্গে যৌথভাবে বভিন্নি প্রকল্পে র্অথায়নরে পরার্মশও দনে কয়কেজন বশিষেজ্ঞ। আবুল হোসনে বলনে, বভিন্নি দশে এআইআইবতিে জয়নে করতে চায়। ডডেলাইন যতই কাছে আসছলি এরমধ্যে অনকে দশে যোগ দতিে থাক। রাশয়িা, ব্রাজলি, নদোরল্যান্ডস, ডনের্মাক শনবিার যোগ দয়োর জন্য আবদেন করনে। শুক্রবার র্জজয়িা, তাইওয়ান, দক্ষণি কোরয়িাও এতে যোগ দয়োর আগ্রহ প্রকাশ করে এবং আবদেন কর। যতগুলো দশে মজের ইকোনমি আছে ইউএসএ, জাপান, কানাডা, এখন র্পযন্ত জয়নে করার ইচ্ছে প্রকাশ করনেি বা সদ্ধিান্ত জানায়নি তবে শষে মুর্হূতে তারা হয়তো আগ্রহ প্রকাশ করতে পার। সটো হলে তারা সাধারণ সদস্য হতে পার।
সয়ৈদ আবুল হোসনে বলনে, যসেব দশে আবদেন করছেে প্রতষ্ঠিাতা ৩০ সদস্যর বাইররে তাদরে বষিয়টি আগামী ১৫ এপ্রলি জানয়িে দয়ো হব। ৩০টি দশে আগে যোগ দলিওে এরপর ৩১ র্মাচ র্পযন্ত সুযোগ রাখা হয়। অন্যান্য দশেও সদস্য হওয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ কর। সইে হসিবেে আরও ১৬টি দশে আবদেন কর। আবুল হোসনে জানান, চীনরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়রে মুখপাত্র হুয়া ঝু ইয়ং বলছেনে, সব আগ্রহী দশেকে চীনরে ব্যাংকে যোগ দয়োর জন্য স্বাগত জানানো হচ্ছ। এটা হলে এশয়িাসহ বশ্বিরে নানা দশে এতে করে র্আথকিভাবে উপকৃত হব। এ ব্যাংকরে যারা সদস্য হবনে চীন তাদরে সঙ্গে কাজ করব।ে সদস্যদরে নয়িে একসঙ্গে কাজ করে ব্যাংকটকিে একটি প্রফশেনাল ও ইন্ডাস্ট্রয়িাল প্ল্যাটর্ফমে উন্নীত করব।
চীন বাণজ্যি বাড়ানো, বনিয়িোগ বাড়ানো ও দ্বপিাক্ষকি সর্ম্পক বাড়ানো যায় কভিাবে সইে চষ্টো করছ। যাতে করে তাদরে অভ্যন্তরীণ ব্যবসা বাড়ে সইে সঙ্গে বদিশেী কোম্পানরি এক্সসসে তরৈি করা যায় এটাও সখোনকার মন্ত্রণালয় বলছে। আমরা সটোকে কাজে লাগাতে পার।
সল্কিরোড ইকোনমকি বল্টে এবং ২১ শতকরে মরেটিাইম সল্কিরোড- এই দুটি উদ্যোগ ননে চীনরে প্রসেডিন্টে শি জনিপং। তনিি এই দুটি প্রস্তাব করনে ২০১৩ সাল।ে মন্ত্রণালয়রে মুখপাত্র আমাদরেকে জানয়িছেনে সনে ডংে ইয়ং বলছেনে, চীন নর্ভির করবে ক্রসর্বডার ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারশেন জোন ও সন্টোররে ওপর। যমেন হরগস পন্ট। এটা হলে ভালো প্ল্যাটর্ফম তরৈরি জন্য যাতে বনিয়িোগরে ক্যাটাগরি আরও বাড়ানো, বনিয়িোগ বৃদ্ধ,ি র্কমসংস্থান বৃদ্ধি ও মুদ্রা বনিমিয়ে বষিয়টওি তরৈি করা যায়। আবুল হোসনে বলনে, চীন যভোবে এগোচ্ছে এই ভাবে এগোনো গলেে এতে একটা ইতবিাচক প্রভাব পড়ব।
তনিি বলনে, কছিু কছিু অনুষ্ঠান যমেন- আঞ্চলকি সুযোগ, সুসর্ম্পক, কারগিরি অভজ্ঞিতা বনিমিয়, র্অথনতৈকি প্রতষ্ঠিান স্থাপনরে মধ্য দয়িে চীন র্অথনতৈকি এবং প্রকল্পভত্তিকি সহযোগতিা দয়োর আগ্রহ প্রকাশ করছেে সহযোগী আশপাশরে র্অথনতৈকি দশেক।ে
চীন বশ্বিরে দ্বতিীয় বৃহত্তম র্অথনতৈকি দশে হসিবেে ইনফ্রাস্ট্রাকচারাল ইনভস্টেমন্টে ব্যাংকরে জন্য ৫০ বলিয়িন ডলার র্অথ দবে। এতে ৪২টি দশে ছলি এখন ৪৬টি হয়ছে। সখোনকার এক্সকিউিটভি ভাইস প্রসেডিন্টে রনে হয়ং নি বলছেনে, বইেজংি বইেজ চায়নজি একাডমেি অব ইন্টারন্যাশনাল ট্রডে একাডমেি নশেনও মনে করে এবং আমওি মনে করি য, চীনরে অনকে ভালো ও ইতবিাচক সম্ভাবনা রয়ছেে কারগিরি ও ক্যাপটিাল খাত। তাদরে কাছে টকেনক্যিাল ও প্রফশেনালও যে কোনো বড় কাজ করার জন্য এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন করার জন্য ক্ষমতা ও শক্তি রয়ছে। আবুল হোসনে জু চু নামরে ইউনভর্সটিি অব বজিনসে অ্যান্ড ইকোনমক্সিরে গ্রডে প্রফসেররে বরাত দয়িে বলছেনে, যহেতেু ইনভস্টেগুলো আপাতত ফোকাস হবে রোড, রলেওয়, বমিানবন্দর ও বন্দরগুলোর ওপর। কারণ এটা র্সবসাধারণকে সুবধিা দবে। আর এটা হলে ট্রডেরে কস্টও অনকে কমে যাব। কস্ট কমলে লাভ বাড়ব।
আবুল হোসনে বলনে, ৪৬টি দশেে এখন এআইআইব’র সদস্য রাষ্ট্র হচ্ছ। তারা সদস্য হওয়ার জন্য আবদেনও কর। এখন সখোনে আলোচনা হয় কমেন করে এই ব্যাংকরে নতুন নতুন নয়িমগুলো তরৈি করা হব। এটা ড্রাফট করতে হব। এআইআইবি মাল্টি লবোরলে সক্রেটোরয়িটেরে সক্রেটোরি জনোলে জনি লকিুনরে বরাত দয়িে বলনে, তনি ব্যাংকরে প্রপিারটেরি র্কমকাণ্ড সর্ম্পকে সবাইকে অবহতি করছেনে। ২৯টি দশেরে প্রতনিধিি যারা সদস্য হব।ে কাজাকস্তিানরে মল্টমিন্ট সম্মলনেওে এ নয়িে আলোচনা হয়ছে।ে ব্যাংকরে নয়িম ও বধিবিধিানগুলো চূড়ান্ত করতে হব,এরপর সটোতে স্বাক্ষর করতে হব।ে তনিি বলনে ,আশা করা যাচ্ছে এই বছরইে সটো করা সম্ভব হব।ে এছাড়াও মে মাসে এটা নয়িে ফাইনাল সশেন হব।ে আর এটার পর সব চূড়ান্ত করে এই বছররে শষে নাগাদ ব্যাংকটি চালু করা যাব।
তনিি বলনে, আমরা ওখানে যে আলোচনা করছেি তাতে এ সদ্ধিান্তে পৗেঁছতে প্রায় দুই সপ্তাহরে বশেি সময় লাগব। আর কারা কারা চূড়ান্ত সদস্য হবে এটা ১৫ এপ্রলিরে মধ্যে সদ্ধিান্ত নয়ো হব।শুরুতে যারা সদস্য হয়ছেে তারা হল প্রতষ্ঠিাতা সদস্য। আর যারা পরে সদস্য হবে তারা হবে সাধারণ সদস্য। চীনরে র্অথ মন্ত্রণালয়রে ওয়বেসাইটে লখেছেলি বদিশে থকেে আসা সদস্যদরে নয়িে গর্ভনসে, প্রকউিরন্ট, পরবিশেগত কাঠামো ও সামাজকি নটেওর্য়াক এসব বষিয় নয়িে আলোচনা করা হয়।
এ ব্যাংকটি একটি মাল্টি লোটারলে ইনভস্টে হব। এর কাজ হবে ইনফ্রাস্ট্রাকচারাল ও উন্নয়ন। এসব উন্নয়ন করার জন্য যে সব সম্ভাব্য জায়গা রয়ছেে তাদরে লোন দয়ো। তনিি বলনে, এ ব্যাংকটি চীনরে নতেৃত্বে হলওে এই ব্যাংকরে সদস্য হওয়ার জন্য ইউরোপীয় দশেগুলো আগ্রহ প্রকাশ করছ।এর মধ্যে রয়ছে-ে ইতাল, র্জামান, ইংল্যান্ড ও ফ্রান্স। এই ব্যাংকরে অথরাইজড ক্যাপটিাল রয়ছেে ১০০ বলিয়িন ডলার। শুরুতে ইনশিয়িাল সাবক্রাইব ক্যাপটিাল হবে ৫০ বলিয়িনি ডলার।
এদকিে এ ব্যাংকরে যাদরে সদস্য হওয়ার সম্ভাবনা রয়ছেে ওই সব দশে এটা নয়িে আলোচনা করছে,ে কভিাবে শয়োর ভাগাভাগি হব।ে আর এটা নর্ণিয় করা দরকার। সখোনে বলা হয়ছে,ে কোন দশেরে শয়োর কি হবে সটো নর্ভির করবে ওই দশেরে জডিপিরি ওপর ভত্তিি কর।ে ৪৬টরি বশেি দশে এই ব্যাংকরে সদস্য হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করছে।ে তবে বশ্লিষেকরা মনে করছনে, এটা হলওে শগিগরিই গুরুত্বর্পূণ কছিু বষিয়রে সমাধান করতে হব।ে
র্বড ওয়াই চ্যাট র্হাম হাউসরে অ্যাসোসয়িটে ফলেোর বরাতে আবুল বলনে, কভিাবে মূলধন ভাগাভাগি হব,েতত্ত্বাবধানে কি কি নয়িম করা হবে তা সদ্ধিান্ত নতিে হব।ে
এদকিে এটাও প্রশ্ন উঠছেে ব্যাংক লোন দতিে কতটা সফল হব।ে কারা লোন পাবে এবং কি ধরনরে কোম্পানি এসব ব্যাংকরে সুবধিা পাব।ে এসব বষিয়গুলোর সমাধান করতে হবে আলোচনা করইে।
এদকিে আবুল হোসনে আরও বলনে, এই ব্যাংকরে সদস্য হতে ৪৬টি ব্যাংক আবদেন করলওে এখনও জাপান, আমরেকিা আবদেন করনে।ি চীন সবার জন্য প্রস্তাব করছে।ে কন্তিু সটো কারা গ্রহণ করবে কারা করবে না সটো এখনই বলা যাবে না। চীনরে প্রসেডিন্টে ২০১৩ সালে এর প্রস্তাব দনে। মূলত এডবিি ও ওর্য়াল্ড ব্যাংকরে গণ্ডি থকেে বাইরে বরে হয়ে আসাও এর একটি উদ্দশ্যে।ে ওই সময়ে চীনরে বইেজংিয়ে ২৬টি দশেরে মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়। এর মধ্যে বাংলাদশেও একট।ি ব্রটিনে আবদেন করার পর তাদরে দখেে ইতাল,ি র্জামানি আবদেন কর।ে এরপর তরৈি হতে থাকে ব্যাংকর ভতেরকার সব র্কাযক্রম। এবার বছররে শষে নাগাদ সটেি চালু হব।ে আবুুল হোসনে বলনে, সখোনে বশ্বি নতোরা বলছেনে, আমরা দখেছেি ওর্য়াল্ড ব্যাংক ও এডবিি এই দুটি ব্যাংক অনকে কাজ করছ,ে তবে তাদরে মূল কাজ হচ্ছে দারদ্র্যি নরিসন করা। তারা এটার ওপর বশেি গুরুত্ব দয়ে। আর সইে কারণইে তারা অন্যান্য খাতে ঋণ দতিে পারে না। আমরা সটো চাই যমেন, এর পাশাপাশি অবকাঠামোগত উন্নয়ন জরুর।ি আর সজেন্যই এই ব্যাংক। এই ব্যাংক বভিন্নি দশেকে অবকাঠামোগত উন্নয়নে সহায়তা করব।ে ঋণ দবে।ে যখোনে এডবি,ি ওর্য়াল্ড ব্যাংক উন্নয়নরে জন্য দশে ফোকাস করে সখোনে এআইআইবি শুধু অবকাঠামোগত উন্নয়ন করে এটাকে স্বাগত জানয়িছে।ে ব্যাংকরে মূলধন ধরা হয়ছেে ১০০ বলিয়িন ডলার। এটা আসলে প্রয়োজনরে সঙ্গে তুলনা করলে কম। তবুও অনকে বশিষেজ্ঞরে মত,ে এআইআইবি চীনকে একটি বরিাট সুযোগ করে দবেে এবং চীনকে দায়ত্বিশীল একটি রাষ্ট্রে পরণিত করব।ে এখনকার র্অথনতৈকি যে সর্ম্পক আছে যটো শফে করা হচ্ছলি। বলিস ইস এগ্রমিন্টে করার সুযোগ আছ।ে এটাকে সামলে ওয়র্স্টোন কান্ট্রি যখন থকেে গ্লোবাল ফাইন্যান্সয়িাল ক্রাইসসি আছে তখন থকেে র্মাজনি র্মাকটেগুলো প্রধান উন্নয়ন চালক হয়ে গছে।ে
আবুল হোসনে বলনে, আলোচনায় এটাও এসছে,ে গ্লোবাল ইকোনমি তনিভাবে বভিক্ত। এর এক ভাগ এশয়িানদরে দখল।ে যহেতেু ক্ষমতা বাড়ছে এটাই ফয়োর যে তারা গ্লোবাল ইকোনমি ইন্সটটিউিটে গুরুত্বর্পূণ ভূমকিা রাখছ।ে আগামী দনিে প্রতযিোগতিা ও সময় ববিচেনা করে আরও কছিু প্রতষ্ঠিান তরৈি করা দরকার।
এখানে আবুল হোসনে আরও জানান, যারা শুরুতে ব্যাংকরে প্রতষ্ঠিাতা সদস্য হয়ছেে তারা ব্যাংকরে তত্ত্বাবধান ও পরচিালনার ক্ষত্রেে ভূমকিা রাখব।ে আর যারা পরে সদস্য হবে তাদরে ভোটংি পাওয়ার থাকবে কন্তিু তারা নীতনির্ধিারণী কোনো ভূমকিায় থাকতে পারবে না। এদকিে এটাও বলে রাখা প্রয়োজন এই ব্যাংকটি প্রতষ্ঠিার উদ্যোগ নয়োর পর আইএমএফ, ওর্য়াল্ড ব্যাংকসহ বশ্বিরে অনকে গ্লোবাল প্রতষ্ঠিান এই ব্যাংক প্রতষ্ঠিাকে স্বাগত জানয়িছে।ে এটা একটা আশার আলো বলা যায়। তনিি বলনে, সখোনে যে ৩০টি দশে সদস্য হয়ছেে এর মধ্যে বাংলাদশেরে নাম শুরুত।ে পরে রয়ছেে ব্রটিনে, চীন, ভুটান, কম্বোডয়িা, ভারত, কাজাকস্তিান, লাউস, মালয়শেয়িা, ফলিপিন্সি, জার্কাতা, কাতার, সঙ্গিাপুর, ওমান, পাকস্তিান, শ্রীলংকা, উজবকেস্তিান, থাইল্যান্ড, ভয়িতেনাম ইন্দোনশেয়িা, র্জডান, লুক্সমের্বাগ, মালদ্বীপ, সৌদি আবর, সুইজারল্যান্ড, তাজাকস্তিান ইত্যাদ।ি পরে যে ১৬টি দশে সদস্য হওয়ার জন্য আবদেন করে এর মধ্যে রয়ছেে ফ্রান্স, র্জামান,ি অস্ট্রলেয়িা, র্তুক,ি কোরয়িা, ব্রাজলি, রাশয়িা, নদোরল্যান্ডস, তাইওয়ান, র্জজয়িা, ডনের্মাক, মসির, ফনিল্যান্ড, সুইডনে। এদরে সদস্য করা হবে কি হবে না এটা ঠকি করবে প্রথম ৩০টি সদস্য রাষ্ট্র।
আবুল হোসনে বলনে, ২০১৩ সালরে ২৪ অক্টোবর এ ব্যাংকরে প্রথম প্রস্তাব দয়ো হয়। ২০১৪ সালে ২৪ অক্টোবর বইেজংিয়ে ২১টি দশে এক হয়ে আলোচনা করে ও এমওইউ সাইন কর।ে এরপর ২৭ অক্টোবর ইন্দোনশেয়িার র্অথমন্ত্রী এই এমওইউতে সাইন করনে। ২০১৫ সালরে ১ জানুয়ারি র্পযন্ত ফাউন্ডার মম্বোর হসিবেে ২৬টি দশেরে নাম উঠ।ে পরে আবার ইন্দোনশেয়িা, নউিজলিান্ড, মালদ্বীপ ও সৌদি আরব আস।ে আর এতে ৩০টি দশে হয়। ১২ র্মাচ আরও কয়কেটি দশে নতুন করে জয়নে কর।ে ১৭ র্মাচ ফ্রান্স, ইতাল,ি র্জামানি আস।ে চীন তাদরে স্বাগত জানায়। এরপর থকেে দ্রুত ঘটনা ঘটতে থাক।ে
আবুল হোসনে বলনে, সখোনকার মন্ত্রণালয়রে মুখপাত্র সনে ইয়ং বলছেনে, চীনরে ট্রডে মন্ত্রণালয়ও বাণজ্যি মন্ত্রণালয়রে কমটিরি সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াচ্ছে যাতে করে কয়কেটা ইনফ্রাস্ট্রাকচার, ম্যানফ্যাকচারংি এবং র্সাভসি প্রোজক্টে শুরু করা যায়। তনিি আরও বলছেনে, জয়নে ফ্রি ট্রডে জোন এর চীন অন্যান্য অনকে দশেরে জন্য বড় বড় প্ল্যাটর্ফম তরৈি করব।ে যাতে করে আরও এটাকে আরও র্কাযকর করা যায় ও বাণজ্যিকিভাবওে শল্পি কলকারখানারও উন্নতি করা যায়।
আবুল হোসনে বলনে, ইন্টারন্যাশনাল ইউর্ভাসটিি অ্যান্ড ইকোনমক্সিরে ট্রডে প্রফসের বলছেনে, ওয়ান বল্টে ওয়ান রোড এ ইনভস্টে করার পাশাপাশি অবকাঠামোগত উন্নয়নে বনিয়িোগ করলে চীনরে জন্য নতুন এক্সর্পোট র্মাকটেকে উন্নতি করব,ে পাশাপাশি চীনরে কারন্সেকিে আর্ন্তজাতকিীকরণ করারও একটি মাধ্যম তরৈি হব।ে
সম্প্রতি শষে হয়ে যাওয়া বোয়া ফোরাম ফর এশয়িা র্বাষকি সম্মলেনে চীনরে প্রসেডিন্টে বলছেনে, চীনরে পলসিি ফরনে ইনভস্টেমন্টেরে ব্যবহার, ফরনে ইনভস্টেদরে রাইট সুরক্ষা এবং ফরনে ইনভস্টেদরে আরও ভালোভাবে র্নাসংি দতিে চায় চীন। ২০১৪ সালে যখন ডভেলপমন্টে দশেগুলোর ফরনে ইনভস্টেররা সইে রকম পায়ন,ি তখনও চীন এটা পয়েছেে এবং চীন নতুন নতুন ফরনে ফান্ড নচোরসরে সংখ্যা ২৩৭৭৮এ দাঁড়য়িছে।ে এগুলো করে এখনও ফরনে সন্ট্রোল চীনে ঢুকছ।ে
চীনরে নানা প্রকল্প যমেন- পাইলট ফ্রি ট্রডে জোন, চীনরে নর্ণিয় কয়কেটি ট্রডে জোন চালু করার গুয়াংজুং, তানজনি এবং ফুজয়িান এ এবং আরও অনকে প্রকল্প করা হচ্ছে যাতে করে চীন বাইররে বশ্বিরে কাছে নজিদেরে তুলে ধরতে পার।ে ইউরোপরে দশেগুলো চীনে আরও বশেি বনিয়িোগে আগ্রহী হতে পার।ে
উল্লখ্যে, এশয়িার দশেগুলোর মধ্যে র্অথনতৈকি ক্ষত্রেে যে সব কমন র্স্বাথ রয়ছেে ওই সব র্স্বাথকে চহ্নিতি করে ‘ওয়ান বল্টে ওয়ান রোড’”পরকিল্পনা বাস্তবায়নরে সমাধানরে পথ খােঁজার চষ্টো করছেনে এশয়িার বভিন্নি দশেরে গুরুত্বর্পূণ নতোরা। এই লক্ষ্যে তারা চীনে মলিতি হন। বৃহস্পতবিার থকেে শুরু হয় বোয়া সম্মলেন। ৩১ র্মাচ শষে হয়। এতে যোগ দনে বভিন্নি রাষ্ট্ররে রাষ্ট্রপ্রধান, সরকার প্রধানরা। এছাড়াও সখোনে যোগ দনে বভিন্নি রাষ্ট্ররে মন্ত্রীরা। সইে সঙ্গে ব্যবসায়ী, বশিষেজ্ঞরাও। চীনরে প্রসেডিন্টে, জাপানরে সাবকে প্রধানমন্ত্রী, চীনরে সাবকে ভাইস প্রমিয়িার, মালয়শেয়িা, অস্ট্রলেয়িা, কোরয়িার সাবকে প্রধানমন্ত্রী যোগ দনে এত।ে চীনরে প্রধান বচিারপতি ছাড়া বভিন্নি দশেরে প্রধান বচিারপতরিা যোগ দনে। বাংলাদশে থকেে সরকাররে কউে আমন্ত্রতি না হলওে সাবকে মন্ত্রী সয়ৈদ আবুল হোসনে বাংলাদশে থকেে যোগ দনে ওই সম্মলেন।ে এর আগে তনিি একাধকিবার ওই সম্মলেনে বাংলাদশেরে প্রতনিধিত্বি করছেনে। ২০০৭ সালে নোবলে বজিয়ী ড. মুহম্মদ ইউনূস ওই সম্মলেনে আমন্ত্রতি হয়ে যোগ দনে। তারপর এবার সইে সম্মলেনে বক্তৃতা করার সুযোগ পান আবুল হোসনেরে ময়েে সয়ৈদা ইফফাত হোসনে। তনিি নর্বিাচতি বক্তা ।
বোয়া ফোরাম ফর এশয়িার (বএিফএ) সম্মলেন শুরু হয় বৃহস্পতবিার সকাল।ে চীনে অনুষ্ঠতি ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতথিি চীনরে প্রসেডিন্টে শি জনিপংি।
বোয়া ফরোমরে সক্রেটোরি জনোরলে আাগইে জানান, এশয়িার দশেগুলোর র্অথনীতরি উন্নয়নরে ক্ষত্রেে যে সব কমন র্স্বাথ রয়ছেে সগেুলো বরে করে এর ওপর আলোচনা করা হব।ে এরপর তা বভিন্নি দশেরে প্রয়োজনীয় সহযোগতিার মাধ্যমইে সমাধান করা হব।ে এছাড়াও এর মাধ্যমে আগামী দনিরে জন্য একটি কমন ভবষ্যিৎ পরকিল্পনাও গ্রহণ করা হয়। দক্ষণি চীনে হাইনান প্রদশেে চারদনিে এসব বষিয় আলোচনা ছাড়াও আরও ৭৭টি বষিয়ে বঠৈক হয়। এআইআইবি ব্যাংকরে বষিয়টি নয়িে আলোচনা করা হয়। এর মধ্যে চীনরে প্রসেডিন্টেরে পরকিল্পনা ওয়ান বল্টে ওয়ান রোড নয়িে চীনরে উদ্যোগরে বষিয়ওে আলোচনা করা হয়।
সখোনে যোগ দয়িে আবুল হোসনে জানান, বোয়া ফোরামরে সম্মলেনে ইন্ডাস্ট্রয়িাল ট্রান্সফরমশেন ও পলটিক্যিাল সকিউিরটিরি বষিয়টি নয়িওে আলোচনা হয়। র্অথনতৈকিভাবে আরও উন্নয়নরে জন্য বভিন্নি দশেরে মধ্যে ছোটখাটো যসেব বরিাজমান সমস্যা ও ববিাদ রয়ছেে তা মটিয়িে ফলেে এগোতে হব।ে এটা জরুরি যে আমরা সবাই কমন ইন্টারস্টেরে ওপর মনোযোগী হই। আর সটোর জন্য আমরা সবাই বএিফএ’র প্ল্যাটর্ফমকে ব্যবহার করতে পার।ি সখোনে আলোচনা করে এশয়িার শফেগুলোর র্অথনতৈকি উন্নয়ন ও বাণজ্যিকি ক্ষত্রেে যসেব সমস্যা রয়ছেে সগেুলোর জন্য বাস্তবায়নযোগ্য প্রস্তাবনা তরৈি করতে হব।ে এরপর সব দশেরে সরকারকে ঐক্যবদ্ধভাবে সদ্ধিান্ত নয়ে আর্ন্তজাতকি সহযোগতিা বৃদ্ধি করার জন্য। সম্মলেনে যোগ দয়ো ব্যক্তরিাও তাদরে দশেে গয়িে এই ব্যাপারে কাজ করবনে।
তনিি জানান, শনবিার চীনরে প্রসেডিন্টে শি জনিপংি সম্মলেনে যোগ দয়িে বক্তৃতা করনে। এ নয়িে তনিি তৃতীয়বাররে মতো এতে অংশ ননে। এবাররে ফোরামরে মূল প্রতবিাদ্য বষিয় এশয়িা’স নউি ফউিচার : টুওর্য়াডস অ্যা কমউিনটিি অব কমন ডসেটনি।ি
তনিি বলনে, বোয়া ফোরামরে সম্মলেনে চীন সরকাররে প্রস্তাবতি ওয়ান বল্টে ওয়ান রোডরে পরকিল্পনা বাস্তবায়ন করার জন্য যে আঞ্চলকি সহযোগতিা দরকার সটো গুরত্বর্পূণ হয়ে ওঠ।ে কারণ চীন এই উদ্যোগ পরকিল্পনা ও এর বাস্তবায়ন সংক্রান্ত যে পরকিল্পনা করছেে সটোও এখানে প্রকাশ হয়। এর মধ্যে প্রধান প্রধান অবকাঠামোগত উন্নয়ন, তাদরে উদ্যোগরে ওপর বস্তিারতি ফোকাস করা হয়। এছাড়াও ফোরামরে বঠৈকে এই জন্য দুটি কমটিওি গঠন করা হয়। শুক্রবাররে ফোরামরে বঠৈকে হংকংয়রে চফি এক্সকিউিটভি লি ইয়ং তাদরে যে ভূমকিা রয়ছেে এবং আগামী দনিে তারা যে কাজ করবনে সইে সর্ম্পকে তুলে ধরা হয়। এর ওপর পরে আলোচনাও হয়।
তনিি বলনে, চীনরে প্রসেডিন্টে ২০১৩ সালে বলছেলিনে, ওয়ান বল্টে ওয়ান রোডরে কথা আর সটো করা গলেে সটো রর্ফোস টু সল্কিরোড ইকোনমি বল্টে হব।ে আর এর উদ্দশ্যে হল আঞ্চলকি যে সহযোগতিা রয়ছেে তা আরও বাড়ানো এবং মজবুত করা। যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য অবকাঠামোগত উন্নয়ন, বাণজ্যি ক্ষত্রেে আরও বনিয়িোগ বৃদ্ধ,ি র্অথনতৈকি সহযোগতিা বৃদ্ধি ও সাংস্কৃতকি সর্ম্পকরেও উন্নয়ন করতে হব।ে এই উদ্যোগ সফল করার জন্য এই রুটে যে সব দশেগুলো রয়ছেে তাদরে সবার সহযোগতিা প্রয়োজন রয়ছে।ে বোয়া ফোরামরে সম্মলেনে অংশগ্রহণকারীরা সটোই চাইছ।ে
তনিি জানান, বোয়া ফোরামরে সম্মলেনে এশয়িান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভস্টেমন্টে ব্যাংকে (এআইআইব)ি যারা যোগ দতিে চায় সইে বষিয়টি নয়িওে অগ্রগতমিূলক আলোচনা হয়। তনিি বলনে, বশ্বি র্অথনীতরি জন্য এশয়িা একটি গুরুত্বর্পূণ চালকিাশক্ত।ি আর এই জন্য এশয়িার র্অথনতৈকি উন্নতি আরও প্রয়োজন। আর সটো সমন্বতিভাবইে করতে হব।ে বোয়া ফোরাম এই ক্ষত্রেে ভূমকিা রখেে চলছে।ে সইে কারণে বোয়া ফোরামরে ভূমকিাও ক্রমশ গ্লোবালি গুরুত্বর্পূণ হয়ে উঠছ।ে সম্মলেনে এশয়িার বভিন্নি দশেরে উন্নয়নরে নানা দকি নয়িওে আলোচনা হবে বলে জানা গছে।ে
এদকিে ওই ফোরামরে গত বৃহস্পতবিার সন্ধ্যায় “‘হোয়াটস আপ উইথ দ্য নক্সেট জনোরশেন’” এ সশেনে বক্তৃতা করনে বাংলাদশে থকেে ফোরামরে নর্বিাচতি বক্তা সয়ৈদা ইফফাত হোসনে। তনিি ওই অনুষ্ঠানে বাংলাদশেরে তরুণ প্রজন্মরে ব্যবসায়ী প্রতনিধিি হসিবেে যোগ দনে। ওই সশেনে মডারটের ছলিনে পকিংি ইউনভর্িাসটিরি গাং গুয়া স্কুল অব ম্যানজেমন্টেরে ডনি ছাই হং বনি। আলোচক ছলিনে ছয় জন। তারা বভিন্নি দশেরে খ্যাতনামা প্রতষ্ঠিান থকেে আসনে। আবুল হোসনে ও তনিি এই সম্মলেনে যোগ দয়ো ছাড়াও চীনরে প্রসেডিন্টেরে সঙ্গে দখো করনে। বোয়া ফোরামে আবুল হোসনে একটি সশেনরে মডারটের ছলিনে।
বজ্ঞিপ্তি : সয়ৈদ আবুল হোসনে সর্ম্পকে বস্তিারতি জানা যাবে তার বই ‘আমি ও জবাবদহিতিা’” বইয়ে ও এই ব্যাপারে বস্তিারতি জানা যাবে বশ্বিব্যাংক ও আইএমএফ-এর বকিল্প হসিাবে চীন এশীয় অবকাঠামো বনিয়িোগে এশয়িা ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভস্টেমন্টে ব্যাংক (এআইআইব)ি প্রতষ্ঠিার উদ্যোগ নয়িছে।ে এই বছররে শষে দকিে ব্যাংকটি চালু হবে ও এর র্কাযক্রম শুরু হব।ে এতে ৪৬টি দশে একমত হয়ছে।ে ৩০টি দশে ইতোমধ্যে প্রতষ্ঠিাতা সদস্য হয়ছে।ে আরো ১৬টি দশে সদস্য হওয়ার জন্য আবদেন করছে।ে তাদরে ব্যাপারে ১৫ এপ্রলি সদ্ধিান্ত হব।ে ব্যাংকরে ব্যাপারে আনুষঙ্গকি আলোচনা করার জন্য এই বছররে ১৫ মে একটি বঠৈক হব।ে সখোনে এর নীতমিালাও চূড়ান্ত করা হব।ে ব্যাংকরে তত্ত্ব্াবধানে থাকবে চীন। আর বাকি ২৯টি দশে প্রতষ্ঠিাতা রাষ্ট্র। বাংলাদশে রয়ছেে তালকিার এক নম্বর সদস্য হসিাব।ে এই ব্যাংকরে সঙ্গে বাংলাদশেকে সম্পৃক্ত রাখার ক্ষত্রেে সবচয়েে বড় অবদান রাখছনে সাবকে যোগাযোগ মন্ত্রী সয়ৈদ আবুল হোসনে। তনিি সম্প্রতি বোয়া ফোরামে যোগ দয়িে দশেে ফরিছেনে ৩১ র্মাচ। তনিি বলনে, এই ব্যাংকরে মূলধন শুরুতে ১০০ বলিয়িন ডলার। এ বশেরিভাগ দবিে চীন। বাকটিা অন্যান্যরা দবি।ে ২৬-৩০ র্মাচ এই চার দনিব্যাপী চীনে অনুষ্ঠতি হয়ে গলেো বোয়া ফোরাম ফর এশয়িার র্বাষকি সম্মলেন। সখোনে চীনরে প্রসেডিন্টে শি জংিপংি প্রধান অতথিি থকেে শনবিার প্লনোরী সশেনে ভাষণ দনে। সখোনে তনিি চীন কভিাবে এই অঞ্চলরে র্অথনতৈকিভাবে আরো উন্নতি করব,ে সহযোগতিা বাড়াব,ে ব্যবসায়ীদরে সহযোগতিা করবে সটো জানয়িছেনে। ওই বোয়া ফোরামে এআইআইবি ব্যাংক নয়িওে আলোচনা হয়ছে।ে সখোনে বস্তিারতি উঠে এসছে।ে এই ব্যাংক প্রতষ্ঠিার সদস্য রাষ্ট্ররে তালকিার প্রথম নামটি বাংলাদশেরে। আর এর কৃতত্বি বাংলাদশেরে সাবকে যোগাযোগ মন্ত্রী সয়ৈদ আবুল হোসনেরে। তনিি ওই সম্মলেনে ২০০১ সাল থকেে প্রতি বছর বাংলাদশেরে প্রতনিধিত্বি করছনে। এবারও করছেনে। এবার তনিি ছাড়া তার ময়েে সয়ৈদ ইফফাত হোসনে সখোনে নর্বিাচতি বক্তা হসিাবে বক্তৃতাও করছেনে। বাংলাদশে থকেে এই ব্যাপারে র্অথমন্ত্রী, বাণজ্যি মন্ত্রী এরা যোগ দলিে বষিয়টি আরো গুরুত্ব পাবে বলে মনে করনে সয়ৈদ আবুল হোসনে। তনিি বলনে, আমি এখন সরকাররে কউে নই। ব্যবসায়ী হসিাবে এবং সাবকে মন্ত্রী হসিাবে সখোনে যাই। সখোনে আমাদরে র্অথমন্ত্রী, র্অথ উপদষ্টো, বাণজ্যি মন্ত্রী থাকলে আরো ভাল হয় তারা সরকাররে তরফ থকেে কথা বলতে পারনে। এই ব্যাংকরে আমরা প্রতষ্ঠিাতা সদস্য হয়ছে।ি আমরা আমাদরে প্রয়োজনীয় ঋণ এখান থকেওে ব্যাংকটি চালু হলে নতিে পারবো। কারণ তারা কবেল অবকাঠামোগত উন্নয়নে ঋণ দবি।ে সটোই এখন আমাদরে দরকার। তনিি বলনে, এই বষিয়ে সরকার নজর দবিনে বলে আশা কর।ি আবুল হোসনে জানান, বশ্বিরে ২য় বৃহত্তম র্অথনীতি চীন এশীয় অবকাঠামো বনিয়িোগ ব্যাংক (এআইআইব)ি নামে একটি আর্ন্তজাতকি ব্যাংক গঠনরে যে উদ্যোগ নয়িছে,ে তাতে যোগ দতিে ৪৬টরি বশেি দশে আবদেন করছে।ে সইে সঙ্গে বশ্বিব্যাংক, আর্ন্তজাতকি মুদ্রা তহবলি (আইএমএফ) ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকরে (এডবি)ি সর্মথন আছ।ে

ব্যাংকটরি প্রতষ্ঠিাতা সদস্য দশে হসিবেে যোগ দয়োর র্সবশষে দনি ছলি গত ৩১ র্মাচ। শষে দনিে নরওয়,ে তাইওয়ান ও তার আগরে দনি সুইডনে আবদেন কর।ে আর গত সপ্তাহে আবদেন করছেলি রাশয়িা, ডনের্মাক, নদোরল্যান্ডস ও অস্ট্রলেয়িা। বাংলাদশেকে সদস্য করার জন্য র্সাবকিভাবে সহায়তা করা ও সদস্য করার জন্য কাজ করনে সয়ৈদ আবুল হোসনে। তনিি বাংলাদশেরে সরকাররে থকেে ও সরকাররে গুরত্বর্পূণ কউে না থাকলওে তনিি কাজ এগয়িে নচ্ছিনে। আশা করছনে এটা হলে বাংলাদশেরে উন্নতি হব।ে বড় বড় প্রকল্পে ঋণ নতিে পারবনে। এতে অবকাঠামোগত উন্নয়ন হব।ে
ওয়াশংিটনভত্তিকি পরার্মশক প্রতষ্ঠিান ইউরশেয়িা গ্রুপরে জ্যষ্ঠে গবষেক এরকিা ডাউনসরে বরাত দয়িে আবুল হোসনে বলনে, ‘এখন র্পযন্ত চীন যা করছে,ে তাতে এআইআইবি সত্যকিার র্অথে একটি বহুজাতকি র্আথকি সংস্থা হয়ে উঠতে পার।ে তারা খুব সচতেনভাবে বশ্বিব্যাংক ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকরে (এডবি)ি সাবকে র্কমর্কতাদরে ব্যাংকটতিে নয়িে আসতে জোর চষ্টো চালাচ্ছ।ে আর যভোবে সবকছিু এগোচ্ছ,ে তাতে উদ্যোগটি সফল হবে বলইে মনে হচ্ছ।ে বশ্লিষেকরো মনে করছনে, আর্ন্তজাতকি র্অথনীততিে চীনরে আধপিত্য বাড়াতে এ ব্যাংকটি গুরুত্বর্পূণ ভূমকিা পালন করব।ে সে জন্য র্মাকনি যুক্তরাষ্ট্র, বশ্বিব্যাংককে এআইআইবরি সঙ্গে যৌথভাবে বভিন্নি প্রকল্পে র্অথায়নরে পরার্মশও দনে কয়কেজন বশিষেজ্ঞ। আবুল হোসনে বলনে, বভিন্নি দশে এআইআইবতিে জয়নে করতে চায়। ডডেলাইন যতই কাছে আসছলি এরমধ্যে অনকে দশে যোগ দতিে থাক।ে রাশয়িা, ব্রাজলি, নদোরল্যান্ডস, ডনের্মাক শনবিার যোগ দয়োর জন্য আবদেন করনে। শুক্রবার র্জজয়িা, তাইওয়ান, দক্ষণি কোরয়িাও এতে যোগ দয়োর আগ্রহ প্রকাশ করে এবং আবদেন কর।ে যতগুলো দশে মজের ইকোনমি আছে ইউএসএ, জাপান, কানাডা, এখন র্পযন্ত জয়নে করার ইচ্ছে প্রকাশ করনেি বা সদ্ধিান্ত জানায়নি তবে শষে মুর্হূতে তারা হয়তো আগ্রহ প্রকাশ করতে পার।ে সটো হলে তারা সাধারণ সদস্য হতে পার।ে
সয়ৈদ আবুল হোসনে বলনে, যসেব দশে আবদেন করছেে প্রতষ্ঠিাতা ৩০ সদস্যর বাইররে তাদরে বষিয়টি আগামী ১৫ এপ্রলি জানয়িে দয়ো হব।ে ৩০টি দশে আগে যোগ দলিওে এরপর ৩১ র্মাচ র্পযন্ত সুযোগ রাখা হয়। অন্যান্য দশেও সদস্য হওয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ কর।ে সইে হসিবেে আরও ১৬টি দশে আবদেন কর।ে আবুল হোসনে জানান, চীনরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়রে মুখপাত্র হুয়া ঝু ইয়ং বলছেনে, সব আগ্রহী দশেকে চীনরে ব্যাংকে যোগ দয়োর জন্য স্বাগত জানানো হচ্ছ।ে এটা হলে এশয়িাসহ বশ্বিরে নানা দশে এতে করে র্আথকিভাবে উপকৃত হব।ে এ ব্যাংকরে যারা সদস্য হবনে চীন তাদরে সঙ্গে কাজ করব।ে সদস্যদরে নয়িে একসঙ্গে কাজ করে ব্যাংকটকিে একটি প্রফশেনাল ও ইন্ডাস্ট্রয়িাল প্ল্যাটর্ফমে উন্নীত করব।ে
চীন বাণজ্যি বাড়ানো, বনিয়িোগ বাড়ানো ও দ্বপিাক্ষকি সর্ম্পক বাড়ানো যায় কভিাবে সইে চষ্টো করছ।ে যাতে করে তাদরে অভ্যন্তরীণ ব্যবসা বাড়ে সইে সঙ্গে বদিশেী কোম্পানরি এক্সসসে তরৈি করা যায় এটাও সখোনকার মন্ত্রণালয় বলছে।ে আমরা সটোকে কাজে লাগাতে পার।ি
সল্কিরোড ইকোনমকি বল্টে এবং ২১ শতকরে মরেটিাইম সল্কিরোড- এই দুটি উদ্যোগ ননে চীনরে প্রসেডিন্টে শি জনিপংি। তনিি এই দুটি প্রস্তাব করনে ২০১৩ সাল।ে মন্ত্রণালয়রে মুখপাত্র আমাদরেকে জানয়িছেনে সনে ডংে ইয়ং বলছেনে, চীন নর্ভির করবে ক্রসর্বডার ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারশেন জোন ও সন্টোররে ওপর। যমেন হরগস পন্ট।ে এটা হলে ভালো প্ল্যাটর্ফম তরৈরি জন্য যাতে বনিয়িোগরে ক্যাটাগরি আরও বাড়ানো, বনিয়িোগ বৃদ্ধ,ি র্কমসংস্থান বৃদ্ধি ও মুদ্রা বনিমিয়ে বষিয়টওি তরৈি করা যায়। আবুল হোসনে বলনে, চীন যভোবে এগোচ্ছে এই ভাবে এগোনো গলেে এতে একটা ইতবিাচক প্রভাব পড়ব।ে
তনিি বলনে, কছিু কছিু অনুষ্ঠান যমেন- আঞ্চলকি সুযোগ, সুসর্ম্পক, কারগিরি অভজ্ঞিতা বনিমিয়, র্অথনতৈকি প্রতষ্ঠিান স্থাপনরে মধ্য দয়িে চীন র্অথনতৈকি এবং প্রকল্পভত্তিকি সহযোগতিা দয়োর আগ্রহ প্রকাশ করছেে সহযোগী আশপাশরে র্অথনতৈকি দশেক।ে
চীন বশ্বিরে দ্বতিীয় বৃহত্তম র্অথনতৈকি দশে হসিবেে ইনফ্রাস্ট্রাকচারাল ইনভস্টেমন্টে ব্যাংকরে জন্য ৫০ বলিয়িন ডলার র্অথ দবে।ে এতে ৪২টি দশে ছলি এখন ৪৬টি হয়ছে।ে সখোনকার এক্সকিউিটভি ভাইস প্রসেডিন্টে রনে হয়ং নি বলছেনে, বইেজংি বইেজ চায়নজি একাডমেি অব ইন্টারন্যাশনাল ট্রডে একাডমেি নশেনও মনে করে এবং আমওি মনে করি য,ে চীনরে অনকে ভালো ও ইতবিাচক সম্ভাবনা রয়ছেে কারগিরি ও ক্যাপটিাল খাত।ে তাদরে কাছে টকেনক্যিাল ও প্রফশেনালও যে কোনো বড় কাজ করার জন্য এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন করার জন্য ক্ষমতা ও শক্তি রয়ছে।ে আবুল হোসনে জু চু নামরে ইউনভর্িাসটিি অব বজিনসে অ্যান্ড ইকোনমক্সিরে গ্রডে প্রফসেররে বরাত দয়িে বলছেনে, যহেতেু ইনভস্টেগুলো আপাতত ফোকাস হবে রোড, রলেওয়,ে বমিানবন্দর ও বন্দরগুলোর ওপর। কারণ এটা র্সবসাধারণকে সুবধিা দবে।ে আর এটা হলে ট্রডেরে কস্টও অনকে কমে যাব।ে কস্ট কমলে লাভ বাড়ব।ে
আবুল হোসনে বলনে, ৪৬টি দশেে এখন এআইআইব’ির সদস্য রাষ্ট্র হচ্ছ।ে তারা সদস্য হওয়ার জন্য আবদেনও কর।ে এখন সখোনে আলোচনা হয় কমেন করে এই ব্যাংকরে নতুন নতুন নয়িমগুলো তরৈি করা হব।ে এটা ড্রাফট করতে হব।ে এআইআইবি মাল্টি লবোরলে সক্রেটোরয়িটেরে সক্রেটোরি জনোলে জনি লকিুনরে বরাত দয়িে বলনে, তনি ব্যাংকরে প্রপিারটেরি র্কমকাণ্ড সর্ম্পকে সবাইকে অবহতি করছেনে। ২৯টি দশেরে প্রতনিধিি যারা সদস্য হব।ে কাজাকস্তিানরে মল্টমিন্ট সম্মলনেওে এ নয়িে আলোচনা হয়ছে। ব্যাংকরে নয়িম ও বধিবিধিানগুলো চূড়ান্ত করতে হব,ে এরপর সটোতে স্বাক্ষর করতে হব।ে তনিি বলনে ,আশা করা যাচ্ছে এই বছরইে সটো করা সম্ভব হব।এছাড়াও মে মাসে এটা নয়িে ফাইনাল সশেন হব।ে আর এটার পর সব চূড়ান্ত করে এই বছররে শষে নাগাদ ব্যাংকটি চালু করা যাব।
তনিি বলনে, আমরা ওখানে যে আলোচনা করছেি তাতে এ সদ্ধিান্তে পৗেঁছতে প্রায় দুই সপ্তাহরে বশেি সময় লাগব।ে আর কারা কারা চূড়ান্ত সদস্য হবে এটা ১৫ এপ্রলিরে মধ্যে সদ্ধিান্ত নয়ো হব।ে শুরুতে যারা সদস্য হয়ছেে তারা হল প্রতষ্ঠিাতা সদস্য। আর যারা পরে সদস্য হবে তারা হবে সাধারণ সদস্য। চীনরে র্অথ মন্ত্রণালয়রে ওয়বেসাইটে লখেছেলি বদিশে থকেে আসা সদস্যদরে নয়িে গর্ভনসে, প্রকউিরন্ট,ে পরবিশেগত কাঠামো ও সামাজকি নটেওর্য়াক এসব বষিয় নয়িে আলোচনা করা হয়।
এ ব্যাংকটি একটি মাল্টি লোটারলে ইনভস্টে হব। এর কাজ হবে ইনফ্রাস্ট্রাকচারাল ও উন্নয়ন। এসব উন্নয়ন করার জন্য যে সব সম্ভাব্য জায়গা রয়ছেে তাদরে লোন দয়ো। তনিি বলনে, এ ব্যাংকটি চীনরে নতেৃত্বে হলওে এই ব্যাংকরে সদস্য হওয়ার জন্য ইউরোপীয় দশেগুলো আগ্রহ প্রকাশ করছ।ে এর মধ্যে রয়ছে-ে ইতাল, র্জামান, ইংল্যান্ড ও ফ্রান্স। এই ব্যাংকরে অথরাইজড ক্যাপটিাল রয়ছেে ১০০ বলিয়িন ডলার। শুরুতে ইনশিয়িাল সাবক্রাইব ক্যাপটিাল হবে ৫০ বলিয়িনি ডলার।
এদকিে এ ব্যাংকরে যাদরে সদস্য হওয়ার সম্ভাবনা রয়ছেে ওই সব দশে এটা নয়িে আলোচনা করছে,ে কভিাবে শয়োর ভাগাভাগি হব। আর এটা নর্ণিয় করা দরকার। সখোনে বলা হয়ছে,ে কোন দশেরে শয়োর কি হবে সটো নর্ভির করবে ওই দশেরে জডিপিরি ওপর ভত্তিি কর। ৪৬টরি বশেি দশে এই ব্যাংকরে সদস্য হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করছে। তবে বশ্লিষেকরা মনে করছনে, এটা হলওে শগিগরিই গুরুত্বর্পূণ কছিু বষিয়রে সমাধান করতে হব।
র্বড ওয়াই চ্যাট র্হাম হাউসরে অ্যাসোসয়িটে ফলেোর বরাতে আবুল বলনে, কভিাবে মূলধন ভাগাভাগি হব,তত্ত্বাবধানে কি কি নয়িম করা হবে তা সদ্ধিান্ত নতিে হব।
এদকিে এটাও প্রশ্ন উঠছেে ব্যাংক লোন দতিে কতটা সফল হব। কারা লোন পাবে এবং কি ধরনরে কোম্পানি এসব ব্যাংকরে সুবধিা পাব।ে এসব বষিয়গুলোর সমাধান করতে হবে আলোচনা করইে।
এদকিে আবুল হোসনে আরও বলনে, এই ব্যাংকরে সদস্য হতে ৪৬টি ব্যাংক আবদেন করলওে এখনও জাপান, আমরেকিা আবদেন করনে।ি চীন সবার জন্য প্রস্তাব করছে।ে কন্তিু সটো কারা গ্রহণ করবে কারা করবে না সটো এখনই বলা যাবে না। চীনরে প্রসেডিন্টে ২০১৩ সালে এর প্রস্তাব দনে। মূলত এডবিি ও ওর্য়াল্ড ব্যাংকরে গণ্ডি থকেে বাইরে বরে হয়ে আসাও এর একটি উদ্দশ্যে। ওই সময়ে চীনরে বইেজংয়ে ২৬টি দশেরে মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়। এর মধ্যে বাংলাদশেও একট।ি ব্রটিনে আবদেন করার পর তাদরে দখেে ইতাল, র্জামানি আবদেন কর। এরপর তরৈি হতে থাকে ব্যাংকর ভতেরকার সব র্কাযক্রম। এবার বছররে শষে নাগাদ সটেি চালু হব। আবুুল হোসনে বলনে, সখোনে বশ্বি নতোরা বলছেনে, আমরা দখেছেি ওর্য়াল্ড ব্যাংক ও এডবিি এই দুটি ব্যাংক অনকে কাজ করছ, তবে তাদরে মূল কাজ হচ্ছে দারদ্র্যি নরিসন করা। তারা এটার ওপর বশেি গুরুত্ব দয়ে। আর সইে কারণইে তারা অন্যান্য খাতে ঋণ দতিে পারে না। আমরা সটো চাই যমেন, এর পাশাপাশি অবকাঠামোগত উন্নয়ন জরুর। আর সজেন্যই এই ব্যাংক। এই ব্যাংক বভিন্নি দশেকে অবকাঠামোগত উন্নয়নে সহায়তা করব। ঋণ দবে।যখোনে এডবি, ওর্য়াল্ড ব্যাংক উন্নয়নরে জন্য দশে ফোকাস করে সখোনে এআইআইবি শুধু অবকাঠামোগত উন্নয়ন করে এটাকে স্বাগত জানয়িছে। ব্যাংকরে মূলধন ধরা হয়ছেে ১০০ বলিয়িন ডলার। এটা আসলে প্রয়োজনরে সঙ্গে তুলনা করলে কম। তবুও অনকে বশিষেজ্ঞরে মত, এআইআইবি চীনকে একটি বরিাট সুযোগ করে দবেে এবং চীনকে দায়ত্বিশীল একটি রাষ্ট্রে পরণিত করব। এখনকার র্অথনতৈকি যে সর্ম্পক আছে যটো শফে করা হচ্ছলি। বলিস ইস এগ্রমিন্টে করার সুযোগ আছ।ে এটাকে সামলে ওয়র্স্টোন কান্ট্রি যখন থকেে গ্লোবাল ফাইন্যান্সয়িাল ক্রাইসসি আছে তখন থকেে র্মাজনি র্মাকটেগুলো প্রধান উন্নয়ন চালক হয়ে গছে।
আবুল হোসনে বলনে, আলোচনায় এটাও এসছে, গ্লোবাল ইকোনমি তনিভাবে বভিক্ত। এর এক ভাগ এশয়িানদরে দখল।যহেতেু ক্ষমতা বাড়ছে এটাই ফয়োর যে তারা গ্লোবাল ইকোনমি ইন্সটটিউিটে গুরুত্বর্পূণ ভূমকিা রাখছ।ে আগামী দনিে প্রতযিোগতিা ও সময় ববিচেনা করে আরও কছিু প্রতষ্ঠিান তরৈি করা দরকার।
এখানে আবুল হোসনে আরও জানান, যারা শুরুতে ব্যাংকরে প্রতষ্ঠিাতা সদস্য হয়ছেে তারা ব্যাংকরে তত্ত্বাবধান ও পরচিালনার ক্ষত্রেে ভূমকিা রাখব।ে আর যারা পরে সদস্য হবে তাদরে ভোটংপাওয়ার থাকবে কন্তিু তারা নীতনির্ধিারণী কোনো ভূমকিায় থাকতে পারবে না। এদকিে এটাও বলে রাখা প্রয়োজন এই ব্যাংকটি প্রতষ্ঠিার উদ্যোগ নয়োর পর আইএমএফ, ওর্য়াল্ড ব্যাংকসহ বশ্বিরে অনকে গ্লোবাল প্রতষ্ঠিান এই ব্যাংক প্রতষ্ঠিাকে স্বাগত জানয়িছে।ে এটা একটা আশার আলো বলা যায়। তনিি বলনে, সখোনে যে ৩০টি দশে সদস্য হয়ছেে এর মধ্যে বাংলাদশেরে নাম শুরুত। পরে রয়ছেে ব্রটিনে, চীন, ভুটান, কম্বোডয়িা, ভারত, কাজাকস্তিান, লাউস, মালয়শেয়িা, ফলিপিন্সি, জার্কাতা, কাতার, সঙ্গিাপুর, ওমান, পাকস্তিান, শ্রীলংকা, উজবকেস্তিান, থাইল্যান্ড, ভয়িতেনাম ইন্দোনশেয়িা, র্জডান, লুক্সমের্বাগ, মালদ্বীপ, সৌদি আবর, সুইজারল্যান্ড, তাজাকস্তিান ইত্যাদ। পরে যে ১৬টি দশে সদস্য হওয়ার জন্য আবদেন করে এর মধ্যে রয়ছেে ফ্রান্স, র্জামান, অস্ট্রলেয়িা, র্তুক, কোরয়িা, ব্রাজলি, রাশয়িা, নদোরল্যান্ডস, তাইওয়ান, র্জজয়িা, ডনের্মাক, মসির, ফনিল্যান্ড, সুইডনে। এদরে সদস্য করা হবে কি হবে না এটা ঠকি করবে প্রথম ৩০টি সদস্য রাষ্ট্র।
আবুল হোসনে বলনে, ২০১৩ সালরে ২৪ অক্টোবর এ ব্যাংকরে প্রথম প্রস্তাব দয়ো হয়। ২০১৪ সালে ২৪ অক্টোবর বইেজংয়ে ২১টি দশে এক হয়ে আলোচনা করে ও এমওইউ সাইন কর। এরপর ২৭ অক্টোবর ইন্দোনশেয়িার র্অথমন্ত্রী এই এমওইউতে সাইন করনে। ২০১৫ সালরে ১ জানুয়ারি র্পযন্ত ফাউন্ডার মম্বোর হসিবেে ২৬টি দশেরে নাম উঠ। পরে আবার ইন্দোনশেয়িা, নউিজলিান্ড, মালদ্বীপ ও সৌদি আরব আস। আর এতে ৩০টি দশে হয়। ১২ র্মাচ আরও কয়কেটি দশে নতুন করে জয়নে কর। ১৭ র্মাচ ফ্রান্স, ইতাল, র্জামানি আস। চীন তাদরে স্বাগত জানায়। এরপর থকেে দ্রুত ঘটনা ঘটতে থাক।
আবুল হোসনে বলনে, সখোনকার মন্ত্রণালয়রে মুখপাত্র সনে ইয়ং বলছেনে, চীনরে ট্রডে মন্ত্রণালয়ও বাণজ্যি মন্ত্রণালয়রে কমটিরি সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াচ্ছে যাতে করে কয়কেটা ইনফ্রাস্ট্রাকচার, ম্যানফ্যাকচারং এবং র্সাভসি প্রোজক্টে শুরু করা যায়। তনিি আরও বলছেনে, জয়নে ফ্রি ট্রডে জোন এর চীন অন্যান্য অনকে দশেরে জন্য বড় বড় প্ল্যাটর্ফম তরৈি করব। যাতে করে আরও এটাকে আরও র্কাযকর করা যায় ও বাণজ্যিকিভাবওে শল্পি কলকারখানারও উন্নতি করা যায়।
আবুল হোসনে বলনে, ইন্টারন্যাশনাল ইউর্ভাসটিি অ্যান্ড ইকোনমক্সিরে ট্রডে প্রফসের বলছেনে, ওয়ান বল্টে ওয়ান রোড এ ইনভস্টে করার পাশাপাশি অবকাঠামোগত উন্নয়নে বনিয়িোগ করলে চীনরে জন্য নতুন এক্সর্পোট র্মাকটেকে উন্নতি করব,ে পাশাপাশি চীনরে কারন্সেকিে আর্ন্তজাতকিীকরণ করারও একটি মাধ্যম তরৈি হব।ে
সম্প্রতি শষে হয়ে যাওয়া বোয়া ফোরাম ফর এশয়িা র্বাষকি সম্মলেনে চীনরে প্রসেডিন্টে বলছেনে, চীনরে পলসিি ফরনে ইনভস্টেমন্টেরে ব্যবহার, ফরনে ইনভস্টেদরে রাইট সুরক্ষা এবং ফরনে ইনভস্টেদরে আরও ভালোভাবে র্নাসংি দতিে চায় চীন। ২০১৪ সালে যখন ডভেলপমন্টে দশেগুলোর ফরনে ইনভস্টেররা সইে রকম পায়ন,ি তখনও চীন এটা পয়েছেে এবং চীন নতুন নতুন ফরনে ফান্ড নচোরসরে সংখ্যা ২৩৭৭৮এ দাঁড়য়িছে।ে এগুলো করে এখনও ফরনে সন্ট্রোল চীনে ঢুকছ।ে
চীনরে নানা প্রকল্প যমেন- পাইলট ফ্রি ট্রডে জোন, চীনরে নর্ণিয় কয়কেটি ট্রডে জোন চালু করার গুয়াংজুং, তানজনি এবং ফুজয়িান এ এবং আরও অনকে প্রকল্প করা হচ্ছে যাতে করে চীন বাইররে বশ্বিরে কাছে নজিদেরে তুলে ধরতে পার।ে ইউরোপরে দশেগুলো চীনে আরও বশেি বনিয়িোগে আগ্রহী হতে পার।ে
উল্লখ্যে, এশয়িার দশেগুলোর মধ্যে র্অথনতৈকি ক্ষত্রেে যে সব কমন র্স্বাথ রয়ছেে ওই সব র্স্বাথকে চহ্নিতি করে ‘ওয়ান বল্টে ওয়ান রোড’”পরকিল্পনা বাস্তবায়নরে সমাধানরে পথ খােঁজার চষ্টো করছেনে এশয়িার বভিন্নি দশেরে গুরুত্বর্পূণ নতোরা। এই লক্ষ্যে তারা চীনে মলিতি হন। বৃহস্পতবিার থকেে শুরু হয় বোয়া সম্মলেন। ৩১ র্মাচ শষে হয়। এতে যোগ দনে বভিন্নি রাষ্ট্ররে রাষ্ট্রপ্রধান, সরকার প্রধানরা। এছাড়াও সখোনে যোগ দনে বভিন্নি রাষ্ট্ররে মন্ত্রীরা। সইে সঙ্গে ব্যবসায়ী, বশিষেজ্ঞরাও। চীনরে প্রসেডিন্টে, জাপানরে সাবকে প্রধানমন্ত্রী, চীনরে সাবকে ভাইস প্রমিয়িার, মালয়শেয়িা, অস্ট্রলেয়িা, কোরয়িার সাবকে প্রধানমন্ত্রী যোগ দনে এত।ে চীনরে প্রধান বচিারপতি ছাড়া বভিন্নি দশেরে প্রধান বচিারপতরিা যোগ দনে। বাংলাদশে থকেে সরকাররে কউে আমন্ত্রতি না হলওে সাবকে মন্ত্রী সয়ৈদ আবুল হোসনে বাংলাদশে থকেে যোগ দনে ওই সম্মলেন।ে এর আগে তনিি একাধকিবার ওই সম্মলেনে বাংলাদশেরে প্রতনিধিত্বি করছেনে। ২০০৭ সালে নোবলে বজিয়ী ড. মুহম্মদ ইউনূস ওই সম্মলেনে আমন্ত্রতি হয়ে যোগ দনে। তারপর এবার সইে সম্মলেনে বক্তৃতা করার সুযোগ পান আবুল হোসনেরে ময়েে সয়ৈদা ইফফাত হোসনে। তনিি নর্বিাচতি বক্তা ।
বোয়া ফোরাম ফর এশয়িার (বএিফএ) সম্মলেন শুরু হয় বৃহস্পতবিার সকাল।ে চীনে অনুষ্ঠতি ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতথিি চীনরে প্রসেডিন্টে শি জনিপংি।
বোয়া ফরোমরে সক্রেটোরি জনোরলে আাগইে জানান, এশয়িার দশেগুলোর র্অথনীতরি উন্নয়নরে ক্ষত্রেে যে সব কমন র্স্বাথ রয়ছেে সগেুলো বরে করে এর ওপর আলোচনা করা হব।ে এরপর তা বভিন্নি দশেরে প্রয়োজনীয় সহযোগতিার মাধ্যমইে সমাধান করা হব।ে এছাড়াও এর মাধ্যমে আগামী দনিরে জন্য একটি কমন ভবষ্যিৎ পরকিল্পনাও গ্রহণ করা হয়। দক্ষণি চীনে হাইনান প্রদশেে চারদনিে এসব বষিয় আলোচনা ছাড়াও আরও ৭৭টি বষিয়ে বঠৈক হয়। এআইআইবি ব্যাংকরে বষিয়টি নয়িে আলোচনা করা হয়। এর মধ্যে চীনরে প্রসেডিন্টেরে পরকিল্পনা ওয়ান বল্টে ওয়ান রোড নয়িে চীনরে উদ্যোগরে বষিয়ওে আলোচনা করা হয়।
সখোনে যোগ দয়িে আবুল হোসনে জানান, বোয়া ফোরামরে সম্মলেনে ইন্ডাস্ট্রয়িাল ট্রান্সফরমশেন ও পলটিক্যিাল সকিউিরটিরি বষিয়টি নয়িওে আলোচনা হয়। র্অথনতৈকিভাবে আরও উন্নয়নরে জন্য বভিন্নি দশেরে মধ্যে ছোটখাটো যসেব বরিাজমান সমস্যা ও ববিাদ রয়ছেে তা মটিয়িে ফলেে এগোতে হব।ে এটা জরুরি যে আমরা সবাই কমন ইন্টারস্টেরে ওপর মনোযোগী হই। আর সটোর জন্য আমরা সবাই বএিফএ’র প্ল্যাটর্ফমকে ব্যবহার করতে পার।ি সখোনে আলোচনা করে এশয়িার শফেগুলোর র্অথনতৈকি উন্নয়ন ও বাণজ্যিকি ক্ষত্রেে যসেব সমস্যা রয়ছেে সগেুলোর জন্য বাস্তবায়নযোগ্য প্রস্তাবনা তরৈি করতে হব।ে এরপর সব দশেরে সরকারকে ঐক্যবদ্ধভাবে সদ্ধিান্ত নয়ে আর্ন্তজাতকি সহযোগতিা বৃদ্ধি করার জন্য। সম্মলেনে যোগ দয়ো ব্যক্তরিাও তাদরে দশেে গয়িে এই ব্যাপারে কাজ করবনে।
তনিি জানান, শনবিার চীনরে প্রসেডিন্টে শি জনিপংি সম্মলেনে যোগ দয়িে বক্তৃতা করনে। এ নয়িে তনিি তৃতীয়বাররে মতো এতে অংশ ননে। এবাররে ফোরামরে মূল প্রতবিাদ্য বষিয় এশয়িা’স নউি ফউিচার : টুওর্য়াডস অ্যা কমউিনটিি অব কমন ডসেটনি।ি
তনিি বলনে, বোয়া ফোরামরে সম্মলেনে চীন সরকাররে প্রস্তাবতি ওয়ান বল্টে ওয়ান রোডরে পরকিল্পনা বাস্তবায়ন করার জন্য যে আঞ্চলকি সহযোগতিা দরকার সটো গুরত্বর্পূণ হয়ে ওঠ।ে কারণ চীন এই উদ্যোগ পরকিল্পনা ও এর বাস্তবায়ন সংক্রান্ত যে পরকিল্পনা করছেে সটোও এখানে প্রকাশ হয়। এর মধ্যে প্রধান প্রধান অবকাঠামোগত উন্নয়ন, তাদরে উদ্যোগরে ওপর বস্তিারতি ফোকাস করা হয়। এছাড়াও ফোরামরে বঠৈকে এই জন্য দুটি কমটিওি গঠন করা হয়। শুক্রবাররে ফোরামরে বঠৈকে হংকংয়রে চফি এক্সকিউিটভি লি ইয়ং তাদরে যে ভূমকিা রয়ছেে এবং আগামী দনিে তারা যে কাজ করবনে সইে সর্ম্পকে তুলে ধরা হয়। এর ওপর পরে আলোচনাও হয়।
তনিি বলনে, চীনরে প্রসেডিন্টে ২০১৩ সালে বলছেলিনে, ওয়ান বল্টে ওয়ান রোডরে কথা আর সটো করা গলেে সটো রর্ফোস টু সল্কিরোড ইকোনমি বল্টে হব। আর এর উদ্দশ্যে হল আঞ্চলকি যে সহযোগতিা রয়ছেে তা আরও বাড়ানো এবং মজবুত করা। যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য অবকাঠামোগত উন্নয়ন, বাণজ্যি ক্ষত্রেে আরও বনিয়িোগ বৃদ্ধ, র্অথনতৈকি সহযোগতিা বৃদ্ধি ও সাংস্কৃতকি সর্ম্পকরেও উন্নয়ন করতে হব। এই উদ্যোগ সফল করার জন্য এই রুটে যে সব দশেগুলো রয়ছেে তাদরে সবার সহযোগতিা প্রয়োজন রয়ছে। বোয়া ফোরামরে সম্মলেনে অংশগ্রহণকারীরা সটোই চাইছ।
তনিি জানান, বোয়া ফোরামরে সম্মলেনে এশয়িান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভস্টেমন্টে ব্যাংকে (এআইআইব) যারা যোগ দতিে চায় সইে বষিয়টি নয়িওে অগ্রগতমিূলক আলোচনা হয়। তনিি বলনে, বশ্বি র্অথনীতরি জন্য এশয়িা একটি গুরুত্বর্পূণ চালকিাশক্ত। আর এই জন্য এশয়িার র্অথনতৈকি উন্নতি আরও প্রয়োজন। আর সটো সমন্বতিভাবইে করতে হব। বোয়া ফোরাম এই ক্ষত্রেে ভূমকিা রখেে চলছে। সইে কারণে বোয়া ফোরামরে ভূমকিাও ক্রমশ গ্লোবালি গুরুত্বর্পূণ হয়ে উঠছ। সম্মলেনে এশয়িার বভিন্নি দশেরে উন্নয়নরে নানা দকি নয়িওে আলোচনা হবে বলে জানা গছে।
এদকিে ওই ফোরামরে গত বৃহস্পতবিার সন্ধ্যায় “‘হোয়াটস আপ উইথ দ্য নক্সেট জনোরশেন’” এ সশেনে বক্তৃতা করনে বাংলাদশে থকেে ফোরামরে নর্বিাচতি বক্তা সয়ৈদা ইফফাত হোসনে। তনিি ওই অনুষ্ঠানে বাংলাদশেরে তরুণ প্রজন্মরে ব্যবসায়ী প্রতনিধিি হসিবেে যোগ দনে। ওই সশেনে মডারটের ছলিনে পকিং ইউনভর্িাসটিরি গাং গুয়া স্কুল অব ম্যানজেমন্টেরে ডনি ছাই হং বনি। আলোচক ছলিনে ছয় জন। তারা বভিন্নি দশেরে খ্যাতনামা প্রতষ্ঠিান থকেে আসনে। আবুল হোসনে ও তনিি এই সম্মলেনে যোগ দয়ো ছাড়াও চীনরে প্রসেডিন্টেরে সঙ্গে দখো করনে। বোয়া ফোরামে আবুল হোসনে একটি সশেনরে মডারটের ছলিনে।
বজ্ঞিপ্তি : সয়ৈদ আবুল হোসনে সর্ম্পকে বস্তিারতি জানা যাবে তার বই ‘আমি ও জবাবদহিতিা’” বইয়ে ও এই ব্যাপারে বস্তিারতি জানা যাবে

Leave a Reply