জিল্লুর রহমানের মতো প্রেসিডেন্ট প্রত্যাশা মজিনার

জিল্লুর রহমানের মতো প্রেসিডেন্ট প্রত্যাশা মজিনার

ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজিনা বলেছেন, বাংলাদেশের জনগণের কাছে মরহুম প্রেসিডেন্ট মো. জিল্লুর রহমান ছিলেন অভিভাবকতুল্য ও সর্বগ্রহণযোগ্য ব্যক্তিত্ব। প্রত্যাশা করি, ভবিষ্যতেও তার মতোই একজন প্রেসিডেন্ট পাবে বাংলাদেশ। গতকাল রাজধানীর আগারগাঁও এলজিইডি মিলনায়তনে ইউএসএআইডি ও বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের মধ্যে ১ কোটি ৫০ লাখ
ডলারের ৪ বছর মেয়াদি একটি চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। এ চুক্তি অনুযায়ী আগামী ৪ বছরে সরকারের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠানকে সরাসরি অনুদান হিসেবে এ অর্থ দেয়া হবে। ইউএসএআইডির পক্ষে বাংলাদেশ মিশন পরিচালক রিচার্জ গ্রিন ও বাংলাদেশের পক্ষে এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে দেশ যখনই এগিয়ে যেতে শুরু করেছে তখনই এ উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করা হয়েছে। গত ৪২ বছরে আমরা খুব ভালভাবে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রাখতে পারি নাই। তারপরও বর্তমানে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সামনে এগিয়ে যাচ্ছি। অন্যদিকে রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনা বলেন, এ সহায়তা আমেরিকার নতুন দৃষ্টিভঙ্গির অংশ। আজকের ঘোষিত প্রকল্পটি আমার অত্যন্ত প্রিয়। আমি নিজেও একটি দুগ্ধ খামারে বড় হয়েছি। এ প্রকল্পটি বাংলাদেশের কৃষিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করি। অনুষ্ঠানে চুক্তির প্রকল্প প্রসঙ্গে বলা হয়, বাংলাদেশের কৃষি অবকাঠামো উন্নয়ন করে দেশের কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি, আয় বৃদ্ধি ও বাজারে অনুপ্রবেশের সুযোগ সৃষ্টি করা। এ চুক্তি অনুযায়ী এলজিইডি অধিদপ্তরের নিজস্ব কার্যপ্রণালীর মাধ্যমে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে বাজার ও সংগ্রহ কেন্দ্র স্থাপন, পল্লী এলাকায় সংস্কার, খামার পর্যায়ে সেচ ও পানি নিষ্কাশন প্রদ্ধতির উন্নয়ন করা হবে। অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার সচিব আবু আলম মো. শহীদ খান ও এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী ওয়াহিদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply