মেসির পক্ষ নিয়ে বার্সা বোর্ডকে ধুয়ে দিলেন পিকে

মেসির পক্ষ নিয়ে বার্সা বোর্ডকে ধুয়ে দিলেন পিকে

অবশেষে নীরবতা ভাঙলেন জেরার্ড পিকে। গত কয়েক মাসে লিওনেল মেসিকে নিয়ে বার্সেলোনায় যা হয়েছে, সেটি নিয়ে কথা তো বললেনই; মেসির মতোই সরাসরি আঙুল তুললেন বার্সা বোর্ডের দিকেও।

স্প্যানিশ গণমাধ্যম ‘লা ভ্যাঙ্গুয়ারদিয়া’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বরখাস্ত কোচ আরনেস্তো ভালভার্দে, মেসির ভবিষ্যৎ এবং বোর্ডের কার্যকলাপ নিয়ে অনেক কথাই বলেছেন পিকে। বাদ যায়নি ‘বার্সাগেট কেলেঙ্কারি’ প্রসঙ্গও।

দলের বর্তমান ও সাবেক অনেক খেলোয়াড়দের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে বার্সেলোনা আইথ্রি নামের একটি প্রতিষ্ঠান ভাড়া করেছিল বলে গত ফেব্রুয়ারিতে অভিযোগ উঠেছিল। যা পরবর্তীতে ‘বার্সাগেট’ নামে পরিচিতি পায়।

এই প্রসঙ্গে পিকে বলেন, ‘একজন বার্সার খেলোয়াড় হয়েও আমাকে দেখতে হলো, ক্লাব টাকা খরচ করেছে যাদের সঙ্গে আমাদের ঐতিহাসিক সম্পর্ক আছে এমন বাইরের লোকদের জন্যই শুধু নয়, বর্তমান অনেক খেলোয়াড়ের জন্যও। এটা আসলেই বর্বরোচিত।’

এমন ঘটনা প্রকাশ পাওয়ার পর বার্সা সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তোমেউকে সরাসরিই প্রশ্ন করেছিলেন পিকে। বার্সার সেন্টার ব্যাক বলেন, ‘আমি এর ব্যাখ্যা চেয়েছিলাম। তিনি আমাকে বলেন-জেরার্ড, আমি এই সম্পর্কে জানি না। এবং আমি তার কথা বিশ্বাস করেছি। কিন্তু দেখা গেল যে লোকটা এমন কাজের জন্য একটি প্রতিষ্ঠানকে ভাড়া করেছিল, সে এখনও ক্লাবে কর্মরত আছে।’

নতুন মৌসুম শুরুর আগে মেসি যে বার্সেলোনা ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, সেটি নিয়েও খোলাখুলি কথা বলেছেন পিকে। বার্সা বোর্ড মেসিকে নিয়ে যা করেছে, সেটা মেনে নিতে পারছেন না এই ডিফেন্ডার।

তিনি বলেন, ‘সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়, যার খেলা উপভোগ করার সৌভাগ্য আমাদের হয়েছে, একদিন সকালে উঠে বুরোফ্যাক্স পাঠিয়ে দিল শুধুমাত্র এই কারণে যে আপনি তার কথাকে আমলে নিচ্ছেন না! এটা স্তম্ভিত হওয়ার মতো ব্যাপার। কি হচ্ছে এসব?’

মেসির মতো একজন ফুটবলারকে শুধু প্রশংসা নয়, তার নামে একটি স্টেডিয়াম করে সম্মানিত করা উচিত বলে মনে করেন পিকে। তার ভাষায়, ‘লিও সবকিছুর দাবিদার। তার নামে নতুন স্টেডিয়ামের নামকরণ করা উচিত। তারপর তারা যা বাণিজ্যিক নাম চায় সেটা। আমাদের কিংবদন্তিকে অবশ্যই আরও বেশি মূল্যায়ন করা উচিত, অবজ্ঞা নয়। এটা আমাকে খুবই রাগান্বিত করেছে।’

লা লিগায় শীর্ষে থাকার পরও ২০১৯-২০ মৌসুমের মাঝপথে ছাঁটাই করা হয়েছিল কোচ আরনেস্তো ভালভেরদেকে। তার জায়গায় দায়িত্ব দেয়া হয় কিকে সেতিয়েনকে। তাতে উপকার কি হয়েছে? বরং বায়ার্ন মিউনিখের কাছে চ্যাম্পিয়নস লিগের মতো বড় মঞ্চে ৮-২ গোলে হারের স্বাদ পেতে হয়েছে বার্সাকে। এরপর আবারও কোচ বদল।

কোচ ছাঁটাইয়ের এমন সিদ্ধান্তেরও সমালোচনা করেছেন পিকে। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় না, মৌসুমের মাঝপথে কোচকে ছাঁটাই করা ঠিক ছিল; আগের দুই লিগ শিরোপা জয়ের পর আমরা যখন ছিলাম টেবিলের শীর্ষে।’

তবে মজার ব্যাপার হলো, পিকে এমন সব সমালোচনা করলেন কদিন আগে বার্সার বেতন কমানো মেনে নিয়ে ২০২৪ পর্যন্ত চুক্তির করার পর। এত কিছুর পরও কেন বার্সার সঙ্গে চুক্তি করলেন? পিকের জবাব, ‘বার্সা আমাকে সব দিয়েছে, তাই ক্লাবের জন্য আমি নিজেকে সবসময়ই উজাড় করে দেব।

Leave a Reply