শুভ জন্মদিন হানিফ সংকেত

শুভ জন্মদিন হানিফ সংকেত

দেশের টেলিভিশন ইতিহাসে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও দীর্ঘস্থায়ী অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’। যুগ যুগ ধরে দর্শকদের মনের কোণে জায়গা দখল করে থাকা এই অনুষ্ঠানের প্রাণভোমরা হানিফ সংকেত। তার সুবাদেই অনুষ্ঠানটি এত জনপ্রিয় ও দর্শকনন্দিত হয়েছে। এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি বিনোদনের পাশাপাশি সচেতনতা, সামাজিক শিক্ষার বিস্তার যেমন প্রসারিত করেছেন, তেমনি সমাজের নানা অসঙ্গতি তুলে ধরেছেন।

শুধু ইত্যাদি দিয়েই নয়, নাটক, টেলিফিল্ম নির্মাণ করে এবং বই লিখেও দেশের শিল্প-সংস্কৃতিতে অসামান্য অবদান রেখেছেন তিনি। আজ এই বরেণ্য ব্যক্তিত্বের জন্মদিন। শুভ জন্মদিন হানিফ সংকেত।

১৯৫৮ সালের ২৩ অক্টোবর বরিশালে জন্মগ্রহণ করেন হানিফ সংকেত। প্রয়াত ফজলে লোহানীর ‘যদি কিছু মনে না করেন’ ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তার প্রতিভা বিকশিত হয়। এরপর নিজের যোগ্যতাবলে তিনি দেশের টিভি জগতে অসামান্য খ্যাতি অর্জন করেন।

১৯৮৯ সালে হানিফ সংকেত নিজের পরিকল্পনা ও সঞ্চালনায় শুরু করেন ‘ইত্যাদি’। ম্যাগাজিন এই অনুষ্ঠান তখন তিন মাস পর পর প্রচার হতো। এতে ব্যাঙ্গাত্মক উপায়ে সমাজের বিভিন্ন অসঙ্গতি তুলে ধরা হতো।

হানিফ সংকেতের ইত্যাদির মাধ্যমে অনেক অভিনেতা, অভিনেত্রী ও সঙ্গীতশিল্পী জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। এই তালিকায় আছেন আব্দুল কাদের, আফজাল শরীফ, অমল বোস, শিল্পী আকবর প্রমুখ। এছাড়া বাংলা চলচ্চিত্রের অমর নায়ক সালমান শাহ সর্বপ্রথম ইত্যাদিতেই মডেল হিসেবে কাজ করেছিলেন।

ইত্যাদি ছাড়াও হানিফ সংকেতের কর্মক্ষেত্র বিশাল। তিনি বহু নাটক রচনা ও নির্মাণ করেছেন। এর মধ্যে আয় ফিরে তোর প্রাণের বারান্দায়, দুর্ঘটনা, তোষামোদে খোশ আমোদে, বিপরীতে হিত, অন্তে বসন্ত, ফিরে আসে ফিরে আসা, শেষে এসে অবশেষে, তথাবৃত যথাকার, পুত্রদায়, কিংকর্তব্য, কুসুম কুসুম ভালোবাসা, ভূত অদ্ভুত, শূন্যস্থান পূর্ণ উল্লেখযোগ্য।

অভিনয়েও সিদ্ধহস্ত হানিফ সংকেত। তিনি তিনটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। এগুলো হচ্ছে- আগমন, চাঁপা ডাঙ্গার বউ ও ঢাকা ৮৬।

লেখক হিসেবে হানিফ সংকেতের পরিচিতি মোটা দাগে উল্লেখযোগ্য। তিনি ১৯৯৫ সাল থেকে তিনি বই প্রকাশ করে আসছেন। তার রচিত গ্রন্থগুলোর মধ্যে আছে শ্রদ্ধেয় রাজধানী, নিয়মিত অনিয়মিত, কষ্ট, এপিঠ ওপিঠ, ধন্যবাদ, অকাণ্ড কাণ্ড, খবরে প্রকাশ, প্রতি ও ইতি, বিনীত নিবেদন, হামানদিস্তা, রঙ্গ বিরঙ্গ ইত্যাদি।

সামাজিক কার্যক্রমের জন্য হানিফ সংকেত ২০১০ সালে সম্মানজনক রাষ্ট্রীয় মর্যাদা একুশে পদকে ভূষিত হন। এছাড়া ২০১৪ সালে তিনি জাতীয় পরিবেশ পদক লাভ করেন।

Leave a Reply