রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে প্রয়োজন আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক ভূমিকা : বিগান

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে প্রয়োজন আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক ভূমিকা : বিগান

কেবল যুক্তরাষ্ট্র নয়, অন্য দেশকেও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে জোরালো ভূমিকা নিতে হবে বলে অভিমত দিয়েছেন ঢাকায় সফররত যুক্তরাষ্ট্রের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন ই বিগান। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীতে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

এর আগে এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, ‘দিল্লির চোখ দিয়ে নয়, স্বাধীন দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে গুরুত্ব দেন বলেই যুক্তরাষ্ট্রের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে এসেছেন।’

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারকে বাধ্য করতে প্রয়োজন যুক্তরাষ্ট্রের মতো বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলোর জোরালো ভূমিকা। এ ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের ভূমিকা যতটা জোরালো, সেরকম জোরালো নয় চীন, ভারত কিংবা রাশিয়ার মতো দেশগুলোর অবস্থান। আর এ ব্যাপারেই জোর দিয়ে কথা বললেন ঢাকায় সফররত যুক্তরাষ্ট্রের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন ই বিগান।

বিগান বলেন, ‘এটা সর্বজন স্বীকৃত, রোহিঙ্গা ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র যতটা সম্ভব তার জোরালো ভূমিকা রাখছে। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে নিয়েও কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি এটাও বলতে চাই, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে প্রয়োজন আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক ভূমিকা। সব দেশকে একসঙ্গে এ ব্যাপারে কাজ করতে হবে। অবশ্যই এটি কেবল বাংলাদেশের দায়িত্ব নয়।’

বাংলাদেশকে যুক্তরাষ্ট্র কতটা গুরুত্ব দিয়ে দেখে, অথবা অন্য কোনো দেশের চাওয়ার ওপর নির্ভর করে বাংলাদেশকে বিবেচনা করা হচ্ছে কি না, এ রকম কিছু বিষয়ও স্পষ্ট করেন বিগান ও বাংলাদেশের পরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

যুক্তরাষ্ট্রের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আমি একমত। ভৌগোলিকভাবে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের কাছে আকর্ষণীয় পার্টনার। এখানে দীর্ঘদিন ধরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বজায় রয়েছে। ব্যবসার ক্ষেত্রে আকর্ষণীয় বিষয়গুলো হলো বাংলাদেশের বড় ভোক্তা শ্রেণি, দক্ষ শ্রমিক ও বঙ্গোপসাগর। এ রকম আরো অনেক কিছুই রয়েছে, যে কারণে বাংলাদেশের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রহ আছে।’

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে ঢাকায় মার্কিন দূতাবাস সীমিত লোকবল দিয়ে পরিচালিত হচ্ছে বলে আপাতত স্টুডেন্ট ভিসা প্রক্রিয়া বন্ধ রয়েছে। বঙ্গবন্ধুর খুনি রাশেদ চৌধুরীকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়টিও পর্যালোচনা করা হবে বলে জানানো হয় যৌথ এই সংবাদ সম্মেলনে।

Leave a Reply