দিল্লির চোখে বাংলাদেশকে দেখে না যুক্তরাষ্ট্র : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

দিল্লির চোখে বাংলাদেশকে দেখে না যুক্তরাষ্ট্র : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এ কথা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র কখনই বাংলাদেশকে দিল্লির চোখে দেখে না। দেখলে আমাদের এখানে তারা আসতেন না।

আজ বৃহস্পতিবার ( ১৫ অক্টোবর) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র দিল্লির চোখ দিয়ে বাংলাদেশকে দেখে- এটি আমাদের মিডিয়া বলে। আসলে তারা দিল্লির চোখে দেখে না।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা স্বাধীন ও সার্বভৌম দেশ। সবাই জানে আমাদের মূল্যবোধ ও নীতি আছে। আমাদের অবস্থান সবসময় স্বাধীন। আমরা দেশের স্বার্থের জন্য যা যা দরকার, তাই করব।

মন্ত্রী বলেন, সে জন্য তারা আমাদের স্বাধীনভাবে দেখছে, দিল্লির চেহারা দিয়ে দেখে না। শুধু দিল্লির চেহারা দিয়ে দেখলে এখানে আসতেন না। এখানে তারা এসেছে আমাদের ভূ-রাজনৈতিক অবস্থানের জন্য বাংলাদেশের সঙ্গে তারা বন্ধুত্বটা আরও গভীর করতে চায়।

ড. মোমেন জানান, যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি রাশেদ চৌধুরীকে ফেরতের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। স্টিফেন বিগান জানিয়েছেন, বিষয়টি তাদের অ্যাটর্নি জেনারেল দেখছেন।

এক প্রশ্নের উত্তরে মোমেন বলেন, বৈঠকে ইন্দো প্যাসিফিক নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। আপনারা কয়েকদিন ধরে যেটা লিখেছেন, তা ঠিক নয়।

বুধবার তিন দিনের সফরে ঢাকায় আসেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডেপুটি সেক্রেটারি অব স্টেট ( উপপররাষ্ট্র মন্ত্রী) স্টিফেন ই বিগান। ঢাকা সফরের প্রথম দিন সন্ধ্যায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেন। একই দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। ১৪-১৬ অক্টোবর ঢাকা সফর করবেন বিগান।

বিগান বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। তার এই সফরে যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশের একই ভিশন উন্মুক্ত, অন্তর্ভুক্তমূলক, শান্তিপূর্ণ ইন্দোপ্যাসিফিক গড়ে তোলা ও কোভিড-১৯ নিয়ে আলোচনা প্রাধান্য পাবে।

Leave a Reply