বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ৩ লাখের বেশি

বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ৩ লাখের বেশি

এক সপ্তাহের ব্যবধানে বিশ্বে আবারও ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ৩ লাখের বেশি। এ নিয়ে বিশ্বে মোট শনাক্ত ২ কোটি ৮৫ লাখ ছাড়িয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৬৪৬ জনসহ মোট মারা গেছে ৯ লাখ ১৯ হাজারের বেশি।

বাংলাদেশ সময় শনিবার সকাল আটটায় জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের নিয়মিত পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বের ৩ লাখ ৩১ হাজার ৮৭৭ জন মানুষের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এতে করে সংক্রমিতের সংখ্যা ২ কোটি ৮৬ লাখ ৪৮ হাজার ৪৮২ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন করে প্রাণ গেছে ৬ হাজার ২৯১ জনের। এ নিয়ে প্রাণহানি ৯ লাখ ১৯ হাজার ৫৭৫ জনে ঠেকেছে। গত এক দিনে ২ লাখ ৪২ হাজার ২৫৪ জন রোগী সুস্থ হয়েছেন। এতে করে মোট সুস্থতার সংখ্যা দাঁড়াল ২ কোটি ৫ লাখ ৭৪ হাজার ২৫৬ জন।

এখন পর্যন্ত ইউরোপের কয়েকটি দেশ ও করোনার উৎপত্তিস্থল চীনে ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে দেশগুলো স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরলেও মুক্ত হচ্ছে না পুরোপুরি। এখনও প্রতিদিন কমবেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে।

করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। যেখানে এখন পর্যন্ত ৬৬ লাখ ৩৬ হাজার ২৪৭ জন মানুষ ভাইরাসটির আক্রমনের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১ লাখ ৯৭ হাজার ৪২১ জন।

সংক্রমণের ক্রমধারায় দুই নম্বরে থাকা ভারতে গত এক দিনে ১ লাখের কাছাকাছি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এতে করে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৬ লাখ প্রায় ৫৭ হাজার ৩৭৯ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রাণহানি বেড়ে ৭৭ হাজার ৫০৬ জনে ঠেকেছে।

ব্রাজিলে সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ৪২ লাখ ৮৩ হাজার ৯৭৮ জন। প্রাণহানি বেড়ে ১ লাখ ৩০ হাজার ৪৭৪ জনে ঠেকেছে।

রাশিয়ায় সংক্রমিতের সংখ্যা ১০ লাখ ৫১ হাজার ৮৭৪ জন। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১৮ হাজার ৩৬৫ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

পেরুতে আক্রান্ত ৭ লাখ ১০ হাজার ৬৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যেখানে মৃতের সংখ্যা ৩০ হাজার ৩৪৪ জনে দাঁড়িয়েছে। কলম্বিয়ায় শনাক্ত হয়েছে ৭ লাখ ২ হাজার ৮৮ জনের শরীরে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২২ হাজার ৫১৮ জনের। মেক্সিকোয় আক্রান্ত ৬ লাখ ৫৮ হাজার ২৯৯ জন। এখন পর্যন্ত সেখানে প্রাণ গেছে ৭০ হাজার ১৮৩ জন মানুষের। আর্জেন্টিনায় আক্রান্ত ৫ লাখ ৩৫ হাজার ৭০৫ জন। প্রাণ হারিয়েছেন ১১ হাজার ১৪৮ জন। চিলিতে সংক্রমিত ৪ লাখ ৩০ হাজার ৫৩৫ জন। এর মধ্যে ১১ হাজার ৮৫০ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা।

দক্ষিণ আফ্রিকায় সংক্রমিত হয়েছেন ৬ লাখ ৪৬ হাজার ৩৯৬ জন। আর মারা গেছেন ১৫ হাজার ৩৭৮ জন।

স্পেনে আক্রান্ত ৫ লাখ ৭৬ হাজার ৬৯৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৯ হাজার ৭৪৭ জনের। যুক্তরাজ্যে সংক্রমিতের সংখ্যা ৩ লাখ ৬১ হাজার ৬৭৭ জন। সেখানে মৃত্যু হয়েছে ৪১ হাজার ৬১৪ জন মানুষের। ফ্রান্সে করোনার ভুক্তভোগী ৩ লাখ ৬৩ হাজার ৩৫০ জন মানুষ। এর মধ্যে প্রাণহানি ঘটেছে ৩০ হাজার ৮৯৩ জনের।

ইসলামী প্রজাতান্ত্রিক দেশ ইরানে করোনার শিকার ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৮০১ জন মানুষ। প্রাণহানি ঘটেছে ২২ হাজার ৯১৩ জনের।

এদিকে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেয়া তথ্য মতে, গতকাল শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৩৪ হাজার ৭৬২ জন। এর মধ্যে প্রাণহানি ঘটেছে ৪ হাজার ৬৬৮ জনের।

Leave a Reply