প্রধানমন্ত্রীর দুরদর্শী নেতৃত্বের কারনে করোনা মোকাবেলা করা সম্বভ, বিভাগীয় কমিশনার

প্রধানমন্ত্রীর দুরদর্শী নেতৃত্বের কারনে করোনা মোকাবেলা করা সম্বভ, বিভাগীয় কমিশনার

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : খুলনার বিভাগীয় কমিশনার ড. মুঃ আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর দুরদর্শী নেতৃত্বের কারনে আমরা করোনা মোকাবেলা করতে পারছি। লকডাউনে ক্ষতির পরিমান যাহা ভাবা হয়েছিল সে তুলনায় অনেক কম হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মৃত্যুর হারের তুলনায় আমাদের দেশে মৃত্যু হারও অনেক কম। বিভাগীয় কমিশনার বলেন, করোনাকে মোকাবেলা করতে হলে আমাদের সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। করোনার মধ্যেও আমাদের সকল উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে অব্যাহত রাখতে হবে।
করোনার কারনে সমাজে যাতে মাদকের ব্যবহার না বাড়ে সেদিকেও লক্ষ রাখতে হবে। স্কুল-কলেজের ছেলে মেয়েরা যাতে ঝরে না পড়ে এজন্য তাদেরকে অনলাইনে লেখাপড়ার ব্যবস্থা করতে হবে। রোধ করতে হবে বাল্যবিবাহ। করোনার বিরুপ প্রভাব গ্রামীণ অর্থনীতির উপর না পড়ে এজন্য কৃষি উৎপাদন বাড়াতে হবে। খাদ্য নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় কৃষি জমি সংরক্ষন করতে হবে। গাছ লাগানোর পর তা সংরক্ষন করতে হবে।
সরকারি খাল অবমুক্ত রাখার জন্য নেট-পাটা অপসারণ করতে হবে। বিভাগীয় কমিশনার আনোয়ার হোসেন করোনাকালে সরকারি সেবা যাতে ব্যাহত না হয় এবং সকল উন্নয়ন কাজ যাতে অব্যাহত থাকে এজন্য তিনি মাঠ প্রশাসনে কর্মরত কর্মকর্তাদের প্রতি আহবান জানান এবং বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে পাইকগাছা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ বি এম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী এর সভাপতিত্বে উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের সাথে কোভিড-১৯ ব্যবস্থাপনা, দূর্ণীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও মাদক নির্মূল বিষয় নিয়ে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় কমিশনার এসব কথা বলেন।
সহকারি কমিশনার (ভুমি) মুহাম্মদ আরফাতুল আলম এর পরিচালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শিয়াবুদ্দিন ফিরোজ বুলু, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ পরিচালক শাহিন বিন জামান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নীতিশ চন্দ্র গোলদার, ওসি মোঃ এজাজ শফী, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ শাহাদাৎ হোসেন বাচ্চু, উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ এ.এইচ.এম, জাহাঙ্গীর আলম, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ বিষ্ণু পদ মন্ডল, খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনিরুল ইসলাম সিদ্দিকী, পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারি প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন, সহকারি শিক্ষা অফিসার আসাদুজ্জামান ও উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি সাংবাদিক মোঃ আব্দুল আজিজ। সভায় উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে বিভাগীয় কমিশনার হিতামপুর জামে মসজিদের নির্মাণ কাজ ও পুরাইকাটি কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শন করেন।

Leave a Reply