এবার হরমুজ প্রণালীর পশ্চিমে ইরানের মিসাইল উৎক্ষেপণ

এবার হরমুজ প্রণালীর পশ্চিমে ইরানের মিসাইল উৎক্ষেপণ

এবার হরমুজ প্রণালীর পশ্চিমে সামরিক মহড়ার অংশ হিসেবে ইরান মিসাইল উৎক্ষেপণ করেছে। চূড়ান্ত পর্ব শুরু হয়েছে মঙ্গলবার। এই ঘটনায় মার্কিন সেনা সাময়িকভাবে দুটি আঞ্চলিক ঘাঁটিকে সতর্কতা জারি করেছে। এ মহড়ার নাম দেয়া হয়েছে ‘প্রোফেট মোহাম্মদ ফোরটিনথ’। মহানবী (সা.) এর নামে নামকরণ হয়েছে এ মহড়ার, যা দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচার করা হয়।

মার্কিন নৌবাহিনী ইরানের এই আচরণকে দায়িত্বজ্ঞানহীন ও বেপরোয়া বলে মন্তব্য করে এটিকে ভয় দেখানোর চেষ্টা বলে উল্লেখ করেছেন। উপসাগরীয় জলে তেহরান এবং ওয়াশিংটনের মধ্যে যখন উত্তেজনা বাড়ছে তখনই এই মহড়াটি চালানো হয়েছে। ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের নৌবাহিনী ও আইআরজিসি’র অ্যারোস্পেস ফোর্স যৌথভাবে এ মহড়া চালাচ্ছে। মহড়ায় উন্নত রাডার, যুদ্ধজাহাজ ও হেলিকপ্টারসহ বিভিন্ন সামরিক সরঞ্জাম ব্যবহার করা হচ্ছে।

ইরানের বিপ্লবী গার্ডস কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে বলেছেন, মহাকাশ ও নৌবাহিনীর স্তরে এই অনুশীলনে প্রদর্শিত হয়েছিল, তা সবই আপত্তিজনক ছিল। এরই মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং কাতারে মার্কিন সেনাদের সতর্কতা অবলম্বন করার কথা বলা হয়েছে,।

মার্কিন নৌবাহিনীর বাহরাইন-ভিত্তিক ফিফথ ফ্লিটের মুখপাত্র কমান্ডার রেবেকা রেবারিচ বলেছেন, মার্কিন নৌবাহিনী নৌ-পরিবহণের স্বাধীনতার সমর্থনে আমাদের অংশীদারদের সাথে সামুদ্রিক সুরক্ষা প্রচারের সাথে প্রতিরক্ষামূলক মহড়া চালায়; অন্যদিকে ইরান আক্রমণাত্মক মহড়া পরিচালনা করে, ভয় দেখাতে ও জবরদস্তি করার চেষ্টা করে।

Leave a Reply