৪০ কার্যদিবসে নিম্ন আদালতে জামিন পেলেন ৭৮০৭৩ আসামি

৪০ কার্যদিবসে নিম্ন আদালতে জামিন পেলেন ৭৮০৭৩ আসামি

ভার্চুয়াল আদালতে জামিন আবেদনের ওপর শুনানি শুরু হওয়ার পর থেকে গত বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) পর্যন্ত ৪০ কার্যদিবসে সারা দেশে নিম্ন আদালত থেকে শিশুসহ ৭৮ হাজারের বেশি আসামিকে জামিন দেওয়া হয়েছে।

জামিন পাওয়া আসামিদের মধ্যে কারাবন্দি ৫৪ হাজার ৬৭৭ জনকে জামিন দেওয়া হয়েছে। আর গত এক সপ্তাহে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন ২৩ হাজার ৩৯৬ জন।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, নিম্ন আদালতে গত ১১ মে থেকে গত ৯ জুলাই পর্যন্ত ভার্চুয়াল শুনানি নিয়ে কারাবন্দি ৫৪ হাজার ৬৭৭ জনকে জামিন দেওয়া হয়েছে। এই সময় এক লাখ সাত হাজার ৩৭টি জামিন আবেদন নিষ্পত্তি করে এ জামিন দেওয়া হয়। জামিনপ্রাপ্তদের মধ্যে ৬৫১টি শিশুও রয়েছে। এছাড়া ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকেও বেশ কিছু জামিন আদেশ হয়েছে।

একইসঙ্গে গত ৪ জুলাই ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণের সুযোগ সৃস্টি হওয়ায় ৫ জুলাই থেকে ৯ জুলাই পর্যন্ত পাঁচ কার্যদিবসের ওই আদালত থেকে ৬৫৮৮টি মামলায় সশরীরে আত্মসমর্পণকারী ২৩ হাজার ৩৯৬ আসামি জামিন পেয়েছেন।
সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র ও হাইকোর্ট বিভাগের বিশেষ কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুর রহমানের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে আজ রবিবার (১২ জুলাই) এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, গত ১১ মে থেকে ২ জুলাই পর্যন্ত গত ৪০ কার্যদিবসে এক লাখ সাত হাজার ৩৭টি জামিনের আবেদন নিষ্পত্তি করে ৫৪ হাজার ৬৭৭ কারাবন্দির জামিন মঞ্জুর করা হয়। আর গত ৫ জুলাই থেকে ৯ জুলাই পর্যন্ত পাঁচ কার্যদিবসে ১১ হাজার ৫১৪টি জামিন আবেদন নিষ্পত্তি করে ৪৯১৫ জনের জামিন মঞ্জুর করা হয়।

এরমধ্যে ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন আদালতে ১৩৪৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৭১০ জন, রংপুর বিভাগে ৩৩০ জন, বরিশাল বিভাগে ২১৫ জন, রাজশাহী বিভাগে ৯০৪ জন, খুলনা বিভাগে ৬৯৩ জন, সিলেট বিভাগে ২৩৩ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ৩৭৪ জনের জামিন মঞ্জুর করা হয়। একইসময় সারা দেশে শিশু আদালত থেকে ৪৩টি শিশু এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল থেকে ৭০ জনকে জামিন দেওয়া হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে গত ২৬ মার্চ থেকে সারা দেশে নিয়মিত আদালত বন্ধ। এ প্রেক্ষাপটে ভার্চুয়াল আদালত চালু করতে গত ৯ মে আদালতে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ, ২০২০ নামে গেজেট প্রকাশ করে। এরপর ১১ মে থেকে ভার্চুয়াল আদালত কার্যক্রম শুরু হয়। সারা দেশে আদালতগুলোতে নির্ধারিত নিয়ম অনুসরণ করে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শুনানি করা হচ্ছে। আর গত ৫ জুলাই থেকে সশরীরে আত্মসমর্পণ করেও জামিন পাওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

Leave a Reply