ক্রাইস্টচার্চে ৫১ মুসল্লিকে হত্যা করা ট্যারান্টের সাজা আগামী মাসে

ক্রাইস্টচার্চে ৫১ মুসল্লিকে হত্যা করা ট্যারান্টের সাজা আগামী মাসে

গত বছরের ১৫ মার্চ শুক্রবার জুমার নামাজের সময় মসজিদে অবস্থানরত মুসল্লিদের ওপর বন্দুক নিয়ে আকস্মিক হামলা চালায় ব্রেন্টন। নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করা হয় ৫১ জনকে। এই হত্যা মামলায় হামলাকারীকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন দেশটির আদালত। ২৪ আগস্ট তার সাজা ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্টের বিচারক ক্যামেরন ম্যান্ডের।

ব্রেন্টনের মামলার রায় আগেই ঘোষণা করার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস সংকটের কারণে দেরি হচ্ছে বলে শুক্রবার নিউজিল্যান্ড সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। এর মধ্যে নিউজিল্যান্ডে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। দেশটিতে সামাজিক দূরত্ব নেমে চলার বিধিও উঠিয়ে নেওয়া হচ্ছে। ফের চালু হচ্ছে ব্রেন্টনের মামলার রায় কার্যক্রমও। নিউজিল্যান্ডের সুপ্রিম কোর্টের বিচারক ক্যামেরন ম্যান্ডের জানিয়েছেন, ২৪ আগস্ট ঘোষণা করা হবে ট্যারেন্টের সাজা।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে ম্যান্ডের বলেছেন, ‘নিউজিল্যান্ডে এখন কভিড-১৯-এর সংক্রমণ না থাকায় আমাদের আদালতও স্বাভাবিক কার্যক্রমে ফিরেছে। জনসাধারণ, বিশেষ করে নিউজিল্যান্ডে বসবাসরত ভিকটিম ও তাদের পরিবার আদালতের অধিবেশনে উপস্থিত হতে পারবেন।’

এর আগে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৫১ জনকে হত্যার পাশাপাশি আরো ৪০ জনকে হত্যাচেষ্টা এবং সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ ছিল ট্যারান্টের বিরুদ্ধে, যার সবগুলোই স্বীকার করেছে ট্যারেন্ট। ২৬ মার্চ আদালতে অল্পসংখ্যক মানুষের উপস্থিতিতে ক্রাইস্টচার্চের আদালতে ব্রেন্টন তার দোষ স্বীকার করে। যদিও এর আগে সব অভিযোগই অস্বীকার করেছিল হামলাকারী।

Leave a Reply