করোনার ঝুঁকি কমাতে রোবট ব্যবহার করছেন রুয়ান্ডার চিকিত্সা কর্মীরা

করোনার ঝুঁকি কমাতে রোবট ব্যবহার করছেন রুয়ান্ডার চিকিত্সা কর্মীরা

রুয়ান্ডার রাজধানী কিগালির কাছাকাছি আকাজুবা, ইকিজেরে এবং নাগাবতে কভিড-১৯ চিকিত্সার সুবিধার্থে স্বাস্থ্যকর্মীরা দায়িত্ব পালন করছেন। তবে সাধারণ স্বাস্থ্যসেবা কর্মীরা এর আ্ওতায় নেই বলে জানা গেছে।

রুয়ান্ডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী এবং চিকিত্সক ও নার্সদের মধ্যে যোগাযোগ হ্রাস করার লক্ষ্যে তিনটি রোবটকে মোতায়েন করা হয়েছে।

রোবটগুলাে রোগীদের তাপমাত্রা গ্রহণ ও পর্যবেক্ষণের মতো সহজ কাজ সম্পাদনের জন্য ব্যবহৃত হয়।

বড় উজ্জ্বল নীল চোখ এবং মানুষের চেহারাসদৃশ সাদা রংয়ের রোবটগুলি ইউনাইটেড নেশনস ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম (ইউএনডিপি) নামের সংস্থা প্রদান করেছে।

রোবটগুলি পূর্ব আফ্রিকার দেশটিতে করোনাভাইরাস সঙ্কট মোকাবেলায় অগ্রণী কর্মীদের (ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কার) সহায়তা করছে।

সেখানে এখন পর্যন্ত ৩৫৫ জন কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন বলে নিশ্চিত হয়েছে।

সম্প্রতি রুয়ান্ডায় রয়টার্সের একটি দল ৭৫ শয্যাবিশিষ্ট একটি হাসপাতাল পরিদর্শন করে।

হাসপাতালটির চিকিত্সক ডেভিড তুরতসিনজে বলেছেন, আমাদের কাছে যে তিনটি রোবট রয়েছে তারা চিকিত্সা দলের অংশ।

রোবটগুলাে চিকিত্সকদের কাছে বার্তা সরবরাহ করে এবং ‘ক্লিনিক্যাল’ সিদ্ধান্তের কার্যকারিতা নির্ধারণে সহায়তা করে।রোবটগুলি চিকিত্সকদের শয্যা বিন্যাসের কাজের সংখ্যা হ্রাস করেছে।

রুয়ান্ডায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য প্রযুক্তি অপারেশন বিশেষজ্ঞ হিসাবে কাজ করছেন বায়ো-মেডিকেল ইঞ্জিনিয়ার ফ্রান্সিন উমুটসি।

তিনি বলেন, আফ্রিকায় প্রথমবার ব্যবহার করা হচ্ছে রোবটগুলি।এতে চিকিত্সা দলগুলিকে আরও বেশি সহায়তা দেওয়ার সম্ভাবনা তৈরী হয়েছে।রোবটগুলি কেবল চিকিত্সকদের প্রচেষ্টার পরিপূরক হিসেবে কাজ করে।

সূত্র : রয়টার্স

Leave a Reply