ভার্চুয়াল কোর্টেও জামিন পাননি সেই সিএন্ডএফ এজেন্ট মিজানুর চাকলাদার

ভার্চুয়াল কোর্টেও জামিন পাননি সেই সিএন্ডএফ এজেন্ট মিজানুর চাকলাদার

ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চেও জামিন পাননি শুল্ক ফাঁকি ও চোরাকারবারে জড়িত থাকার অভিযোগের মামলার আসামি চট্টগ্রামের সিএন্ডএফ এজেন্ট মিজানুর রহমান চাকলাদার দীপু। বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চে আজ মঙ্গলবার মিজানুর রহমানের জামিনের ওপর শুনানি হয়।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ ও একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। আসামি পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. একরামুল হক টুটুল।

আমিন উদ্দিন মানিক জানান, ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে হাজার কোটি টাকা আত্মসাতকারী সি অ্যান্ড এফ এজেন্ট মিজানুর রহমান চাকলাদার ওরফে দীপু চাকলাদার। ইতিপূর্বে গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর তার এই চার মামলায় পৃথক চারটি জামিনের আবেদন উপস্থাপন হয়নি মর্মে খারিজ করেছিলেন হাইকোর্ট। এসব মামলায় জামিন আবেদন করা হয়েছিল। এরমধ্যে দুটি আবেদন কার্যতালিকায় আসে। তবে আদালত তার জামিন আবেদন নিয়মিত বেঞ্চে শুনানি করার জন্য বলেছেন।

আমিন উদ্দিন মানিক জানান, ২০১৭ ও ২০১৮ সালের ২ বছরে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউজের সাবেক ২ কর্মকর্তার ইউজার আইডি ব্যবহার করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৩ হাজার ৭৭৭টি চালান অবৈধভাবে খালাস করা হয়েছে বলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের তদন্তে উঠে এসেছে।

শুল্ক ফাঁকি ও চোরাকারবারে জড়িত থাকার অভিযোগে চট্টগ্রামের সিএন্ডএফ এজেন্ট মিজানুর রহমান চাকলাদারকে (দীপু) আসামি করে গত বছরের ১৬ জানুয়ারি ঢাকার রমনা থানায় একটি মামলা করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। এই মামলায় সেদিনই মিজানুর রহমান চাকলাদারকে গ্রেপ্তার করে শুল্ক গোয়েন্দারা। পরে তার বিরুদ্ধে আরো বেশ কয়েকটি মামলা করা হয়।

Leave a Reply