দোকান খোলা রাখায় দুই জুয়েলার্সকে বহিষ্কার করেছে বাজুস

দোকান খোলা রাখায় দুই জুয়েলার্সকে বহিষ্কার করেছে বাজুস

সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও নির্দেশনা অমান্য করে দোকান খোলা রাখার জন্য দুই প্রতিষ্ঠানকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)। এগুলো হলো-ভাসাভী জুয়েলার্স ও পূরবী জুয়েলার্স। এ ছাড়া আরো ৩০টি সদস্য প্রতিষ্ঠানকে সতর্কতামূলক পত্র প্রেরণ করা হয়েছে। রবিবার সংগঠনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় সম্প্রতি বাজুসের কার্যনির্বাহী কমিটি টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে জরুরি মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। সভায় দোকান মালিক, কর্মচারী ও ক্রেতাসাধারণের স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা চিন্তা করে এবং সংক্রমণ রোধে সরকারকে সহায়তা করার লক্ষ্যে ঈদুল ফিতর পর্যন্ত সকল জুয়েলারি দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। কিন্তু সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও নির্দেশনা অমান্য করে দোকান খোলা রাখে ভাসাভী জুয়েলার্স ও পূরবী জুয়েলার্স।

বাজুস বলছে, প্রতিষ্ঠান দুটিকে সাময়িক বহিষ্কার করার আগে সংগঠনের নির্দেশনা যথাযথভাবে অনুসরণের জন্য সতকতামূলক পত্র দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারপরেও দোকান খোলা রেখে শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছে। এ কারণে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে এবং একই সাথে কেন এই বহিষ্কারাদেশ স্থায়ী করা হবে না তা জানতে চেয়ে পত্র দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, বাজুসের সদস্য প্রতিষ্ঠান ভাসাভী জুয়েলার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামাল জামান মোল্লা। আর পূরবী জুয়েলার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জগন্নাথ ঘোষ।

Leave a Reply