ভারত ও মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীদের দ্রুত ফেরত আনার সুপারিশ

ভারত ও মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীদের দ্রুত ফেরত আনার সুপারিশ

করোনা পরিস্থিতিতে ভারত ও মধ্যপ্রাচ্যে আটকা পড়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনার সুপারিশ করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। কমিটির বৈঠকে এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে।

আজ রবিবার বিকেলে জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সংসদীয় কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান। বৈঠকে কমিটির সদস্য পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, মো. হাবিবে মিল্লাত, নাহিম রাজ্জাক ও কাজী নাবিল আহমেদ এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি ফারুক খান সাংবাদিকদের জানান, বিদেশে আটকে পড়া প্রবাসীদের দ্রুত দেশে ফেরত আনা হচ্ছে। সরকার আটকে থাকা প্রবাসীদের ফ্লাইটের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। প্রবাসীরা নিজ খরচেই দেশে ফিরছেন। তারা দেশে ফেরত এলে তাদের পুর্নবাসনে কি ব্যবস্থা নেওয়া যায় সেটাও বিবেচনা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, প্রবাস থেকে আমরাই প্রথম আমাদের দেশের প্রবাসীকে এনেছিলাম। চীনের উহান থেকে ৩২২ জনকে আমরাই দেশে নিয়ে আসি। এ ছাড়া আমরাই প্রথম করোনা আক্রান্ত চীনকে মেডিক্যাল সামগ্রী উপহার পাঠাই। মাস্ক, পিপিইসহ অন্যান্য সামগ্রী পাঠিয়েছি। সরকারের এ সকল পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে কমিটি।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে করোনা মহামারিকালে পররাষ্ট্র যে সকল সেবা প্রদান করেছে এবং বাংলাদেশ কি সাহায্য দিয়েছে ও কি সাহায্য পেয়েছে, তা উপস্থাপন করেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের করোনা বিষয়ক সেলের প্রধান ড. খলিলুর রহমান। তিনি বিদেশিদের ফেরত পাঠানো ও বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শেষে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম প্রতি সপ্তাহে একদিন ব্রিফিংয়ে করে সকল তথ্য জানানোর সুপারিশ করা হয়।

এ ছাড়া বৈঠকে জাপান ও রুমানিয়ায় বাংলাদেশের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দীন আহমেদ ও দাউদ আলী উপস্থিত হয়ে তাদের কর্ম পরিকল্পনা তুলে ধরেন। কমিটির পক্ষ থেকে বিদেশে বাংলাদেশের মিশনগুলোকে সে দেশের চাহিদা নিরুপন করে বাংলাদেশকে জানানোর এবং সে আলোকে রুপরেখা প্রণয়ন করে একটি পরিকল্পনা গ্রহণের মাধ্যমে তা বাস্তবায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

Leave a Reply