কোভিড-১৯ মোকাবিলায় তহবিল গঠন করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড

কোভিড-১৯ মোকাবিলায় তহবিল গঠন করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বিশ্বব্যাপী কর্মী, গ্রাহক ও কমিউনিটিকে কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহায়তার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণের ঘোষণা দিয়েছে। কোভিড-১৯ মোকাবিলায় কোম্পানি অর্থায়নের জন্য ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার কমিউনিটি সহায়তা তহবিল গঠন করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড গ্রুপ সম্প্রতি কোভিড-১৯ মোকাবিলায় তার গ্রাহক, কমিউনিটি ও কর্মচারীদের বর্তমান এবং দীর্ঘমেয়াদি প্রয়োজনগুলো মেটানোর জন্য বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড গ্রুপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) বিল উইন্টারস বলেন, ‘আমি আমার সহকর্মীদের ধন্যবাদ জানাতে চাই যাঁরা আমাদের কার্যক্রম চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য বীরত্বের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। একই সঙ্গে এই চ্যালেঞ্জিং সময়ে আমাদের প্রতি গ্রাহকদের অগাধ বিশ্বাসের জন্য তাঁদের আন্তরিক ধন্যবাদ। এ ছাড়া যে কমিউনিটিগুলো থেকে আমরা সব সময় সমর্থন পেয়ে এসেছি তাদের জন্য ধন্যবাদ এবং আমরা আগামী দিন, সপ্তাহ এবং মাসগুলোতে এ সমর্থন ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য বদ্ধপরিকর।’

ঘোষিত সহায়তা ব্যবস্থাগুলোর মধ্যে রয়েছে—

• কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহায়তা করার জন্য যাঁরা বিভিন্ন পণ্য এবং সেবা সরবরাহ করছেন এবং যাঁরা এ মহামারির কারণে সর্বোচ্চ চাহিদা থাকা পণ্য তৈরির পরিকল্পনা করছেন, এমন প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আর্থিক সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি।

• বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত সম্প্রদায়গুলোকে সহায়তা দিতে ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার গ্লোবাল তহবিল গঠন। গ্রুপটি তার সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত বাজারগুলোতে জরুরি ত্রাণ সহায়তা করার জন্য অবিলম্বে ২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অনুদান দেবে। বাকি ২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার কোভিড-১৯-এর প্রাদুর্ভাবে অর্থনৈতিক প্রভাব থেকে মুক্তি পেতে কমিউনিটিগুলোকে মধ্যম মেয়াদে সহায়তা হিসেবে দেওয়া হবে।

• ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিষদ তাদের কর্মীদের সুরক্ষা এবং সুস্বাস্থ্য রক্ষার জন্য দূরবর্তী স্থান থেকে কাজের ব্যবস্থাও চালু করেছে। সব কর্মীকে তাঁর সুবিধার্থে ভার্চুয়াল লার্নিংয়ের মাধ্যমে নিজেদের দক্ষতা বাড়ানোর জন্য উৎসাহিত করা হচ্ছে।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডের করপোরেট, বাণিজ্যিক ও ইনস্টিটিউশনাল ব্যাংকিংয়ের সিইও সাইমন কুপার ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের আর্থিক সহায়তার বিষয়ে বলেন, এই মহামারির কারণে সর্বোচ্চ চাহিদা থাকা পণ্য তৈরিতে যাঁরা উদ্যোগী হয়ে তাদের উৎপাদন ব্যবস্থায় পরিবর্তন করছেন, সেখানে নিঃসন্দেহে বিপুল পরিমাণ অর্থব্যয় রয়েছে, তাই এটি এমন একটি ক্ষেত্র যেখানে আমরা সহায়তা করতে পারি যেন তারা দ্রুত উৎপাদনে যেতে পারে। একই সঙ্গে আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে বিদ্যমান নির্মাতারা এবং পরিষেবা সরবরাহকারীরাও তাঁদের প্রয়োজনীয় সহায়তা যেন পান।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসের এজাজ বিজয় বলেন, বিশ্বব্যাপী জরুরি পরিস্থিতিতে যাঁরা আক্রান্ত হয়েছেন তাঁদের সবার জন্য আমাদের গভীর চিন্তা ও সমবেদনা রয়েছে। এই চরম স্বাস্থ্য হুমকি মোকাবিলায় স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড তাদের যথাসাধ্য চেষ্টা এবং লড়াই চালিয়ে যেতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ব্যবসা ও সব পরিবারের জন্য বর্তমান সময়টি খুবই কঠিন এক সময় এবং এই ঝড়কে আমাদের একসঙ্গে মোকাবিলা করতে হবে যাতে করে কোভিড-১৯ পরাজিত হয়ে গেলে আমাদের অর্থনীতি তার বিকাশের পথ ধরে রাখতে পারে।

গত সপ্তাহে ব্যাংকটি বাংলাদেশে তার গ্রাহকদের সহায়তা করার জন্য বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগের ঘোষণা করেছে। বিজ্ঞপ্তি

Leave a Reply