মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংস করতে চায় স্থানীয় সরকার

মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংস করতে চায় স্থানীয় সরকার

ডেঙ্গুর আগাম মোকাবেলায় ঢাকা সিটিতে এবার মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংস করার উদ্যোগ নিচ্ছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। আজ বুধবার ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে এ পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে মন্ত্রণালয়টি।

মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা উত্তর সিটির মেয়রকে উদ্দেশ্য করে মশার উপদ্রুপ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করার প্রেক্ষিতে জরুরি ভিত্ততে এ বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে বেলা ১১টা থেকে প্রায় তিন ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা ছাড়াও মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী তাজুল ইসলাম জানান, ঢাকায় ডেঙ্গু মোকাবেলায় আগাম প্রস্তুতির অংশ হিসেবে এবার শুধু ঘরের মশা নয়, পরিত্যক্ত যেসব জায়গা বা জিনিসে মশার উৎপত্তি হয় সেগুলো ধ্বংস করে দেওয়া হবে। এজন্য এরইমধ্যে দুই সিটি করপোরেশনকে ৩ কোটি টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, মশা নিধনের বিষয়ে আরো পরিকল্পনা গ্রহণের জন্য বৃহস্পতিবার রাজউক, গণপূর্ত অধিদপ্তর ও পিডব্লিইডির কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করা হবে। এসব প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পরামর্শ গ্রহণ করা হবে।

মঙ্গলবার এক ভিডিও কনফারেন্সে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের কিন্তু আরও সতর্ক থাকবে হবে, যেহেতু মেয়র সাহেব আছেন সেখানে, আমি বলছি, কালকে যখন ঘুমাতে গেলাম তখন মাঝে মাঝেই দেখলাম মশারা সংগীতচর্চা করছে। মশার গান শুনলাম। গুনগুন করে কানের কাছে বেশ গান গাচ্ছিল। অর্থাৎ মশার প্রাদুর্ভাবটা কিন্তু আস্তে আস্তে শুরু হবে। তারপর আসবে ডেঙ্গু। এ ব্যাপারগুলো আমাদের এখন থেকে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে হবে। নির্বাচিত প্রতিনিধিরা তো আছেনই, সে সাথে যারা এর সাথে, মশার হাত থেকে দেশের মানুষকে বাঁচানোর জন্য এখন থেকে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে।

Leave a Reply