করোনা মোকাবেলায় আইন মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং ডেস্ক

করোনা মোকাবেলায় আইন মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং ডেস্ক

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলার লক্ষ্যে সারা দেশে নিম্ন আদালতের বিচারক ও আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেখভাল করতে মনিটরিং ডেস্ক খুলেছে আইন মন্ত্রণালয়। দুইজন উপসচিবকে এই ডেস্কের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। বিচারক ও আদালত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেখভালের বিষয়টি তদারকি করছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এমপি।

জানা গেছে, কোনো বিচারক বা কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী যদি আক্রান্ত হন বা অসুস্থ হন বা কোনো উপসর্গ দেখা দেয়, তাহলে সেক্ষেত্রে চিকিত্সাসহ দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া যায় সেজন্যই এই মনিটরিং ডেস্ক খোলা হয়েছে। আইন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (প্রশাসন-১) শেখ গোলাম মাহবুব ও উপসচিব (প্রশাসন-২) এস মোহাম্মদ আলীকে এই ডেস্কের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সারা দেশে নিম্ন আদালতের বিচারক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কেমন আছেন সে বিষয়ে খোঁজ নিয়ে প্রতিদিন রাত ১০টার মধ্যে তা আইনমন্ত্রী আনিসুল হককে জানাতে বলা হয়েছে বলে শনিবার কালের কণ্ঠকে জানান আইন মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা ড. মো. রেজাউল করিম।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, সারা দেশে জেলা জজ থেকে সহকারী জজ পর্যায়ে প্রায় ১৮০০ বিচারক রয়েছেন। আর দেশের সকল আদালতে কর্মকর্তা-কর্মচারীর সংখ্যা প্রায় ১৮ হাজার। দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দেশের সকল আদালতে আগামী ২ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হলেও সংশ্লিষ্টদের নিজ নিজ কর্মস্থলে থাকতে বলা হয়েছে। নিম্ন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে থাকার বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের ডেপুটি রেজিষ্ট্রার (প্রশাসন ও বিচার) মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান ভুঁইয়ার স্বাক্ষরে গত ২৫ মার্চ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এই বিজ্ঞপ্তিতে সাধারণ ছুটি ও সাপ্তাহিক ছুটি মিলে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সংশ্লিষ্টদের কর্মস্থলে থাকতে বলা হয়েছে।

এ পরিস্থিতিতে নিম্ন আদালতের বিচারক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেখভাল করার জন্য আইন মন্ত্রণালয় মনিটরিং ডেস্ক খুলেছে। জানা গেছে, ডেস্কের দায়িত্বপ্রাপ্ত দুই কর্মকর্তা প্রতিদিন সারা দেশে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে রাত ৮টার মধ্যে একটি প্রতিবেদন আইন সচিব মো. গোলাম সারওয়ারের কাছে দাখিল করবেন। এরপর সেই প্রতিবেদন রাত ১০টার মধ্যে আইনমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply