স্বাস্থ্যগবেষণায় বরাদ্দ বাড়ানো উচিত : তথ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্যগবেষণায় বরাদ্দ বাড়ানো উচিত : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিশ্বব্যাপী প্রতিবছর স্বাস্থ্যখাতে সরকারি গবেষণায় ব্যয় হয় ২.৩ বিলিয়ন ইউএস ডলার। যা মাত্র কয়েকটি সামরিক বিমানের মূল্যের সমান। স্বাস্থ্য গবেষণায় সরকারি বরাদ্দের তুলনায় সামরিক খাতে বরাদ্দ বহুগুণ বেশি। তিনি বলেন, সময় এসেছে আমরা যুদ্ধ প্রতিযোগিতায় অর্থ ব্যয় করবো, নাকি মানুষের রোগমুক্তির জন্য গবেষণায় বরাদ্দ বাড়াব।

আজ শুক্রবার ঢাকার বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী। সামরিক ব্যয় বাদ দিয়ে স্বাস্থ্যখাতের গবেষণায় বরাদ্দ বাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, একে অপরের সঙ্গে যুদ্ধের জন্য বিশ্বব্যাপী ক্রমাগত সামরিক ব্যয় বাড়ানো হচ্ছে। ২০১৭ সালের তুলনায় ২০১৮ সালে সামরিক ব্যায় বেড়েছে ২.১৭ ভাগ, দিন দিন এই ব্যয় বাড়ছে। বড় পাঁচটি দেশ, পৃথিবীর মোট সামরিক বরাদ্দের ৬০ ভাগ ব্যয় করে। তথ্যমন্ত্রী বলেন, মানবজাতিকে রক্ষা করার জন্য স্বাস্থ্যগবেষণায় ব্যয় বাড়ানো আজকে সময়ের দাবি। তিনি বলেন, যেভাবে একটি জীবাণুর কাছে মানবজাতি অসহায় হয়ে পড়েছি, এতে করে যারা অস্ত্র প্রতিযোগিতার মধ্যে আছেন বা যুদ্ধ প্রতিযোগিতার মধ্যে আছেন তাদের বোধোদয় হবে আশা করি।

হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির দিনে হাজার হাজার লোকজনের জমায়েত করে বিএনপি চরম দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রাস্তায় অহেতুক ঘোরাফেরা করা যাবে না। তবে যে কেউ বিশেষ প্রয়োজনে রাস্তায় বের হতেই পারেন। প্রয়োজনে কেউ রাস্তায় গেলে তাকে হয়রানি করা যাবে না। এটি করার জন্য পুলিশকে বলা হয়নি। এমন যাতে না করা হয় সে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

অপর এক প্রশ্নে তথ্যমন্ত্রী জানান, সরকারের পক্ষ থেকে মাঠ প্রশাসনকে বলা হয়েছে দশ টাকায় চাল বিতরণের জন্য। শহর এলাকাতেও এই দামে চাল বিতরণের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

Leave a Reply