করোনায় বিদেশে কোনো প্রবাসী মারা গেলে সেখানেই দাফন করুন

করোনায় বিদেশে কোনো প্রবাসী মারা গেলে সেখানেই দাফন করুন

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিদেশে কোনো বাংলাদেশি নাগরিক মারা গেলে গেলে আমরা অনুরোধ করব সেখানেই দাফন করুন। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ হওয়ায় মরদেহ সহজেই দেশে আনা সম্ভব নয়। এ ছাড়া মরদেহ আনতে খরচও অনেক বাড়বে।

আজ রবিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের তিনি এসব কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ১০ হাজার কিট, ১০ হাজার পিপিআই ও ১০ হাজার অন্যান্য স্বাস্থ্য সরঞ্জাম যেকোনো সময় চীন থেকে আসছে। এজন্য আমরা চীনের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছি। এই সরঞ্জামগুলো আনার জন্য আমরা চার্টার্ড বিমান খুঁজছি।

মন্ত্রী আরো বলেন, প্রবাসীরা যারা এখনো দেশের বাইরে আছেন, তারা ওখানেই থাকেন। আর যারা দেশে ফিরেছেন তারা অপেক্ষা করুন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার ফেরত যেতে পারবেন। ভিসার মেয়াদ শেষ হলেও সমস্যা নেই। মেয়াদ বাড়ানো হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে থাকা ইউরোপের নাগরিকরা চাইলে চার্টার ফ্লাইটে যেতে পারবেন। আমরা ঢাকার ইউরোপীয় মিশনগুলোর রাষ্ট্রদূতদের জানিয়েছি, তারা চাইলে চার্টার ফ্লাইটে তাদের এ নাগরিকদের পাঠাতে পারবেন। আমরা সেই অনুমতি দেব বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply