মুজিব বর্ষ উপলক্ষে খুলনায় ১৮টি পয়েন্টে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে খুলনায় ১৮টি পয়েন্টে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে খুলনা শহরের ১৮টি পয়েন্টে আজ মঙ্গলবার থেকে ট্রাকে করে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু হয়েছে। প্রথম দিনেই ক্রেতাদের ব্যাপক সাড়া মিলেছে। অনেকেই আবার কাঙ্ক্ষিত পণ্য না পেয়ে খালি হাতে ফিরেছেন।

ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) খুলনা কার্যালয় সূত্র জানায়, প্রতি কেজি চিনি ও মসুর ডাল ৫০ টাকা, প্রতি লিটার বসুন্ধরা সয়াবিন তেল ৮০ টাকা এবং পেঁয়াজ ৩৫ টাকা কেজিতে বিক্রি করা হচ্ছে। ১৮টি ট্রাকের প্রতিটিতে প্রতিদিন ৬৫০ কেজি চিনি, ১০০ কেজি ডাল, ৫০০ কেজি পেঁয়াজ ও ১ হাজার লিটার তেল নেওয়া হচ্ছে। মুজিব বর্ষ উপলক্ষে টিসিবির নেওয়া এ কর্মসূচি চলবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত। এরপর ১ এপ্রিল থেকে পবিত্র রমজান পর্যন্ত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে নিয়মিত বিক্রি চলবে। একজন ক্রেতা সর্বোচ্চ পাঁচ লিটার সয়াবিন তেল, চার কেজি চিনি ও দুই কেজি মসুর ডাল কিনতে পারবেন।

সূত্রটি জানায়, নগরের ময়লাপোতা মোড়, গল্লামারীর মোড়, পাওয়ার হাউস মোড়, রূপসা ট্রাফিক মোড়, টুটপাড়া কবরখানা মোড়, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে, কেডিএ নিউমার্কেট চত্বর, বয়রা বাজার মোড়, বৈকালী বাজার মোড়, লবণচরা বান্দা বাজার, পিটিআই মোড়, জাতিসংঘ পার্কের কাকলি বাগের সামনে, মহসীন কলেজ মোড়, খালিশপুর জুট মিল চত্বর, দৌলতপুর মীনাক্ষীর সামনে, ফুলবাড়ি গেট মোড়, শিরোমণি বাজার এবং ফুলতলা বাজারে টিসিবির পণ্য বিক্রি চলছে। এ ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বেলা দেড়টা পর্যন্ত নগরের শিববাড়ি মোড়ে অবস্থিত টিসিবির আঞ্চলিক কার্যালয়ের বিক্রয়কেন্দ্র থেকে এসব পণ্য পাওয়া যাচ্ছে।

বেলা দেড়টার দিকে নগরের জাতিসংঘ পার্কের পাশে কাকলি বাগ এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, টিসিবির ট্রাকের সামনে ক্রেতাদের ভিড়। নিম্নমধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষ টিসিবির পণ্য কিনছেন। ট্রাক থেকে অনেকে বেশি করে তেল কিনছেন। ক্রেতাদের লাইনের বাইরে থেকে পণ্য দেওয়ায় ডিলারের সঙ্গে ক্রেতাদের কথা-কাটাকাটি হতেও দেখা যায়।

নগরের মিস্ত্রিপাড়া এলাকার মশিউর রহমান নামের এক ক্রেতা বলেন, পণ্যের মান খুব ভালো, দামও কম। ৫ লিটার তেল বিক্রি হচ্ছে ৪০০ টাকায়, বাজারে যার দাম কমপক্ষে ৫২০ টাকা। চিনির দামও বাজারের চেয়ে অন্তত ১৫ টাকা এবং মসুর ডালের দাম অন্তত ২০ টাকা কম। তবে ডিলার শৃঙ্খলা মেনে পণ্য দিচ্ছেন না। এ জন্য মাঝেমধ্যে হট্টগোল বাঁধছে।

বেলা দুইটার সময় নগরের ময়লাপোতা মোড় এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ট্রাকে পেঁয়াজ ছাড়া কোনো পণ্য নেই। লোকজন আসছেন, কিন্তু পণ্য না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

সেখানে হাবিবুল্লাহ নামের একজন ক্রেতা বলেন, ‘তেল ও চিনি নিতে এসেছিলাম। দেখছি, কিছুই নেই, শুধু পেঁয়াজ আছে। কিন্তু এখন তো পেঁয়াজের দাম বাজারেই নাগালের মধ্যে আছে। কাল আবার আসতে হবে।’

ময়লাপোতা মোড়ের টিসিবির ডিলার মেসার্স সেলিম ট্রেডার্সের মালিক মো. সেলিম বলেন, পণ্য বিক্রি ভালোই হচ্ছে। ক্রেতাদের আগ্রহও অনেক বেশি। সব পণ্যই বেলা একটার মধ্যে শেষ হয়েছে। ১০০ কেজি ডাল মাত্র এক ঘণ্টার মধ্যে শেষ হয়ে যায়। ক্রেতাদের সবচেয়ে আগ্রহ তেলে। এবারের টিসিবিতে আসা পোল্যান্ডের পেঁয়াজটা বেশ ভালো। তবে ক্রেতারা পেঁয়াজ একটু কম কিনছেন।

টিসিবি খুলনার আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক রবিউল মোর্শেদ প্রথম আলোকে বলেন, এবার তদারকিতে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সব পণ্যের পর্যাপ্ত মজুত রয়েছে।

Leave a Reply