করমর্দন করছেন না তাহসান

করমর্দন করছেন না তাহসান

করোনার কারণে নাটকের শুটিং বন্ধ করে দিলেন শিল্পী তাহসান খান। আগামী বুধবার থেকে টানা চার দিন দুটি নাটকের শুটিংয়ে অংশ নেওয়ার কথা ছিল তাঁর। করোনাভাইরাস নিয়ে সতর্কতার কারণেই শুটিং থেকে সরে আসেন তাহসান। এমনকি কারও সঙ্গে করমর্দনও করছেন না তিনি।

ঈদে প্রচারের জন্য দুটি নাটকেরই সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলেন পরিচালক ও প্রযোজক। শুটিংয়ে অংশ না নেওয়া প্রসঙ্গে তাহসান বলেন, ‘সারা পৃথিবীতেই বুদ্ধিমান মানুষ বলছে, এ ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে আইসোলেশন জরুরি। শুধু শিশুরা যদি স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়, তাহলেই হবে না। সবাইকে যার যার জায়গা থেকে সতর্ক হতে হবে। প্রয়োজনে কিছুদিন ঘরে থাকতে হবে। আমি আমার জায়গা থেকে নাটকের শুটিং করছি না। আমার মনে হয়েছে এই মুহূর্তে পরিস্থিতি বিবেচনা করে সবারই কিছুদিন ঘর থেকে বাইরে বের না হওয়া উচিত। কারণ এটা বিশ্বব্যাপী একটি বড় সমস্যা। আমাদের আগে থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। করোনা নিয়ে পূর্বসতর্কতা থেকেই প্রযোজকদের অনুরোধ করেছি, তাঁরা যেন আমার নাটকগুলো পিছিয়ে দেন।’
এই মুহূর্ত থেকে আর কোনো শুটিংয়ে অংশ নেওয়ার সম্ভাবনা নেই তাহসানের। সর্বশেষ শুটিংয়ের কাজ ছাড়া খুব বেশি বের হননি তাহসান। এমনকি সবার কাছে থেকে দূরে দূরে থেকেছেন। কারও সঙ্গে করমর্দনও করেননি। করোনাভাইরাস আগামী দিনে কী প্রভাব ফেলে, সেটার ওপর নির্ভর করেই এগোতে চান এই তারকা।

ঘরের বাইরে বের না হওয়া প্রসঙ্গে তাহসান বলেন, ‘আপাতত আগামী ২-৩ সপ্তাহ কোনো কাজ করছি না। সব কাজ বাতিল করেছি। উন্নত দেশগুলো ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণ করতে হিমশিম খাচ্ছে। আমাদের ছোট দেশ, জনসংখ্যা ঘনত্ব খুবই বেশি। আমরা যদি সতর্ক না থাকি তাহলে এই ভাইরাস ছড়াতে বেশি সময় লাগবে না। সামনে হয়তো কোনো দুর্যোগ আসতে পারে, সে জন্য আগে থেকে সতর্ক ভালো।’

সবার উদ্দেশে তাহসান বলেন, ‘এই মুহূর্তে সবাই একসঙ্গে বাইরে বের হলে পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যাবে। কাজ ছাড়া যতটা সম্ভব বাইরে বের না হওয়াই ভালো। যদিও অনেকের প্রয়োজনীয় কাজ থাকে, সবাই বাইরে বের হওয়া থেকে বিরত থাকতে পারবে না। তবে চেষ্টা করতে হবে। যতটুকু পারা যায় সতর্ক থাকতে হবে।’

শুটিং বন্ধ হয়ে যাওয়া নাটক দুটিতে তাহসানের সঙ্গে অভিনয়ের কথা ছিল সাবিলা নূর ও মাহিমার। ‘সেই রাতে’ নামের দ্বিতীয় নাটকটি পরিচালনা করবেন অনন্য ইমন।

Leave a Reply