তিন স্বজনসহ চীনা চলচ্চিত্র পরিচালকের করুণ মৃত্যু

তিন স্বজনসহ চীনা চলচ্চিত্র পরিচালকের করুণ মৃত্যু

চীনের উহানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলছে। আক্রান্তের সংখ্যাও দিন দিন বাড়ছেই। তাই করোনাভাইরাসের হাত থেকে বাঁচতে নিজ থেকেই বাড়িতে কোয়ারান্টিনে ছিলেন চেং কাই নামের এক চলচ্চিত্র পরিচালক। কিন্তু করোনাভাইরাস তাদেরকেও ছাড় দেয়নি। নিয়ে গেল প্রাণটা।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, চীনের হুবেই প্রদেশের রাজাধানী উহানে পরিবারের তিন সদস্যসহ কারোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন তিনি। গত সপ্তাহে চেং কাই নামের ওই চলচ্চিত্র পরিচালক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। এর কয়েক ঘণ্টা পর তার বোন একই কারণে মারা যান।

এর আগে চেংয়ের বাবা করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হন। তারা উহানে প্রতিটি হাসপাতালে যান। কিন্তু চিকিৎসার জন্য কোনো ব্যবস্থা করতে পারেননি। পরে বাধ্য হয়ে তার বাবাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন চেং। পরে সেখানে রেখেই চলে চিকিৎসা। কিন্তু জানুয়ারির ২৮ তারিখ চেংয়ের বাবা মারা যান। এরপর তার মাও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। কিন্তু খুব বেশি দিন বাঁচতে পারেননি। তিনিও মারা যান। চেংয়ের স্ত্রীও বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত। তার অবস্থাও বেশি ভালো না।

মারা যাওয়ার আগে সবাইকে ও লন্ডনে বসবাসরত তার ছেলেকে বিদায় জানিয়েছেন চেং। এক চিঠিতে তিনি লেখেন, আমি যাদের ভালোবাসি এবং যারা আমাকে ভালবাসে তাদের বিদায়!

এদিকে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চীনে নতুনভাবে আরো একশ ৩৬ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। এ নিয়ে সে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল দুই হাজার পাঁচজন। জানা গেছে, আজ বুধবার পর্যন্ত নতুনভাবে এক হাজার সাতশ ৪৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে করে চীনে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭৪ হাজার একশ ৮৫ জনে ঠেকেছে।

সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার।

Leave a Reply