দিল্লিবাসী নতুন রাজনীতির জন্ম দিয়েছেন : কেজরিওয়াল

দিল্লিবাসী নতুন রাজনীতির জন্ম দিয়েছেন : কেজরিওয়াল

দিল্লিতে মুখে হাসি ফোটাতে ব্যর্থ মোদি-শাহ জুটি। প্রথমদিকে লড়াইয়ে থাকলেও বেলা যতো গড়িয়েছে ক্রমশ পিছিয়ে পড়েছে বিজেপি। হাসি ফোটেছে কেজরিওয়ালের। তৃতীয়বারের জন্য দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর মসনদে বসতে চলা কেজরিওয়াল মঙ্গলবার বিকেলে দলীয় দপ্তরের বারান্দায় বসে ‘‌‌ভারত মাতা কি জয়’ আর ‘‌ইনকিলাব জিন্দাবাদ’‌ স্লোগান দিলেন। বললেন, ‌দিল্লির মানুষ আজ এক নতুন রাজনীতির জন্ম দিয়েছেন, যার নাম কাজের রাজনীতি।

গত পাঁচ বছর যেভাবে দিল্লির উন্নয়ের চেষ্টা করেছেন, আগামী পাঁচ বছরও সেটাই করবেন বলে এদিন প্রতিশ্রুতি দেন কেজরিওয়াল। এর আগে ভোটের আগের দিন দিল্লিতে হনুমান মন্দিরে গিয়ে পূজা দেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। সেটা নিয়ে কেজরিওয়ালকে ঠুকে দিল্লি বিজেপির সভাপতি মনোজ তিওয়ারি বলেছিলেন, কেজরিওয়ালের ছোঁয়ায় হনুমানজির মূর্তি অপবিত্র হয়ে গেছে। তাই সেটাকে ভালো করে ধুতে পুরোহিতকে নির্দেশ দেন তিনি। এদিন সেই ঘটনাকেই উল্লেখ করে নাম না করে বিজেপিকে ঠুকে কেজরিওয়াল বলেন, ‘হনুমানজিকে অনেক ধন্যবাদ। প্রভুজিকে ধন্যবাদ। ‌আগামী পাঁচ বছর তারা আমাদের পথ দেখাক। দিল্লিতে পবনপুত্রের আশির্বাদ ঝরে পড়ুক।’

তৃতীয়বার ভরসা করার জন্য দিল্লির আমজনতাকে ধন্যবাদ জানিয়ে কেজরিওয়াল সাফ বললেন, এই জয় আমার জয় নয়। সারা দিল্লিবাসীর জয়। এটা দিল্লির সেই সব পরিবারের জয় যারা আমাকে নিজের ছেলে ভেবে এত ভোট দিয়েছে। এটা সেই সব পরিবারের জয় যারা দিল্লিতে ২৪ ঘণ্টা বিদ্যুৎ পাচ্ছে। যাদের বাচ্চারা ভালো শিক্ষা পাচ্ছে। যাদের বাড়ির পীড়িতরা ভালো চিকিৎসা পাচ্ছেন।

কেজরিওয়াল বলেন, এই জয় দেশবাসীর কাছে বার্তা যে, সেই দলই ভোট পাবে যারা স্থানীয় এলাকার উন্নয়ন করবে, রাস্তা মেরামত করবে। মানুষকে পানি, বিদ্যুৎ, সুশিক্ষা, সুস্বাস্থ্যের পরিষেবা দেবে। ভোটে দলের হয়ে কাজ করার জন্য দলীয় কর্মীদেরও ধন্যবাদ জানান তিনি।

Leave a Reply