করোনাভাইরাস : আতঙ্কে কাঁপছে কলকাতা

করোনাভাইরাস : আতঙ্কে কাঁপছে কলকাতা

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে কলকাতার বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন চীনফেরত দুই ছাত্র। চীনে তারা ডাক্তারি পড়তেন বলে জানা গেছে।। এদিকে, সোমবার ভর্তি হওয়া দুই চীনা নাগরিককে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের জন্য তৈরি আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে। দুজনের লালার নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ওই দুই ছাত্রের মধ্যে একজন ১৫ দিন আগে কলকাতায় ফিরেছেন, অন্যজন ফিরেছেন গতকাল। দুজনের শরীরেই করোনাভাইরাসের মতো নানা উপসর্গ লক্ষ্য করা যাওয়ার ফলে কোনও ঝুঁকি না নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস নিয়ে গত মাসখানেক ধরেই কার্যত আতঙ্কে রয়েছে গোটা বিশ্ব। ইতিমধ্যেই চীনে মৃত্যুর মিছিল শুরু হয়েছে। মৃতের সংখ্যা এক হাজার ছাড়িয়ে গেছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৪০ হাজারের বেশি মানুষ। এই ভাইরাস যাতে সংক্রমণ না ছড়াতে পারে, তার জন্য চীনে আসা-যাওয়ার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে বিভিন্ন দেশ।

এদিকে, গত কয়েকদিন ধরে কলকাতাতেও করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। চীনফেরত বেশ কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। যদিও তাঁদের দেহে করোনার সন্ধান পাওয়া যায়নি। কিন্তু আতঙ্ক কাটছে না। কয়েকদিন আগেই চীন থেকে আসা দুটি জাহাজের নাবিক ও কর্মীদের নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছিল।

‘এমভি রয়্যাল পেরিডট’ ও ‘এমভি নীলম্বরী’ নামে দুটি জাহাজ হলদিয়া ডকে পৌঁছনো মাত্র সতর্ক হয়ে যান বন্দরের কর্মকর্তারা। ‘এমভি রয়্যাল পেরিডট’ জাহাজটিতে থাকা ২৪ জন কর্মী মিয়ানমারের বাসিন্দা হলেও, ‘এমভি নীলম্বরী’ জাহাজটির ২৮জন কর্মীই ভারতীয়। দুটি জাহাজের কর্মীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। সন্দেহজনক কিছু না পাওয়া গেলেও প্রত্যেককেই আপাতত পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

কয়েক দিনআগে বজবজে আসা একটি জাহাজের এক নাবিকের মধ্যে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে তাঁকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। এখনও তিনি হাসপাতালেই আছেন।

Leave a Reply