নির্বাচনের আগে-পরে বৈধ অস্ত্র বহন ও প্রদশর্ন করা যাবে না

নির্বাচনের আগে-পরে বৈধ অস্ত্র বহন ও প্রদশর্ন করা যাবে না

রাজধানী ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরশেনের নির্বাচনে কঠোর নিরাপত্তার আয়োজন করছে সরকার। এ দিনে পুলিশ, র‍্যাব ও আনসারের বিপুল সংখ্যক সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবেন।

আগামী ৩০ জানুয়ারি থেকে ৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বৈধ অস্ত্র পরিবহন, বহন ও প্রদর্শন করা যাবে না। নির্বাচনের দিন ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় কোনো মোটর সাইকেল, ট্যাক্সিক্যাব, ট্রাক ইজিবাইক চলবে না।

আজ রবিবার বিকালে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন সংযোগ কর্মকর্তা মো. শরীফ মাহমুদ অপু।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৭২টি ওয়ার্ডে ২ হাজার ৪ শত ৮৬টি ভোটকেন্দ্রে এক যোগে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। স্বাভাবিক নিরাপত্তার পাশাপাশি ভোট কেন্দ্রে মোবাইল টহল, গোয়েন্দা টিমসহ প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। প্রতি সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ২টি করে সাব-কন্ট্রোল রুম করার সিদ্ধান্ত হয়। নির্বাচন কমিশনের চাহিদা অনুযায়ী আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সার্বিক সহযোগিতা করবে। বিজিবি প্রস্তুত থাকবে। পুলিশ, র‍্যাব, আনসার সদস্যরা ভোটকেন্দ্র এলাকায় সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে। আগামী ৩০ জানুয়ারি থেকে ৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বৈধ অস্ত্র পরিবহন, বহন ও প্রদর্শন করা যাবে না।

নির্বাচনের দিন ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় কোন মোটর সাইকেল, ট্যাক্সিক্যাব, ট্রাক ইজিবাইক চলবে না। সীমিত আকারে পাবলিক বাস চলবে। সাইবার ক্রাইম নিয়ন্ত্রণে সোশ্যাল মিডিয়া মনিটরিং করা হচ্ছে।

Leave a Reply