গর্ভবতী নারীদের সেই দ্বীপে যেতে বাধা বিমান সংস্থার!

গর্ভবতী নারীদের সেই দ্বীপে যেতে বাধা বিমান সংস্থার!

যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ম্যারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জের সাইপানে যাওয়ার আগে এক নারীর জোরপুর্বক প্রেগনেন্সি টেস্ট করায় ক্ষমা চেয়েছে একটি বিমান সংস্থা।

সাইপান দ্বীপে গিয়ে বিশ্বের অনেক দেশের নারীরাই সন্তান জন্মদান করে থাকেন। কেননা সেখানে সন্তান জন্ম দিলে সেই সন্তানরা সহজেই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব পায়।

মিদোরি নিশিদা নামে হংকং এক্সপ্রেস এয়ার ওয়েজের এক নারী যাত্রী বিমানে চড়ার আগেই একটি প্রশ্নোত্তর ফরম পূরণ করেছিলেন। কিন্তু এরপরও তাকে বিমানের স্টাফরা ধরে বাথরুমে নিয়ে যায় প্রেগনেন্সি টেস্ট করার জন্য। তার হাতে একটি স্ট্রিপ ধরিয়ে দিয়ে তাতে পেশাব করতে বলা হয়।

কিন্তু তার প্রেগনেন্সি টেস্ট নেগেটিভ আসে।

২৫ বছর বয়সী ওই যাত্রী ঘটনাটিকে খুবই অপমানজনক এবং হতাশাকর বলে আখ্যা দেন। এবং অভিযোগ করেন বিমানসংস্থাটি তার প্রাথমিক অভিযোগেও সাড়া দেয়নি।

অনেক পরে গিয়ে তারা ক্ষমা চেয়েছে তার কাছে।

তবে এই ঘটনার পর বিমান সংস্থাটি ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন ও নাগরিকত্ব আইনের প্রতি সম্মান দেখিয়ে আর কোনো গর্ভবতী নারীর প্রতিও আর এই ধরনের আচরণ করা হবে না।

তবে আমরা উত্তর ম্যারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জের কর্তৃপক্ষের উদ্বেগের প্রেক্ষিতেই গর্ভবতী নারীদের ওই দ্বীপে গমণ সীমিতি করতে চেয়েছিলাম।

Leave a Reply