বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য কোর্ট পর্যন্ত পৌঁছে গেছে

বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য কোর্ট পর্যন্ত পৌঁছে গেছে

শেখ হাসিনা যত সফল হচ্ছেন তার বিরুদ্ধে চক্রান্ত তত গভীর হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। তারপরও চক্রান্ত শেষ হয়নি।

আজ সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নিয়মিত সভায় তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

নাসিম বলেন, বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য রাজপথে নয়, এখন কোর্ট প্রাঙ্গণ পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। কিন্তু আইন যে সিদ্ধান্ত নেবে সেটি আমরা সম্মান করি। ১৪ দল আমরা ঐক্যবদ্ধ আছি, ঐক্যবদ্ধ থেকে রাজনৈতিকভাবে বিএনপি-জামায়াত অপশক্তিকে চূড়ান্তভাবে পরাজিত করবো। সেটা নির্বাচনের মাঠে হোক কিংবা রাজপথে।

তিনি বলেন, যে লোক জিয়াউর রহমানকে মুক্ত করেছিলো সেই কর্নেল তাহেরকেও হত্যা করেছিলো। হত্যা করেছিলো বীর মুক্তিযোদ্ধাদের, বিভিন্ন সেনানিবাসে অনেক সৈনিককে হত্যা করেছে জিয়াউর রহমান।

তিনি বলেন, আমরা ১৪ দল থেকে বারবার বলেছি, আইনমন্ত্রীকেও বলেছি, আপনারা কমিশন গঠন করে এই মূল খলনায়ক জিয়াউর রহমানের মুখোশ উন্মোচন করুন। জিয়ার বিচার না হলে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারও সম্পন্ন হবে না। এই মূল খলনায়কের বিচার হতে হবে বাংলার মাটিতে।

১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, জেলখানায় আমরা জাতীয় চার নেতাকে হারিয়েছিলাম ৩ নভেম্বর। আমরা কৃতজ্ঞতা জানাই, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়েছে। ’৭১-এর ঘাতকের বিচার হয়েছে।

বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে ১৪ দলের কর্মসূচি জানিয়ে নাসিম বলেন, ১৪ ডিসেম্বর বুদ্ধিজীবী দিবসে ১৪ দল শ্রদ্ধা নিবেদন করবে। ১৬ ডিসেম্বর জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করবে। ১৮ ডিসেম্বর রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আলোচনা সভার আয়োজন করবে। এ সময় ডিএসপি সারের দাম কমানোয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান ১৪ দল নেতারা।

সভায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, গণতন্ত্রী পার্টির সভাপতি ডা. শাহাদাৎ হোসেন, তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারি, সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া প্রমুখ।

Leave a Reply