‘রুম্পার সঙ্গে সিদ্ধেশ্বরীর সেই ভবনে ঢুকেছিল তার প্রেমিক’

‘রুম্পার সঙ্গে সিদ্ধেশ্বরীর সেই ভবনে ঢুকেছিল তার প্রেমিক’

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পাকে ‘ধর্ষণের পর হত্যা’র সঙ্গে তার সাবেক প্রেমিক সৈকতের যোগসূত্র খুঁজে পেয়েছে পুলিশ। ঘটনার দিন রুম্পার সাথে সিদ্ধেশ্বরীর সেই ভবনটিতে তাকে ঢুকতে দেখা গেছে বলে জানায় পুলিশ। সিসিটিভি ফুটেজ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটকের পর আজ রবিবার সৈকতকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

জানা যায়, বেশ কয়েক মাস ধরেই প্রেমিক সৈকতের সঙ্গে মনোমালিন্য চলছিলো স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী রুম্পার। বিভিন্নভাবে তাকে এড়িয়ে চলতো সৈকত। ঘটনার দিন তিনি রুম্পার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এরপর তারা সিদ্ধেশ্বরীর ৬৪/৪ নম্বর বাসায় দেখা করার সিদ্ধান্ত নেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে ঘটনার দিন গত ৪ নভেম্বর সন্ধ্যার দিকে সৈকতসহ রুম্পা ওই ভবনে প্রবেশ করেন।

ঘটনা তদন্তে রুম্পার মোবাইল ফোনের কললিস্ট বিশ্লেষণ করা হচ্ছে বলেও জানান গোয়েন্দারা। তবে মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। চিকিসকদের ধারণা রুম্পাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

৪ ডিসেম্বর, বুধবার রাত পৌনে ১১টার দিকে সিদ্ধেশ্বরী সার্কুলার রোডের আয়েশা শপিং কমপ্লেক্সের পেছনের দুই ভবনের মাঝে রুম্পার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

Leave a Reply