আগুন সন্ত্রাসীদের কেউ রাষ্ট্র ক্ষমতায় দেখতে চায় না

আগুন সন্ত্রাসীদের কেউ রাষ্ট্র ক্ষমতায় দেখতে চায় না

একাত্তরের ঘাতকদের দোসর আর অগ্নি সন্ত্রাসীদের নতুন করে আর কেউ ক্ষমতায দেখতে চায় না বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

আজ শনিবার সকালে সাভারে পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্রের (সিআরপি) ৪০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘বিগত ৪০ বছর যাবত সিআরপি এর মতো একটি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সেবায় অনন্য ভূমিকা পালন করে আসছে। সিআরপি এর পথচলায় বর্তমান সরকার আপনাদের পাশে ছিল এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। আমরা আশা করি সিআরপির মূল্যবোধসমূহ ব্যক্তিগতভাবে ধারন করতে পারলেই প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রতি আমাদের মনোভাব পরিবর্তিত হবে। সিআরপি থেকে দূরে থাকলেও আমিই সবসময় অনুভব করি আমি সিআরপি।’

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমাদের সমাজে ভালো ও মন্দকে এক করে দেখার একটা প্রবণতা আছে। যা ঠিক নয়। অন্যায়কারী আর অন্যায়ের শিকার দু’জন এক নয়। কাজেই যারা বোমা ও পেট্রোল বোমা মেরে আগুন দিয়ে মানুষকে হত্যা ও চিরজীবনের জন্য পঙ্গু করে আর যিনি (প্রধানমন্ত্রী) নিজের পরিবারের সদস্যদের জন্মদিন পালন করেন প্রতিবন্ধী শিশুদের নিয়ে। এই দুই পক্ষ কখনোই এক হতে পারে না। তাই একাত্তরে এসব ঘাতকদের দোসর আর অগ্নি সন্ত্রাসীদের কেউ রাষ্ট্র ক্ষমতায় দেখতে চায় না।’

পরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের যে অভিযোগ উঠেছে তা যাচাই করা হচ্ছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে মাসের পর মাস এ ধরণের আন্দোলন সঠিক নয় বলেও জানান তিনি। এরপর তিনি সিআরপির প্রতিবন্ধী শিশুদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।

সিআরপির একীভূত বিদ্যালয়ের বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশু ও স্বাভাবিক শিশুদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। ট্রাস্ট ফর দ্যা রিহ্যাবিলিটেশন অফ দ্যা প্যারালাইজড (টিআরপি) এর চেয়ারম্যান সাইদুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিআরপির প্রতিষ্ঠাতা ভ্যালেরি এ টেইলর। ভ্যালেরি তার বক্তব্যে বাংলাদেশে তার অবস্থানের অর্ধশত বছর এর অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন। বাংলাদেশের প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় ও পক্ষাঘাতগ্রস্ত ব্যক্তিদের পুনর্বাসন সেবায় সিআরপির রুপকল্প বাস্তবায়নে ভ্যালেরির সংগ্রাম ও সাফল্যের চিত্র ফুটে ওঠে তার অভিজ্ঞতা বর্ণনার মাধ্যমে।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক গাজী মো. নুরুল কবির, নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্টের চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ডা. গোলাম রব্বানী ও লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের এনডিসি রাকিব হোসেন। এ ছাড়াও সিআরপির সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী, চিকিৎসাসেবা গ্রহণকারী প্রতিবন্ধী মানুষ ও আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান শেষে সিআরপির প্রতিবন্ধী কর্মী ও শিশুদের চিত্রকর্ম অতিথিদের হাতে উপহার হিসেবে তুলে দেন শিল্পীরা। এ ছাড়া প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ারও বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্যায়ে বিকালে সিআরপির স্বেচ্ছাসেবী ও প্রাক্তন রোগীদের প্রীতি টেবিল টেনিস ম্যাচ ও পুরস্কার বিতরণী এবং সন্ধ্যায় রবির সৌজন্যে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিনের আয়োজন শেষ হয়।

Leave a Reply