রুম্পার হত্যারহস্যের কূলকিনারা করতে পারছে না পুলিশ

রুম্পার হত্যারহস্যের কূলকিনারা করতে পারছে না পুলিশ

মৃত্যুর দুই দিন পরও স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার হত্যারহস্যের কূলকিনারা করতে পারেনি পুলিশ। এখনও কাউকে গ্রেপ্তারও করতে পারেনি তারা। এদিকে, হত্যাকাণ্ডকে পূর্বপরিকল্পিত মনে করে রুম্পার বন্ধুদের অভিযোগের তীর, তার সাবেক প্রেমিকের দিকে।

মুঠোফোনে রুম্পার প্রেমিক জানান, ঘটনার দিনও রুম্পা তার সাথে দেখা করতে আসে। দুজনের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ কথাবার্তা হওয়ার কথাও জানান তিনি।

তিনি বলেন, ৪ তারিখ আমাদের এক বন্ধুর জন্মদিন ছিলো। একই বিশ্ববিদ্যালয়ের হওয়ায় আমিও সেখানে যাই।

সিদ্ধেশ্বরী রোডের যে ভবনের নিচ থেকে বুধবার রাতে রুম্পার লাশ উদ্ধার করা হয়, জানা গেছে ভবনটির নিচতলা ও তৃতীয় তলায় ব্যাচেলর হিসেবে থাকেন স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও সাবেক বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী। যদিও একজন বাদে কেউই ক্যামেরার সামনে কথা বলতে চাননি। রুম্পার সাবেক প্রেমিককে চিনলেও রুম্পাকে চেনেন না বলে দাবি তার। তিনি বলেন, ব্যক্তিগত ভাবে আমি তাকে চিনিনা।

বাড়ির মালিক এ বিষয়ে জানান, ঘটনার দিনের সিটিটিভি ফুটেজ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আসলে ফুটেজগুলো আমাদের বাসার নয়। পাশের বাসার ক্যামেরা থেকে নেয়া। এটা পুলিশ চেয়েছিলো। আমরা তাদের দিয়ে দিয়েছি।

এদিকে যেখানে রুম্পার লাশ পাওয়া গেছে ঠিক তার বিপরীতে থাকা ভবনটিতে রয়েছে একটি ছাত্রী হোস্টেল। সেখানেও স্ট্যামফোর্ডের বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী থাকেন। তাদের সাথে কথা বলতে গেলে বাধা দেন হোস্টেলের মালিক দৃষ্টি।

এমন পরিস্থিতিতে পুলিশ বলছে ময়নাতদন্তের রিপোর্টের হাতে পাওয়ার পরই ব্যবস্থা নেবেন তারা। ডিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার বলেন, ময়নাতদন্তের পর আসলে আমরা বলতে পারবো মৃত্যুর কারণ। শিগগিরই রুম্পা হত্যারহস্য উদঘাটন হবে বলেও আশা করছেন তারা।

Leave a Reply