রায়ের অপেক্ষায় আদালতে ওসি মোয়াজ্জেম

রায়ের অপেক্ষায় আদালতে ওসি মোয়াজ্জেম

সোনাগাজী মডেল থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনকে আদালতে হাজির করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে কাশিমপুর কারাগার থেকে প্রিজনভ্যানে করে তাকে ঢাকা মহানগর আদালতে হাজির করে পুলিশ। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাঁকে মহানগর আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে রায় ঘোষণার সময় তাকে সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে উঠানো হবে। ফেনীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির বক্তব্য ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে মামলার রায় দেওয়া হবে আজ। এটা বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলার প্রথম রায়।

গত ২০ নভেম্বর রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ২৮ নভেম্বর দিন ধার্য করেন বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আস-শামস জগলুল হোসেন। এ মামলায় ১২ জন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দেন।

চলতি বছরের গত ২৭ মার্চ নুসরাত জাহান রাফিকে শ্রেণিকক্ষে নিয়ে যৌন নিপীড়ন করেন মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলা। এমন অভিযোগ উঠলে দুজনকে থানায় নিয়ে যান ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন। এ সময় ওসি নিয়ম ভেঙে জেরা করেন এবং নুসরাতের বক্তব্য ভিডিও করেন।

মামলায় অভিযোগে বলা হয়, ওসি মোয়াজ্জেম অনুমতি ছাড়া নিয়মবহির্ভূতভাবে নুসরাতকে জেরা এবং তা ভিডিও করেন। পরে ওই ভিডিও ফেসবুক ও ইউটিউবসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে দেন তিনি।

ভিডিওতে আরও দেখা যায়, ওসি মোয়াজ্জেম অত্যন্ত অপমানজনক ও আপত্তিকর ভাষায় নুসরাতকে একের পর এক প্রশ্ন করে যাচ্ছেন। নুসরাতের বুকে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানি করা হয়েছে কি না, এমন প্রশ্নও করতে শোনা যায় ওসি মোয়াজ্জেমকে।

Leave a Reply