ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের এনআরসি আতঙ্ক

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের এনআরসি আতঙ্ক

ভারতের লোকসভার কংগ্রেস দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরীর সুরে কথা বললেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী এবং বিজেপির নেতা বিপ্লব দেব। তিনি বলেছেন, আমার বাবা, আত্মীয়রা বাংলাদেশ থেকে এসেছেন। ত্রিপুরায় এনআরসি চালু হলে সবচেয়ে বড় ক্ষতি হবে আমার। মুখ্যমন্ত্রী পদ চলে যাবে।

গত কয়েক মাস আগে আসামের নাগরিক তালিকার হাওয়া নিয়ে লোকসভার কংগ্রেস দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেছিলেন, আমার বাবাও বাংলাদেশের লোক ছিলেন। সেই হিসেবে তো আমিও বহিরাগত। আমাকেও বের করে দিক।

তিনি আরো বলেছিলেন, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ব্যর্থ হয়েছেন সঠিক তালিকা তৈরি করতে। অন্যদিকে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের এই মন্তব্য প্রকাশ্যে আসার পর কেউ কেউ তাকে নাগরিকত্ববিলের কথা মনে করিয়ে দিচ্ছেন, যেখানে বলা আছে হিন্দু শরণার্থীরা ভারতের নাগরিকত্ব পাবেন।

জানা গেছে, পশ্চিমবঙ্গের উপ-নির্বাচনের প্রচারণায় গিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি সেখানে বলেন, আমার বাবা, আত্মীয়রা বাংলাদেশ থেকে এসেছেন। আমি পরে ত্রিপুরা জন্মগ্রহণ করি। তাই এনআরসি হলে কেউ যদি সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তবে সেটা আমি হব। কারণ মুখ্যমন্ত্রীর পদ চলে যাবে। আমি কি বোকা যে নিজের মুখ্যমন্ত্রীর পদ হারিয়ে এনআরসি চালু করব?

অন্যদিকে, বিপ্লব দেবের মিডিয়া পরামর্শ দাতা অবশ্য অন্য কথা বলছেন। তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী বলতে চেয়েছেন, এনআরসি বা নাগরিকত্ব বিল ভারতীয়দের রক্ষার্থে ব্যবহার করা হবে, অনুপ্রবেশকারীদের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য।

Leave a Reply