রাজস্থানে হাজার হাজার পরিযায়ী পাখির মৃত্যু

রাজস্থানে হাজার হাজার পরিযায়ী পাখির মৃত্যু

ভারতের রাজস্থানের সম্ভর হ্রদ এবং সংলগ্ন এলাকায় পাখিদের মৃত্যুর মিছিল এখনো চলছে। এক সপ্তাহে ভারতীয় এবং পরিযায়ী মিলিয়ে সেখানে মৃত পাখির সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে। একসঙ্গে বিপুল সংখ্যক পাখির মৃত্যুর সঠিক কারণ এখনো অজানা।

তবে এভিয়ান বচুলিজম রোগে আক্রান্ত হয়ে পাখিগুলোর মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তের পর ধারণা করছে বন দপ্তর। বিষাক্ত খাবার পেটে গেলে পাখিরা এই রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়।

অনেকের দাবি, নোনাজল অতিরিক্ত দূষিত হওয়ার জেরে পাখিগুলো মারা যাচ্ছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে কিছুই জানা যায়নি। অন্য পাখির শরীরে এই রোগ যেন বাসা বাঁধতে না পারে, সেজন্য পাখিদের মরদেহ সরিয়ে ফেলা হচ্ছে।

গত সোমবার থেকে পাখিদের এই মৃত্যুর মিছিল শুরু হয়। প্রথমে সেখান থেকে ৭১৬টি মৃত পাখি উদ্ধার করা হয়। পরদিন হ্রদের নোনা পানি থেকে উদ্ধার করা হয় ১৬২২টি মরা পাখি। এর পর বুধ, বৃহস্পতি এবং শুক্রবার যথাক্রমে ১৯২২, ৫৪০ এবং ৩২৬৫টি মৃত পাখি উদ্ধার হয়। শনিবারও বহু পাখির মৃতদেহ উদ্ধার হয় বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে শোভেলার, রাডি শেলডাক, প্লোভার্স, অ্যাভোচেটজ, ব্ল্যাকউইং-সহ নানা প্রজাতির পাখি রয়েছে। শীতের শুরুতে খাবারের খোঁজে প্রতি বছরই সম্ভর হ্রদে আসে কয়েক লাখ পাখি। কিন্তু এর আগে এমন ঘটনা ঘটেনি সেখানে।

এ ঘটনার জন্য রাজ্য প্রশাসনকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাদের মতে, প্রথম দু’দিন বিষয়টি নিয়ে কোনো হেলদোলই দেখায়নি রাজ্য প্রশাসন। পরে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী পাঠালেও, তাদের উপস্থিতিতেই শুক্রবার পাখির মৃত্যুসংখ্যা একলাফে অনেকটাই বেড়ে যায়।

সরকারি হিসেবে মৃত পাখির যে সংখ্যা দেখানো হচ্ছে, আসলে সংখ্যাটা তার চেয়ে বেশি বলেও দাবি করেছেন অনেকে। সমালোচনার মুখে পড়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত।

Leave a Reply