লন্ডনে পেঁয়াজের কেজি ৩৫ টাকা, বার্লিনে ৯!

লন্ডনে পেঁয়াজের কেজি ৩৫ টাকা, বার্লিনে ৯!

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে পেঁয়াজের বাজারে অস্থিরতা চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ২০০ টাকার ওপরে উঠে গেছে। গত বুধবারও ঢাকার পাড়া-মহল্লার বাজার ও মুদি দোকানগুলোতে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ১৭০ টাকা থেকে ১৮০ টাকায় বিক্রি হলেও বৃহস্পতিবার কোথাও কোথাও তা ২০০-২২০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার পরিদর্শনে গিয়ে এমন দৃশ্যের দেখা মিলেছে।

ওদিকে যুক্তরাজ্যের লন্ডন থেকে বাংলাদেশি সাংবাদিক সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দাম যখন কেজি প্রতি ২০০ থেকে ২২০ টাকায় দাঁড়িয়েছে তখনই লন্ডনের বাজারে পেঁয়াজের খুচরা মূল্য ছিলো প্রতি কেজি বাংলাদেশি টাকায় ৫৫ টাকা করে। আবার বড় বড় গ্রোসারি শপে ২৫ কেজি পেঁয়াজের বস্তার দাম ছিলো ৮ পাউন্ড, যা কেজি দরে হিসাব করলে ৩২ পেন্স দাম হয়। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রতি কেজিতে ৩৫ টাকা করে পড়ে।

বৃহস্পতিবার সকালে তাই লন্ডনের বাংলাদেশি অধ্যুষিত হোয়াইটচ্যাপেল এলাকায় পেঁয়াজের দাম নিয়ে কেউ কেউ রসিকতায়ও মেতে উঠেছিলেন, অনেকেই আবার বিরক্তি প্রকাশ করেছিলেন। বাংলাদেশের লক্ষাধিক পরিবার ব্রিটেন প্রবাসীদের পাঠানো টাকার উপর নির্ভরশীল। আর বাংলাদেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম উঠা নামার উপর প্রবাসীদের জীবনযাত্রাও অনেকটাই নির্ভর করে। কেননা বাংলাদেশে থাকা পরিবারের খরচ মেটাতে গিয়ে প্রবাসীদের নিজেদের খরচ কমাতে হয়।

ওদিকে ইউরোপের আরেক দেশ জার্মানির বার্লিন শহরেও খুবই কম দামে পেঁয়াজ বিক্রি হতে দেখা গেছে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে। সেখানে দেখা গেছে একটি সুপার স্টোরে পাঁচ কেজি পেঁয়াজের দাম মাত্র ০.৯৯ ইউরো (বাংলাদেশি ৯২.২৫ টাকা) ধরা হয়েছে। তবে তা ৫০% ছাড়ে বিক্রি হচ্ছে। সে হিসাবে বাংলাদেশি টাকায় পাঁচ কেজি পেঁয়াজের দাম পড়ছে ৪৬ টাকা। অর্থাৎ এক কেজি পেঁয়াজের দাম পড়ছে ৯ টাকা ২০ পয়সা!

‘ছড়িয়ে দিন জীবনের সব রঙ’ নামের একটি ফেসবুক পেজে ওই ভিডিওটি শেয়ার করার পর তা ছড়িয়ে পড়ে। ‘পিয়াজ নিয়ে হক কথা, বার্লিন, জার্মানি। ১০/১১/২০১৯’ শিরোনামে ভিডিওটি পোস্ট করা হয় ওই পেজে।

ভিডিওতে এক প্রবাসী বাংলাদেশি বার্লিন শহরের একটি বাজারের সুপার শপে পেঁয়াজ কত টাকায় বিক্রি হচ্ছে তার বর্ণনা দিচ্ছিলেন।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, দেশের বাজারে পেঁয়াজের সরবরাহে কিছুটা ঘাটতি থাকায় এর অপব্যবহার করছেন সুযোগসন্ধানী কিছু ব্যবসায়ী। কয়েকদিন আগে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে আমদানি করা পেঁয়াজ সরবরাহে সমস্যা হয়েছে। আর সেই কারণেই এখন বাজারের এই পরিস্থিতি।

সর্বশেষ পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলকে ঘিরে। গত শনিবার বুলবুল আঘাত হানার একদিন আগে থেকে নতুন করে বাড়তে থাকে দাম। তার আগে খুচরায় পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ১১০ থেকে ১২০ টাকার মধ্যে ছিল। ঢাকায় পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার শ্যামবাজারেও পেঁয়াজের সরবরাহে টান পড়েছে বলে সেখানকার ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।

Leave a Reply