বউয়ের দোহায় দিয়েও ফেঁসে গেল মার্কিন নাগরিক

বউয়ের দোহায় দিয়েও ফেঁসে গেল মার্কিন নাগরিক

বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোর সময় এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয় যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়। কিন্তু ধরা পড়ার পর পুলিশের কাছে অদ্ভুত যুক্তি দেন ওই ব্যক্তি। তবে তার কথা বিশ্বাস করেনি পুলিশ।তল্লাশি চালানো হয় গাড়িতে। তার তাতেই বেরিয়ে পড়ে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোর কারণ।

ফ্লোরিডায় ‘ইউএস রুট ১৯’-এ যে জায়গায় সর্বাধিক ঘণ্টায় ৮৮ কিলোমিটার বেগে গাড়ি চালানো যায়, সেখানেই জন আর্ল পিকার্ড প্রায় ১৪৪ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীদের নজরে পড়তেই জনকে আটকান।

পুলিশ সামনে আসতেই জন বলেন, তিনি স্ত্রীর সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। আর সে কথা স্ত্রীর কাছে স্বীকার করতে চান। সে কারণে তিনি দ্রুত বাড়ি ফিরে গিয়ে স্ত্রীকে সব জানাতে চান। সেজন্য তিনি দ্রুত গাড়ি চালাচ্ছিলেন।

জন বার বার একই যুক্তি দিচ্ছিলেন। কিন্তু তার কথাবার্তা শুনে পুলিশের সন্দেহ হয়। তারা জনকে গাড়ি থেকে বের করে তল্লাশি চালান। আর তাতেই তাদের সন্দেহ প্রমাণ হয়। জনের পোশাকের মধ্যে লুকানো ছিল কোকেন। পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে তিনি দ্রুত গাড়ি চালিয়ে বাড়ি পৌঁছানোর চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না।

জনকে প্রায় দুই লাখ টাকার বন্ডের বদলে আপাতত জেল থেকে ছাড়া হয়েছে। তবে মামলা চলবে। তার বিরুদ্ধে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো ও মাদক রাখার অভিযোগ আনা হয়েছে। আগামী পাঁচ ডিসেম্বর তাকে আবারো আদালতে হাজিরা দিতে হবে।

Leave a Reply