আমি ক্ষমা চাচ্ছি : রাঙ্গা

আমি ক্ষমা চাচ্ছি : রাঙ্গা

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শহীদ নূর হোসেন নিয়ে বেফাঁস মন্তব্যের জন্য সংসদে দাঁড়িয়ে ক্ষমা চাইলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা। তিনি বলেছেন, আমি ক্ষমা চাচ্ছি। আমার কলিগরা আমার এটা শুনে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আর প্রধানমন্ত্রী আমাকে প্রতিমন্ত্রী বানিয়েছেন, হয়তো আমার দল ক্ষমতায় থাকলেও মন্ত্রী হতে পারতাম না।

আজ বুধবার রাতে সংসদ অধিবেশনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে কার্যপ্রণালী বিধির ২৭৪ বিধিতে ব্যক্তিগত কৈফিয়ত সম্পর্কিত ধারায় তিনি একথাগুলো বলেন।

মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, গত ১০ নভেম্বর জাতীয় পার্টির অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র দিবস পালন নিয়ে একটি সভা ছিল, ছোট্ট পরিসরে। মাইক বাইরে ছিল না, ভেতরে সাউন্ডবক্সের মধ্যে আমরা কথা বলেছি। নূর হোসেন দিবসও একই দিন ছিল। আমাদের ওখানে পুরান ঢাকা থেকে তখন কিছু লোক আসছিল নূর হোসেন চত্ত্বরে ওখানেই এরশাদ সাহেবকে গালাগালি করে এরশাদের দুই গালে জুতা মার তালে তালে এইভাবে কিছু কথা বার্তা শোনার পরে, ওনারা আমাদের অফিসে এসে বলেন। আমি দলের মহাসচিব হিসেবে ওনাদের শান্ত থাকতে বলি। কিন্তু তারা এ সময় হৈ চৈ করেন।

তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমাদের সিনিয়র মন্ত্রীগণ আমার সম্পর্কে যেভাবে কথা বলেছেন, ওনাদের কথাগুলোকে আমি মনে করছি ওনারা আমাকে শাসন করেছেন। আমি ভুল করেছি একটা। ভুল করার জন্য তার পরিবারকে অর্থাৎ নূর হোসেনের পরিবারের কাছে আমি ক্ষমা প্রার্থনা করেছি এবং বিবৃতিও পর্যন্ত দিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, আমি জাতির জনক সম্পর্কে মূলত এই সংসদে প্রথম দিন প্রথম পার্লামেন্টে ৩৭টি প্রশ্নের উত্তর দিয়েছিলাম। তখন সৈয়দ আশরাফ সাহেব ছিলেন। তার পক্ষে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে এখানে দাঁড়িয়ে ৩৭টি প্রশ্নের উত্তর দিয়েছিলাম, অজস্রবার জয়বাংলা বলেছি, অজস্রবার আমি জাতির পিতা সম্পর্কে বলেছি। সুতরাং জাতির পিতা নিয়ে যদি আমার কোনো রকম কোন কিছু ভুল বলে থাকি সেজন্য আমি ক্ষমা চাচ্ছি। নিঃশর্ত ক্ষমা চাচ্ছি। এ সময় পেছন থেকে সরকারি দলের সদস্য মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী বলেন এই রাঙ্গা চোরা।

Leave a Reply