অত্যাচারের হাত থেকে রক্ষা পেতে ছেলেকে জ্যান্ত পোড়ালেন মা-বাবা

অত্যাচারের হাত থেকে রক্ষা পেতে ছেলেকে জ্যান্ত পোড়ালেন মা-বাবা

পারিবারিক সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে মা-বাবার ওপর নির্যাতন চালাতো ছেলে। সেই নির্যাতন সইতে না-পেরে, ছেলেকে জ্যান্ত পুড়িয়ে মারলেন মা-বাবা। ছেলেটির বয়স ৪২ বছর। মঙ্গলবার এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের তেলেঙ্গানার ওয়ারঙ্গলে (গ্রামীণ) জেলায়।

পুলিশ বলছে, মৃত কাদারি মহেশ চন্দ্র ছিল অ্যালকোহলিক। রোজ মদ গিলে এসে, মা-বাবাকে ধরে সে পেটাত। অভিযুক্ত দম্পতির নাম কে প্রভাকর ও তাঁর স্ত্রী বিমলা।

পুলিশ সাব-ইনস্পেক্টর ভাস্কর রেড্ডি জানান, চন্দ্র মজুরের কাজ করতেন। সম্পত্তি লিখিয়ে নিতে ইদানীং মা-বাবাকে মারধর শুরু করেছিল সে। প্রত্যেকদিন মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফিরে সে মা-বাবাকে ধরে পেটাত। মারের হাত থেকে নিস্তার পেতেন না চন্দ্রের স্ত্রী-সন্তানও। বাধ্য হয়ে দুই সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়িতে চলে যান চন্দ্রের স্ত্রী।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার সন্ধে ৭টা নাগাদ চন্দ্র রোজের মতোই মত্ত হয়ে বাড়ি ফিরে অশান্তি শুরু করলে, চূড়ান্ত হতাশ ওই দম্পতি ছেলের হাত-পা বেঁধে, গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেন। কয়েক মিনিটের মধ্যে, মা-বাবার চোখের সামনে মৃত্যু হয় ছেলের।

পুলিশ ওই দম্পতিকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে। চন্দ্রের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে হাসপাতালে।

Leave a Reply