যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সংলাপের সম্ভাবনা আবারও নাকচ করল ইরান

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সংলাপের সম্ভাবনা আবারও নাকচ করল ইরান

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা করে কোনো লাভ নেই। কারণ এটা নিশ্চিত যে তারা কোনো ধরণের সুবিধা দেবে না। ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি এ কথা বলেছেন।

গতকাল রবিবার বিশ্ব সাম্রাজ্যবাদবিরোধী দিবসকে সামনে রেখে তিনি তেহরানে হাজারো ছাত্র-ছাত্রীর এক সমাবেশে এ কথা বলেন।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র তাদের সঙ্গে ইসলামি ইরানের আলোচনায় বসাকে তাদের কাছে নতিস্বীকার বলে মনে করে। যুক্তরাষ্ট্র আলোচনার ওপর জোর দিচ্ছে এই লক্ষ্য নিয়ে যে তারা যাতে বিশ্ববাসীকে বলতে পারে মার্কিন সর্বোচ্চ চাপ ও নিষেধাজ্ঞা কাজে এসেছে এবং ইরানিরা মাথা নত করেছে।

তিনি বলেন, মার্কিন শাসকদের ষড়যন্ত্রের মোকাবেলায় সবচেয়ে বড় জবাব হচ্ছে ইরানের রাজনীতিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাব বিস্তারের পথ বন্ধ করে দেওয়া। আর ইরানের ওপর মার্কিন আধিপত্য বিস্তারের সুযোগ বন্ধের একটি উপায় হচ্ছে তাদের সঙ্গে আলোচনায় না বসা।

আয়াতুল্লাহ খামেনি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কিউবা ও উত্তর কোরিয়ার নিষ্ফল আলোচনার প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, এসব ঘটনা থেকে শিক্ষা নিতে হবে। যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার কর্মকর্তারা এমন অবস্থায় চলে গিয়েছিলেন যে, তারা যেন একে অপরের জন্য জান কুরবান করে দেবেন। কিন্তু অবশেষে আমেরিকা তার নিয়ম অনুযায়ী নিষেধাজ্ঞা তিল পরিমাণ কমায় নি এবং কোনো ধরণের ছাড় দেয় নি।

ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে মধ্যস্থতার জন্য ফরাসি প্রেসিডেন্টের ব্যাপক চেষ্টার প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ট্রাম্পের সঙ্গে একবারের সাক্ষাতকেই ইরানের সব সমস্যার সমাধান হিসেবে তুলে ধরেছিলেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট। তার এই অবস্থানের বিষয়ে অবশ্যই বলব তিনি হয় খুব সাদাসিধে মানুষ, আর না হয় যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগী।

ইরানের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের চাওয়ার শেষ কোথায়-এমন প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের চাওয়ার কোনো শেষ নেই।

তিনি বলেন, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র শক্তিকে ধ্বংস অথবা সীমিত করার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছে আমেরিকা এবং বর্তমানে সাহসী ইরানি জাতির কাছে দুই হাজার কিলোমিটার পাল্লার নিখুঁত ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে যা যেকোনো লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে।#

সূত্র : পার্সটুডে

Leave a Reply