অধিনায়কত্ব হারালেন সরফরাজ

অধিনায়কত্ব হারালেন সরফরাজ

বিশ্বকাপের পর থেকেই পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্বে পরিবর্তন নিয়ে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল। তবে শ্রীলঙ্কা সিরিজে সরফরাজ আহমেদের ওপর আস্থা রাখা হলেও অধিনায়কত্ব আর টিকিয়ে রাখতে পারলেন না পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান।

পাকিস্তানের অধিনায়কত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে সরফরাজ আহমেদকে। টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি এই তিন ফরম্যাটের অধিনায়কত্বই হারিয়েছেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। তিন বছর পর পাকিস্তানের সব সংস্করণের অধিনায়কত্বে পরিবর্তনের মাধ্যমে ক্রিকেটে বড় ধরনের পরিবর্তন আনা হলো।

সম্প্রতি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতলেও টি-টোয়েন্টি সিরিজে ‘হোয়াইটওয়াশ’ হয় পাকিস্তান। বেশ কিছুদিন ধরেই পাকিস্তানের কোচ ও প্রধান নির্বাচক মিসবাহ-উল-হক অধিনায়কত্বের দায়িত্বটা সরফরাজ আহমেদের হাত থেকে নিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দল বাজে করার ফলে সে সুযোগটা পেয়ে গেলেন। পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খানের কাছে গিয়েও সরফরাজের প্রতি নিজের অসন্তুষ্টির কথা জানিয়ে এসেছিলেন মিসবাহ।

সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার গুণটা নাকি সরফরাজের একদমই নেই। শেষমেশ মিসবাহর কথাই শুনল পাকিস্তান। শুধু অধিনায়কত্ব থেকেই নয়, সরফরাজকে একদম দল থেকেই বাদ দেওয়া হয়েছে। আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সিরিজে পাকিস্তান দলে নেই সরফরাজ।

প্রতি ফরম্যাটে আলাদা আলাদা অধিনায়ক নিয়োগ দিচ্ছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। ওপেনার আজহার আলী টেস্টে পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দেওয়ার দায়িত্ব পেয়েছেন আবারও। টেস্টের সহ-অধিনায়ক হতে পারেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ান। ওদিকে পাকিস্তানের সেরা ব্যাটসম্যান বাবব আজম পেয়েছেন টি-টোয়েন্টির দায়িত্ব। ওয়ানডের অধিনায়ক কে হবেন, এখনো জানানো হয়নি। অনুমান করা হচ্ছে, এ দায়িত্ব পেতে পারেন অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার ৩৯ বছর বয়সী মোহাম্মদ হাফিজ।

Leave a Reply