জেরুজালেমের গভর্নরকে ধরে নিয়ে গেছে ইসরায়েলি পুলিশ

জেরুজালেমের গভর্নরকে ধরে নিয়ে গেছে ইসরায়েলি পুলিশ

ফিলিস্তিনের জেরুজালেমের গভর্নর আদনান গাইথকে সিলওয়ান এলাকার নিজ বাড়ি থেকে সোমবার সকালে আটক করেছে ইসরায়েলি পুলিশ। এসময় গভর্নরের বাড়ির আশপাশের সড়কগুলোও নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয় ইসরায়েলি পুলিশ। একইদিনে ফিলিস্তিনের স্বাধিকার আন্দোলনকারী সংগঠন ফাতাহ-এর জেরুজালেমের সেক্রেটারি জেনারেল শাদি মুতিউরের বাসায়ও অভিযান চালিয়েছে ইসরায়েলি পুলিশ।

আজ প্যালেস্টাইন প্রিজনার্স সোসাইটির এক বিবৃতিতে এ খবর জানানো হয়েছে। তবে কী কারণে জেরুজালেমের গভর্নরকে আটক করা হয়েছে তা জানা যায় নি। এ ব্যাপারে ইসরায়েলি পুলিশের পক্ষ থেকেও আনুষ্ঠানিক ভাবে কোনো বিবৃতি দেওয়া হয় নি।

এদিকে, মুসলমানদের কাছে পবিত্র মসজিদ হিসেবে পরিচিত জেরুজালেমের ‘আল-আকসা’তে শীঘ্রই ইহুদিদের প্রার্থনার অনুমতি দিতে যাচ্ছে ইসরায়েল। ইসরায়েলের জননিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী গিলাদ এরদান’র বরাত দিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য মিডল ইস্ট মনিটর।

এ বিষয়ে জননিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী গিলাদ এরদান বলেছেন, আল-আকসা মসজিদে শিগগিরই ইহুদিদের প্রার্থনার অনুমতি দেওয়া হবে। মন্ত্রী আরও জানান, জেরুজালেমের পরিস্থিতি স্থানটির নিয়ন্ত্রণ ও সার্বভৌম ক্ষমতা অর্জনের দিকে যাচ্ছে। আমরা যখন আমাদের লক্ষ্যে (ইহুদিদের জন্য আল-আকসার দরজা খোলা) পৌঁছাব, তখন টেম্পল মাউন্টে প্রবেশ করে তারা তাদের প্রার্থনা করতে পারবে। আমি আশা করছি, এটি শিগগিরই ঘটবে।’

এরদান আরও বলেন, যখন আমরা এই পর্যায়ে পৌঁছাব তখন ইসরায়েলের আন্তর্জাতিক স্বার্থের আলোকে জেরুজালেমের ঐতিহাসিক অবস্থানের স্থিতাবস্থা পরিবর্তনের জন্য কাজ করব আমরা।

ইসরায়েলের ওই মন্ত্রী বলেন, ‘আমি আগাম বলতে পারি না যে, ঠিক কখন এটি ঘটবে। কারণ এটা আমাদের শক্তির সঙ্গে সম্পর্কিত নয়। আমি আশা করি এটা আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ঘটবে। তবে তা এক দশকের বেশি নয়।’

১৯৬৭ সালের আরব যুদ্ধের পর থেকে ইসরায়েল পূর্ব জেরুজালেম দখল করে রেখেছে। জেরুজালেমকে নিজেদের অবিভাজ্য রাজধানী বলে দাবি করে থাকে ইসরায়েল। অবশ্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় পূর্ব জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি। মুসলিমদের প্রথম কিবলা ছিল আল-আকসা।

Leave a Reply