ডেঙ্গু নিয়ে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে আছি : মেয়র আতিক

ডেঙ্গু নিয়ে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে আছি : মেয়র আতিক

ডেঙ্গু নিয়ে আমরা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে আছি বলে উল্লেখ করে করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, কীভাবে ডেঙ্গু নির্মূল করা যায় এজন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।
আজ শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) প্রথম বিজনেস লিডার্স কার্নিভাল-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা করেন।
এসময় ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ঢাকা শহরকে একটি পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। এজন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। আমি সবাইকে বলবো ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে এদেশ স্বাধীন হয়েছে। এদেশের একটি ময়লা কাগজও যাতে আমরা মাটিতে না ফেলি, এটাই হোক আজকের কার্নিভালে আমাদের অঙ্গীকার।
তিনি আরো বলেন, দেশকে এগিয়ে নিতে মানবসম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার করতে হবে। আর এটি করতে না পারলে বিশ্বের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় আমরা পিছিয়ে পড়বো। এজন্য আমাদের চতুর্থ শিল্প বিপ্লব করতে হবে বলে তিনি জানান।
সোসাইটি ফর লিডারশিপ স্কিলস ডেভেলপমেন্ট (এসএলএসডি) ও এএন অ্যাফেয়ার্স যৌথভাবে কার্নিভালের আয়োজন করেছে।
অনুষ্ঠানে এসএলএসডির প্রধান নির্বাহী অধ্যাপক মঈনুদ্দিন চৌধুরী বলেন, এই অনুষ্ঠানটি পাঁচটি লক্ষ্যকে সামনে রেখে করা হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে- শিক্ষা-বিনোদন ও নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ব্যবসায়িক জ্ঞান সম্প্রসারণ করা, ব্যবসায় নারী নেতৃত্ব উৎসাহিত করা, পরবর্তী প্রজন্মের ব্যবসায়িক নেতৃত্বের মাঝে সৃজনশীলতা তৈরি করা, ব্যবসায়িক সমাজকে সঠিকভাবে করপোরেট সোশ্যাল রেসপন্সবিলিটির ব্যাপারে আরো সচেতন করা এবং বাংলাদেশের ব্যবসায়িক সমাজকে ৪র্থ/৫ম শিল্প বিপ্লব মোকাবিলায় প্রস্তুত করা।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন লে. জেনারেল (অব.) মো. মঈনুল ইসলাম, গ্রুপ ক্যাপ্টেন (অব.) এম হাসিবুল হাসান, কার্নিভালের আহ্বায়ক কমিটির প্রধান ফেডারেশন অব বাংলাদেশ হিউম্যান রিসোর্স অরগানাইজেশন্স (এফবিএইচআরও) এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মো. মোশারফ হোসেন, ট্রেডিং কোম্পানির সিইও হাসান জাভেদ চৌধুরী, উইমেন এন্টারপ্রেনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নীলুফার করিম ও এসএলএসডির মহাসচিব ব্যারিস্টার আহমেদ আল ফারাবী।
কার্নিভালের মূল উদ্যোক্তা ও সোসাইটি ফর লিডারশিপ স্কিলস ডেভেলপমেন্ট (এসএলএসডি) এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও প্রধান নির্বাহী অধ্যাপক মঈনুদ্দিন চৌধুরী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, পেশাজীবী, শিক্ষাবিদ, ব্যবসায়ী, শিল্পপতি, মিডিয়া ব্যক্তিত্বসহ বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply