জাতিসংঘে শেখ হাসিনার ভাষণ ২৭ সেপ্টেম্বর

জাতিসংঘে শেখ হাসিনার ভাষণ ২৭ সেপ্টেম্বর

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন ২৭ সেপ্টেম্বর। জাতিসংঘ সদর দফতরের কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর পরদিন ২৮ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ১১টায় বাংলাদেশ মিশনে বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিলিত হবেন গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে। এদিন দুপুরে টাইমস স্কোয়ার সংলগ্ন ম্যারিয়ট মারক্যুইস হোটেলের বলরুমে নাগরিক সংবর্ধনা সমাবেশে ভাষণ দেয়ার কথা তার।

উল্লেখ্য, ২৮ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন, সে আলোকেই সবকিছু সাজানো হচ্ছে বলে জানান সংবর্ধনা সমাবেশের আয়োজকরা।

কূটনৈতিক সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, জাতিসংঘের ৭৪তম সাধারণ অধিবেশনে যোগদানের জন্যে ২২ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে আসবেন শেখ হাসিনা। এটি হবে তার ১৬তম ভাষণ এবং যথারীতি বাংলায় তা উপস্থাপন করবেন। এবারের ভাষণ ছাড়াও জলবায়ু, টেকসই উন্নয়ন এবং জনস্বাস্থ্য, শরণার্থী বিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনেও ভাষণ দেয়ার কথা প্রধানমন্ত্রীর।

জাতিসংঘে সমস্ত কার্যক্রমের সমন্বয় ঘটাবে বাংলাদেশ মিশন। এ নিয়ে সকলেই ব্যস্ত রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেনের নেতৃত্বে। এছাড়াও ঢাকা থেকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং নিরাপত্তা বাহিনীর লোকজন আগেই আসার কথা। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে এ মোমেনও যথারীতি আগেই নিউইয়র্কে এসে সমস্ত কর্মসূচি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলবেন বলে জানা গেছে। আরও জানা গেছে, বেশ কটি গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রের প্রধানদের সাথে শেখ হাসিনার বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। সেগুলো জাতিসংঘ এবং শেখ হাসিনার হোটেল কক্ষে হতে পারে। সফরসঙ্গীর অধিকাংশই গ্র্যান্ড হায়াতে উঠলেও প্রধানমন্ত্রীসহ তার ঘনিষ্ঠ কর্মকর্তারা থাকবেন হোটেল প্যালেসে। সেই হোটেলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, প্রধানমন্ত্রী মোদিসহ বেশ ক’টি দেশের প্রেসিডেন্ট/প্রধানমন্ত্রীরা থাকবেন।

এদিকে, দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনাকে জেএফকে এয়ারপোর্টে বিপুলভাবে অভ্যর্থনা জানানোর প্রস্তুতি চলছে আওয়ামী পরিবারে। আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে জনসংযোগ শুরু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগে সাংগঠনিক বিরোধী এবং সম্মেলনের দাবিতে পৃথক সভা-সমাবেশ হলেও শেখ হাসিনার সকল অনুষ্ঠানের প্রতি অঘোষিত ঐক্য বিরাজ করছে। এয়ারপোর্ট, জাতিসংঘের সামনে এবং নাগরিক সংবর্ধনাস্থলে সকলেই দলে দলে জড়ো হবার সংকল্প ব্যক্ত করছেন। সভাপতি ড.সিদ্দিকুর রহমানও চষে বেড়াচ্ছেন বাংলাদেশী অধ্যুষিত এলাকায়। সকলের প্রতি আহবান রাখছেন নেত্রী শেখ হাসিনার জাতিসংঘ সফরের সময় সরব থাকার জন্যে। কোনো দল যদি কোন অশুভ আচরণে প্রবৃত্ত হয়, তাহলে তা যেন নিয়মতান্ত্রিকভাবে প্রতিহত করা হয়-সে অনুরোধ জানাচ্ছেন নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী।

আওয়ামী লীগের অপর অংশের নেতৃত্বে রয়েছেন ড. প্রদীপ রঞ্জন কর, মিসবাহ আহমেদ, ফরিদ আলমসহ অনেকে। তারাও একই ভাষায় প্রবাসীদের আহবান জানাচ্ছেন সভাপতি শেখ হাসিনার জাতিসংঘ সফরকে সর্বাত্মকভাবে সফল করার জন্যে।

Leave a Reply