১২ হাজার বছরের সভ্যতা ধ্বংস হবে জেনেও বাঁধ দিচ্ছে তুরস্ক

১২ হাজার বছরের সভ্যতা ধ্বংস হবে জেনেও বাঁধ দিচ্ছে তুরস্ক

১২ হাজার বছরের ঐতিহাসিক শহর বাঁধের পানিতে তলিয়ে যেতে বসেছে। যদি টাইগ্রিস নদীর তীরে তুরস্কের হাসানকেইফ শহরের সলিল সমাধি হয়, সে ক্ষেত্রে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে কয়েক হাজার গুহা, প্রাচীন গির্জা ও সমাধি।

বিশ্বের প্রাচীনতম জীবন্ত শহর হাসানকেইফের সর্বনাশ ডেকে নিয়ে আসছে বিতর্কিত ইলিসু বাঁধ প্রকল্প। জানা গেছে, ২০০৬ সালে পানিবিদ্যুৎকেন্দ্র গড়ার লক্ষ্যে ওই বাঁধ প্রকল্প নির্মাণের কাজ শুরু হয়।

শহরের বাসিন্দারা এবং পরিবেশবিদদের আন্দোলন ও প্রতিবাদের পরেও কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই বাঁধের কারণে নিশ্চিহ্ন হতে যাচ্ছে ওই গুহানগরী।

গত ৬০ বছর ধরে টাইগ্রিসে বাঁধ নির্মাণের পরিকল্পনা চালিয়ে যাচ্ছে তুরস্ক। বরাবরই প্রকল্প ঘিরে সমালোচনা হচ্ছে। তবে সেদিকে বরাবরই ভ্রুক্ষেপ করেনি তুরস্ক প্রশাসন। অথচ বরাবরই পানিবিদ্যুৎকেন্দ্র সূত্রে বছরে চার হাজার দু’শ গিগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের হাতছানি বেশি টেনেছে সরকারকে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইলিসু বাঁধ তৈরি হলে ১৯৯টি জনবসতিপূর্ণ এলাকা ডুবে যাবে। কয়েক হাজার প্রাচীন গুহা এবং অসংখ্য ধর্মীয় ও ঐতিহাসিক সৌধ তলিয়ে যাবে চিরতরে। আন্দোলনকারীদের দাবি, প্রকল্পের জেরে বাস্তুচ্যুত হবেন অন্তত ৮০ হাজার মানুষ।

বাঁধ নির্মাণের কারণে লুপ্ত হবে বেশ কিছু উদ্ভিদ ও বন্যপ্রাণী প্রজাতি এবং ক্ষতিগ্রস্ত হবে জৈবিক ভারসাম্যও।

Leave a Reply