রাজাকারের প্রাথমিক তালিকা এ মাসেই: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী

রাজাকারের প্রাথমিক তালিকা এ মাসেই: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, খুব শিগগিরই রাজাকারের তালিকা প্রণয়ন করা হবে এবং এ মাসের মধ্যেই রাজাকারের প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ হবে।
ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে মুক্তিযোদ্ধা একাডেমি ট্রাস্টের একটি সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান শেষে শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) সকালে ঢাকায় ফিরে যাওয়ার পথে আখাউড়া স্থলবন্দর নোম্যান্সল্যান্ডে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে ভারত সর্বাত্নক সহযোগিতা করবে। তিনি বলেন, ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক পৃথিবীর মাঝে নজীর স্থাপন করেছে এবং তা বজায় থাকবে।
বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে ত্রিপুরার অবদান কখনও ভোলার নয় জানিয়ে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে ভারতের ত্রিপুরায় ৪টি সেক্টরে বাংলাদেশি মুক্তিযোদ্ধাদেরকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো এবং সেখানে শরণার্থী ক্যাম্প ছিল।
ওই চার সেক্টরের মধ্যে ‘পদ্মা’ নামক সেক্টরের চীফ হিসাবে আমি (মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী) দায়িত্ব পালন করিছিলাম।
মন্ত্রী বলেন, ৭১’র স্মৃতি বিজরিত মুক্তিযুদ্ধের সময়কার ত্রিপুরার ওইসব সেক্টরগুলো কীভাবে সংরক্ষণ করা যায় সেসব বিষয়ে ত্রিপুরা সরকারের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।
তিনি বলেন, ত্রিপুরায় নিযুক্ত বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনের মাধ্যমে ভারত কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।
এসময় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (আখাউড়া-কসবা সার্কেল) আব্দুল করিম, আখাউড়া থানার ওসি রসুল আহম্মদ নিজামী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply