উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও তাদের মদদদাতাদের কারণ দর্শানো (শোকজ) চিঠি পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। রবিবার থেকে তাদের শোকজের চিঠি পাঠানো হবে।  আজ শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। এর মধ্যে মদদদাতা হিসেবে এমপি-মন্ত্রীরাও থাকতে পারেন বলেও তিনি জানান।  আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, উপজেলা নির্বাচনে দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছিলেন এবং তাদের যারা মদদ দিয়েছিলেন তাদের শোকজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঠিক আছে।  আগামী রবিবার থেকে তাদের শোকজের চিঠি পাঠানো হবে জানিয়ে তিনি বলেন, তারা তিন সপ্তাহ সময় পাবেন শোকজের জবাব দেওয়ার জন্য।  এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রায় দেড়শ’র মত বিদ্রোহী ও মদদদাতাকে শোকজ দেওয়া হবে। এর মধ্যে মদদদাতার সংখ্যা অর্ধেক হতে পারে।

উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও তাদের মদদদাতাদের কারণ দর্শানো (শোকজ) চিঠি পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। রবিবার থেকে তাদের শোকজের চিঠি পাঠানো হবে। আজ শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। এর মধ্যে মদদদাতা হিসেবে এমপি-মন্ত্রীরাও থাকতে পারেন বলেও তিনি জানান। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, উপজেলা নির্বাচনে দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছিলেন এবং তাদের যারা মদদ দিয়েছিলেন তাদের শোকজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঠিক আছে। আগামী রবিবার থেকে তাদের শোকজের চিঠি পাঠানো হবে জানিয়ে তিনি বলেন, তারা তিন সপ্তাহ সময় পাবেন শোকজের জবাব দেওয়ার জন্য। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রায় দেড়শ’র মত বিদ্রোহী ও মদদদাতাকে শোকজ দেওয়া হবে। এর মধ্যে মদদদাতার সংখ্যা অর্ধেক হতে পারে।

অনিয়ম বন্ধে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মাঠ পর্যায় পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর মনিটরিং বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

আজ শনিবার দুপুরে চাঁদপুরের হাইমচরে একটি উচ্চ বিদ্যালয়ে গ্রীষ্মকালীন খেলাধুলা প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা অনলাইনের মাধ্যমেও প্রতিষ্ঠানগুলোতে মনিটরিংয়ের চিন্তা-ভাবনা করছি। শিগগিরই আমরা এই ব্যবস্থা করতে পারব। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের দুর্ঘটনা ও অনিয়মের কথা শুনি সেগুলো যেন বন্ধ হয় সেজন্য এই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যদি খুব ভালো মনিটরিং করা যায় তাহলে এই ধরনের ঘটনা বন্ধ করতে পারব বলে আশা করি। আমরা সেই লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছি। এ ছাড়াও আমরা শিশুদের মূল্যবোধ সৃষ্টিতে আলাদাভাবে গুরুত্ব দিচ্ছি।’

এ সময় তাঁর সঙ্গে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান, পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, হাইমচর উপজেলা চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটওয়ারী, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোতালেব জমাদারসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply