নরসিংদীতে স্ত্রীর হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করে স্বামী গ্রেপ্তার

নরসিংদীতে স্ত্রীর হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করে স্বামী গ্রেপ্তার

নরসিংদী শহরে ‘যৌতুক না দেওয়ায়’ স্ত্রীর হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করার অভিযোগে পুলিশ তার স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে।
জেলার পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ার্দার জানান, গ্রেপ্তারের পর বিষ্ণুচন্দ্র রায় নামে এই ব্যক্তি তার স্ত্রীর ডান হাত ছুরি দিয়ে কেটে বিচ্ছিন্ন করার কথা স্বীকার করেছেন।

বিষ্ণু শহরের বানিয়াছল এলাকার বাসিন্দা।

২৯ বছর বয়সী এই গৃহবধূকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাতটি জোড়া দেওয়া সম্ভব নয় বলে চিকিৎসকের বরাতে পরিবার জানিয়েছে।

গৃহবধূর মা বলেন, “বিয়ের সময় বিষ্ণুকে যৌতুক দেওয়া হয়। বিয়ের পরও তিন লাখ টাকা দেওয়া হয়। তবু সে মঙ্গলবার রাতে আমার মেয়ের হাত কেটে ফেলে। চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে যায়। কিন্তু তার আগেই সে তার হাতটা কেটে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে।
“তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাতটি জোড়া দেওয়া সম্ভব নয় বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন।”

তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবি করেছেন।

পুলিশ সুপার পরিবারের বরাতে বলেন, “খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে জানতে পারে গৃহবধূকে রাতেই ঢাকায় নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে গৃহবধূর ভাই ও আত্মীয়-স্বজনরা বিষ্ণুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

“পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে বিষ্ণু তার স্ত্রীর ডান হাত ছুরি দিয়ে কেটে বিচ্ছিন্ন করে ফেলার কথা স্বীকার করেছেন।”

এ ব্যাপারে গৃহবধূর ভাই বাদী হয়ে নরসিংদী থানায় মামলা করেছেন বলে তিনি জানান।

Leave a Reply