সংসদের চতুর্থ অধিবেশন ৮ সেপ্টেম্বর

সংসদের চতুর্থ অধিবেশন ৮ সেপ্টেম্বর

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্থ অধিবেশন আহ্বান করেছেন। আগামী ৮ সেপ্টেম্বর রবিবার বিকাল ৫টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হবে। প্রথম দিনে অধিবেশনের শুরুতে চলতি সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব উত্থাপন ও তা নিয়ে আলোচনা শেষে অধিবেশন মূলতবি করা হবে।

সংসদ সচিবালয় সূত্র জানিয়েছে, আজ বুধবার রাষ্ট্রপতি সংসদ অধিবেশন আহ্বান করেছেন। গত ১১ জুলাই চলতি সংসদের তৃতীয় ও চলতি অর্থবছরের বাজেট অধিবেশন শেষ হয়। সাংবিধানিক বাধ্য-বাধকতার কারণে সংসদের এই অধিবেশন আহবান করা হয়েছে। সংবিধান অনুযায়ী এক অধিবেশন শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে আরেকটি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হওয়ার বাধ্যকতা রয়েছে। তাই এই অধিবেশনের মেয়াদ সংক্ষিপ্ত হবে। অধিবেশন শুরুর আগে সংসদের কার্য-উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অধিবেশনের মেয়াদ ও কার্যসূচী নির্ধারণ করা হবে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এইচ এম এরশাদের মৃত্যুর কারণে শুন্য হওয়া বিরোধীদলীয় নেতার পদটি চলতি অধিবেশনেই পূরণ হবে। বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্যরা তাদের সংসদীয় দলের নেতা নির্বাচিত করবেন। অবশ্য এ বিষয়ে এখনো তাদের সিদ্ধান্তের কথা জানা যায়নি। তবে, সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাবের খসড়া তৈরি করা হয়েছে।

রেওয়াজ অনুযায়ী চলতি সংসদের কোন সদস্য মারা গেলে তার ওপর আনীত শোক প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা শেষে ওই দিনের বৈঠক মূলতবি করা হয়। তাই অধিবেশনের শুরুর দিনই চলতি সংসদের সদস্য এরশাদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব উত্থাপন ও তা আলোচনা শেষে গ্রহণ করা হবে। সাধারণতঃ সংসদ নেতাসহ সকল দলের সংসদ সদস্যরা ওই আলোচনায় অংশ নেন।

Leave a Reply