যৌন হয়রানির অভিযোগ থেকে মুক্ত, ভাবমূর্তি ফেরাতে ব্যস্ত নানা

যৌন হয়রানির অভিযোগ থেকে মুক্ত, ভাবমূর্তি ফেরাতে ব্যস্ত নানা

ভারতের সাবেক ‘মিস ইন্ডিয়া’ ও বলিউড তারকা তনুশ্রী দত্তকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগ থেকে সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছেন বলিউডের বরেণ্য অভিনেতা নানা পাটেকর। মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তদন্ত করতে গিয়ে ‘পর্যাপ্ত প্রমাণ’ পাওয়া যায়নি। এবার নিজের হারানো ইমেজ পুনরুদ্ধার করার জন্য স্বেচ্ছানির্বাসন থেকে জনসমক্ষে এসেছেন নানা পাটেকর। ছুটে গেছেন মহারাষ্ট্রের বন্যাদুর্গত এলাকা কোলহাপুর, সাংলি, সাতারায়। সেখানে তিনি বন্যায় নিঃস্ব হওয়া ৫০০ দরিদ্র পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

মহারাষ্ট্রে বন্যার ফলে নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে। অতিবৃষ্টির ফলে রেললাইন পানির নিচে। বহু জায়গার রাস্তায় ধস নেমেছে। অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ আছে সরকারি অফিস, স্কুল, কলেজ ও ব্যাংক। টানা বৃষ্টিতে কোলহাপুর, সাংলি, সাতারায় বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে।

নানা পাটেকর কোলহাপুরে প্রিন্সেস পদ্মরাজে বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে যান। সেখানে বন্যার কারণে আশ্রয় নেওয়া লোকজনকে নানা পাটেকর বলেন, ‘আপনাদের দুশ্চিন্তা করতে হবে না। প্রত্যেকের মাথা গোঁজার ব্যবস্থা করা হবে। সরকার কিছু অর্থ দিয়েছে, পাশাপাশি আমার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাও কাজ করছে। আমরা সরকারের বরাদ্দ দেওয়া অর্থের সঙ্গে প্রয়োজনীয় আরও অর্থ যোগ করে বন্যায় নিঃস্ব ৫০০ দরিদ্র পরিবারের জন্য ঘর নির্মাণ করব।’

নানা পাটেকরের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘নাম ফাউন্ডেশন’ থেকে এরই মধ্যে মহারাষ্ট্রের বন্যাদুর্গত এলাকার লোকজনের জন্য নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

গত বছর বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তনুশ্রী দত্ত বলেন, ‘২০০৮ সালে “হর্ন ওকে প্লিজ” ছবির সেটে নানা পাটেকর আমাকে যৌন হয়রানি করেন। একটি গানে অন্তরঙ্গ দৃশ্য অন্তর্ভুক্ত করার জন্য নানা পাটেকর চাপ দেন। আমার জন্য এটা ছিল ভয়ংকর অভিজ্ঞতা, কারণ সে (নানা পাটেকর) আমার পুরো শরীরে হাত দিয়েছে।’

তবে তনুশ্রী দত্তের সেই অভিযোগ নানা পাটেকর অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘যৌন হয়রানি বলতে সে কী বোঝাতে চাচ্ছে? আমরা যে সেটে কাজ করছিলাম, সেটির সামনে ২০০ মানুষ বসা ছিল।’

২০১৮ সালে ভারতে #মি টু আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে তনুশ্রী দত্তের সেই অভিযোগ আবার সামনে আসে। নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে মামলা করেন তনুশ্রী দত্ত। শেষ পর্যন্ত পুলিশ থেকে দেওয়া প্রতিবেদনে ‘পর্যাপ্ত প্রমাণ’ পাওয়া যায়নি বলে মন্তব্য করা হয়। বাতিল হয় তনুশ্রী দত্তের মামলা।

এখন অনেকেই মন্তব্য করেছেন, তনুশ্রী দত্তের অভিযোগের কারণে নানা পাটেকরের ইমেজের ভয়াবহ ধস নামে। অনেক বলিউড তারকা ও নির্মাতা তাঁর সঙ্গে কাজ করতে অস্বীকৃতি জানান। এবার যৌন হয়রানির মামলা বাতিল হওয়ায় তিনি আবার প্রকাশ্যে আসছেন। নিজের হারানো ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারের জন্য চেষ্টা করছেন। ছুটে গেছেন দুর্গতদের কাছে। আর তাদের জন্য ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

Leave a Reply